লিউ ইউয়ুন শান


নাম: লিউ ইউয়ুন শান। লিঙ্গ: পুরুষ। জাতি: হান। ১৯৪৭ সালের জুলাই মাসে শানসি প্রদেশের ছিচৌ জেলায় জন্ম। ১৯৬৬ সালের সেপ্টেম্বরে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করেন। ১৯৭১ সালের এপ্রিলে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিসি)-তে যোগ দান। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির একাডেমী থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।
বর্তমানে সিপিসি-র কেন্দ্রীয় কমিটির পলিট ব্যুরোর স্থায়ী কমিটির সদস্য, এর সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য এর প্রচার বিভাগের প্রধান।
১৯৬৪ --১৯৬৮ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের চিনিং টিচারস কলেজের ছাত্র।
১৯৬৮ --১৯৬৯ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের থুমোটে পূর্ব জেলার বাশি স্কুলের শিক্ষক, থুমোট পশ্চিম জেলার সুপুকাই কমিউনে শ্রমিক।
১৯৬৯ –১৯৭৫ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের থুমোটে পশ্চিম জেলার সিপিসি-র কমিটির প্রচার বিভাগের প্রশাসনিক সম্পাদক।
১৯৭৫ –১৯৮২ সিনহুয়া সংবাদ সংস্থার ইনার মঙ্গোলিয়া শাখার কৃষি ও পশুপালন গ্রুপের সংবাদদাতা, উপ-প্রধান; শাখার সিপিসি-র কমিটির সদস্য (১৯৮১ সালের মার্চ থেকে আগস্ট পর্যন্ত সিপিসি-র একাডেমীতে লেখাপড়া করেন)
১৯৮২ –১৯৮৪ সিপিসির যুব লীগের ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের কমিটির উপ-সম্পাদক, সিপিসির কমিটির উপ-সম্পাদক।
১৯৮৪ –১৯৮৬ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সিপিসি কমিটির প্রচার বিভাগের উপ-প্রধান।
১৯৮৬ –১৯৮৭ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সিপিসি কমিটির স্থায়ী সদস্য, প্রচার বিভাগের প্রধান।
১৯৮৭ –১৯৯১ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সিপিসি কমিটির স্থায়ী সদস্য, সাধারণ সম্পাদক; ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সরাসরি অধীন 'ওয়ার্কিং কমিটি অব অর্গান্স'-এর সম্পাদক
১৯৯১ –১৯৯২ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সিপিসি কমিটির স্থায়ী সদস্য, ছিফেং পৌর কমিটির সম্পাদক।
১৯৯২ –১৯৯৩ ইনার মঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সিপিসি কমিটির উপ-সম্পাদক ও ছিফেং পৌর কমিটির সম্পাদক।
(১৯৮৯—১৯৯২ সিপিসির কেন্দ্রীয় পার্টি স্কুলে দল ও সরকার প্রশাসন বিষয়ে পড়াশোনা করেন।)
১৯৯৩ –১৯৯৭ সিপিসি-র কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিভাগের উপ-প্রধান
১৯৯৭–২০০২ সিপিসির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিভাগের উপ-প্রধান (অক্টোবর ১৯৯৭: মন্ত্রীত্ব পর্যায়ে), সাংস্কৃতিক ও নৈতিক উন্নয়ন নিয়ন্ত্রণসংক্রান্ত কেন্দ্রীয় কমিশনের সাধারণ কার্যালয়ের প্রধান।
২০০২—২০১২ কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরোর সদস্য, সিপিসির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিভাগের সদস্য-সম্পাদক ও প্রধান। ২০১২-- পলিট ব্যুরোর স্থায়ী কমিটির সদস্য, সিপিসির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিভাগের সদস্য-সম্পাদক ও প্রধান।
সিপিসি-র ১২তম ও ১৪তম জাতীয় কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় কমিটির বিকল্প সদস্য; সিপিসির ১৫তম, ১৬তম, ১৭তম ও ১৮তম জাতীয় কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য; সিপিসির ১৬তম এবং ১৭তম কেন্দ্রীয় কমিটির পলিট ব্যুরোর সদস্য ও সম্পাদক, সিপিসির ১৮তম কেন্দ্রীয় কমিটির পলিট ব্যুরোর স্থায়ী কমিটির সদস্য।