Web bengali.cri.cn   
চীনের বৈশিষ্ট্যময় শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হবে: সি চিন পিং
  2018-05-07 16:38:20  cri

 


সুপ্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, সবাই ভালো আছেন? সুদূর বেইজিং থেকে আপনাদের আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আমাদের নিয়মিত সাপ্তাহিক আয়োজন 'বিদ্যাবার্তা' অনুষ্ঠান, আর এ আয়োজনে আপনাদের সঙ্গে রয়েছি সুবর্ণা ও টুটুল।

গেল সপ্তাহের ৪ মে চীনের যুব দিবস ও চীনের পিকিং বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ১২০তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়টি পরিদর্শন করেন চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং। পরিদর্শনকালে তিনি পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এক সেমিনারে মতবিনিময় করেন এবং চীনের বৈশিষ্ট্যময় বিশ্বের শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা সম্পর্কে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আজকের অনুষ্ঠানে আমরা প্রেসিডেন্ট সি'র পিকিং বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন সম্পর্কিত কিছু তথ্য তুলে ধরবো।

২ মে সকালে ৯ টায় বেইজিংয়ের হাইতিয়ান এলাকায় অবস্থিত পিকিং বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেন প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং। তিনি সিপিসি'র কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মীদের এবং চীনের বিভিন্ন জাতির যুবকদের যুব দিবসের শুভেচ্ছা জানান। সি জোর দিয়ে বলেন, চীনের বৈশিষ্ট্যময় সমাজতন্ত্র ভালভাবে উন্নয়ন করা ও এতে অবিচল থাকা এবং চীনকে আধুনিক সমাজতান্ত্রিক শক্তিশালী রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলা একটি দীর্ঘকালীন কর্তব্য, যাতে বিভিন্ন প্রজন্মের যুবকদের সংগ্রাম প্রয়োজন। চীনা জাতির মহান পুনরুত্থানের চালিকাশক্তি হতে হবে চীনা যুবকদের, তাদেরকে দেশ ও জাতির আশাবাদ কাঁধে বহন করতে সক্ষম হতে হবে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উচিত সমাজতন্ত্র নির্মাণকারী ও সৃষ্টিকারীবিষয়ক প্রশিক্ষণ নেওয়া, সঠিকভাবে রাজনৈতিক দিক নিয়ন্ত্রণ করা এবং গুণগতমানসম্পন্ন শিক্ষকদের ধরে রাখা, যাতে শ্রেষ্ঠ দক্ষ ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া যায় ও চীনের বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন শ্রেষ্ঠ মানের বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা যায়।

বসন্তকালের স্নিগ্ধমাখা পরিবেশে পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস হয়ে ওঠে অপরূপ সুন্দর ও প্রাণচঞ্চল। পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের সিপিসি কমিটির সম্পাদক হাও পিং এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট লিন চিয়ান হুয়া'র সঙ্গে ক্যাম্পাসের লিনহুসিয়ানে 'নতুন যুগে পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের সাফল্য প্রদর্শনী' ঘুরে দেখেন সি চিন পিং। তিনি মনোযোগ দিয়ে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের পরিচয় জানেন। তিনি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ও সাহিত্যবিভাগের দক্ষ ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ, শিক্ষক শিক্ষার্থীদের আন্তর্জাতিক বিনিময় এবং সামাজিক সেবাসহ বিভিন্ন খাতের অর্জিত সাফল্য দেখেন। পরে তিনি এসব কাজের স্বীকৃতি দেন ও প্রশংসা করেন। সি বলেন, সিপিসি'র অষ্টাদশ জাতীয় কংগ্রেসের পর থেকে গত ৫ বছরে পিকিং বিশ্ববিদ্যালয় শ্রেষ্ঠ ঐতিহ্য উত্তরাধিকার করে ও সমাজতান্ত্রিক শিক্ষাদানে অবিচল থাকে। এতে দক্ষ ব্যক্তি প্রশিক্ষণ ও সামাজিক সেবায় অতুলনীয় সাফল্য অর্জিত হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাব ও শিক্ষাদানের দক্ষতা স্পষ্টভাবে বেড়েছে, যা সত্যিই অনেক উত্সাহব্যাঞ্জক। রাষ্ট্রীয় উন্নয়ন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিকাশ একসাথে চালু করতে হবে। রাষ্ট্রীয় উন্নয়নের প্রক্রিয়ায় উচ্চ শিক্ষার উন্নয়নে মনোযোগ দিতে হবে, যাতে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ মানের বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা যায়।

লিনহুসিয়ানের উত্তর দিকের একটি ছোট আঙ্গিনা, যার পাশেই ওয়েমিং হ্রদ। এ আঙ্গিনায় এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র অধ্যাপক ও যুব শিক্ষক প্রতিনিধিদের সাথে সাক্ষাত্ করেন সি চিন পিং। তিনি বলেন, প্রত্যেক সিনিয়র অধ্যাপকদের স্বাস্থ্য ও সুষ্ঠু শারীরিক অবস্থা দেখে আমি অনেক আনন্দিত। তিনি বলেন, আপনারা সারা জীবন দক্ষ ব্যক্তি প্রশিক্ষণ দিয়েছেন, সিপিসি ও দেশের প্রয়োজনীয় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি প্রশিক্ষণে রেখেছেন চমত্কার অবদান, আমি আপনাদের সুস্বাস্থ্য ও মঙ্গল কামনা করি।

আমেরিকান প্রবাসী সিনোলজি অধ্যাপক আন ইউয়ে জে বা রজার টি. এমস কনফুসিয়াসের 'দ্য অ্যানালেক্টস অব কনফুসিয়াস' এবং সুনজির' দ্য আর্ট অব ওয়ারফেয়ার'সহ চীনের বিভিন্ন শ্রেষ্ঠ গ্রন্থ অনুবাদ করেন। ২০১৩ সালে তিনি বিশ্ব কনফুসিয়াস সম্মেলনে বিশেষ পুরস্কার লাভ করেন। প্রেসিডেন্ট সি আন্তরিকভাবে তাঁর সাথে কথা বলেন, তাঁর চীনের জীবনযাপন সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন এবং তিনি চীনা শ্রেষ্ঠ সংস্কৃতি বিশ্বের কাছে তুলে ধরবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন। যুব শিক্ষকদের সাথে কথা বলার সময় সি বলেন, যুব শিক্ষকরা সিনিয়র অধ্যাপকদের মতো কাজ করবেন বলে তিনি আশা করেন।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পিকিং বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বের শ্রেষ্ঠ মানের বিজ্ঞানী ও সৃজনশীল কর্মগ্রুপ প্রশিক্ষণ দিয়েছে, জোরদার করেছে নব্যতাপ্রবর্তনের দক্ষতা। প্রদর্শনীতে পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান, শিল্প ও চিকিত্সাবিজ্ঞান বিভাগের সাফল্য তুলে ধরা হয়। বিভিন্ন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির গবেষণামূলক সাফল্য দেখার পর প্রেসিডেন্ট সি বলেন, আপনাদের গবেষণার ফলাফল দেখে আমি অনেক গর্বিত। সৃজনশীলতা ও নব্যতাপ্রবর্তন উন্নয়নের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চালিকাশক্তি এবং সার্বিক জাতীয় ও কেন্দ্রীয় প্রতিযোগিতামূলক শক্তির গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সাফল্য অবশ্যই নিজের হাতে ধরে রাখতে হবে, এ বিষয়ে সবার মধ্যে সচেতনতা থাকতে হবে।


1  2  
© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040