Web bengali.cri.cn   
ফ্র্যাঙ্কফুর্ট চা ও বইপত্র চীনা নববর্ষকে স্বাগত জানিয়েছে
  2020-02-08 15:17:22  cri
২০০৬ সালে প্রতিষ্ঠিত চীনের "চা অনুষ্ঠান" ম্যাগাজিনটি চীনের ৩০টিরও বেশি শহর ও বিভিন্ন দেশের চা হাউসগুলিতে দশম গ্লোবাল টি ফ্রেন্ডস স্প্রিং ফেস্টিভালের আয়োজন করে। এর মধ্যে জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর ফ্র্যাঙ্কফুর্টে অনুষ্ঠিত চা পার্টি স্থানীয় চা সংস্কৃতির আকর্ষণ তুলে ধরে।

চায়ের সুগন্ধ ও বইয়ের সুবাসে, জার্মান লোকেরা ধীরে ধীরে চাইনিজ স্প্রিং ফেস্টিভাল সম্পর্কে জানতে পারে এবং ঐতিহ্যবাহী চীনা চা সংস্কৃতির কাছে যেতে শুরু করে।

চীনের চা সংস্কৃতি আন্তর্জাতিক (জার্মানি) এক্সচেঞ্জ কমিটির চেয়ারম্যান এবং জার্মান "চা অনুষ্ঠান"-এর নির্বাহী পরিচালক গেরহার্ড টম বলেন, ইভেন্টের বিষয়বস্তু সমৃদ্ধ এবং বিভিন্ন আকার রয়েছে। হাইলাইটের মধ্যে রয়েছে চায়ের বাটি তৈরি, কুংফু চা, চা শিল্প প্রদর্শন ইত্যাদি। চীনা চা সম্পর্কিত বইগুলি ভাগ করে নেওয়া ও ভাব বিনিময় করা, বিভিন্ন জাতের চায়ের স্বাদ উপভোগ করা ইত্যাদি। গেরহার্ড বলেন, আমি বিশ্বাস করি যে এগুলি বেশিরভাগ ইউরোপীয়দের জন্য একটি নতুন অভিজ্ঞতা। বিশেষত, চায়ের বাটি তৈরির পদ্ধতিটি; যার শত বছরের ইতিহাস রয়েছে; যা মূলত জার্মানিতে দেখা যায় না। আমি ক্লাসিক চা পর্যালোচনার মতো ক্লাসিক চা সংস্কৃতির বইগুলো বিশেষভাবে প্রস্তুত করেছি, যা আপনার সঙ্গে ভাগাভাগি করতে চাই ও বিনিময় করতে চাই।

দুই বছর আগে ফ্রাঙ্কফুর্টে যাওয়ার পরে, চিকিত্সা শিল্পের পরামর্শদাতা জুলিয়াস "চায়ের অনুষ্ঠান"-এর নিয়মিত গ্রাহক হয়ে ওঠেন। তিনি তৃতীয়বারের মতো চীন ভ্রমণ করেন এবং স্থানীয় অঞ্চলে চান্দ্র নববর্ষ উদযাপন করেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আজকের অনুষ্ঠানটি দুর্দান্ত ছিল। বিশেষত, চায়ের বাটি তৈরির পদ্ধতি প্রবর্তন ও প্রদর্শন আমার উপর গভীর ছাপ ফেলেছে। এটি আমার আগের জানা কুংফু চায়ের মতো নয়। এটি খুব আকর্ষণীয়। চাইনিজ চা এবং চীনা সংস্কৃতির ভক্ত হিসাবে আমি অনুভব করি যে, আমি অনেক নতুন জ্ঞান অর্জন করছি।

গেরহার্ড তার কাজের কারণে ১৯৮০'র দশক থেকে ঘন ঘন চীন ভ্রমণ করেন। দীর্ঘদিন ধরে চাইনিজ চা সম্পর্কে জানেন তিনি। আট বছর আগে, তিনি দৃঢ়তার সাথে নিজেকে তার প্রিয় চা ব্যবসায়ের প্রতি নিজেকে উত্সর্গ করার সিদ্ধান্ত নেন। তিনি প্রতি বছর বহুবার চীনে আসেন। চা কিনতে তিনি চীনের আশেপাশের চা বাগান পরিদর্শন করেন। তিনি জার্মানি, এমনকি ইউরোপের লোকদের চীন থেকে কয়েকশ' ধরনের চা পান করার এবং চীনা চা অনুষ্ঠানের সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের সুযোগ করে দিতে চেয়েছিলেন। সাংবাদিকদের এক সাক্ষাত্কারে গেরহার্ড বলেন, বিভিন্ন স্বাদ ও সুগন্ধ, স্বাস্থ্যকর উপকারিতা, সমৃদ্ধ ইতিহাস... চাইনিজ চায়ের বিভিন্ন আকর্ষণীয় দিক অন্যকে বোঝানো দরকার। বিশেষত এর পেছনে দর্শনশাস্ত্র।

অনেকে ধারণা করতে পারে যে, ৫ হাজার বছরেরও বেশি বছরের ইতিহাস নিয়ে ঐতিহ্যটি একটি প্রাচীন গল্প ও স্মৃতি ছাড়া আর কিছু নয়। তবে আমার দৃষ্টিতে, চাইনিজ চা সংস্কৃতি আগের চেয়ে শক্তিশালী ও ব্যবহারিক তাত্পর্যপূর্ণ। এটি এমন একটি মাধ্যম যা মানুষকে প্রকৃতির সাথে সংযুক্ত করে। আরও গুরুত্বপূর্ণ হলো, এটি মানুষকে মানুষের সাথে সংযুক্ত করে এবং এই সংযোগটি অবিচ্ছিন্নভাবে প্রসারিত ও গভীর। গেরহার্ড সাহিত্যের সেলুন, আর্ট ফোরাম, রিডিং ক্লাব এবং জার্মানরা যেসব রূপ পছন্দ করে সেগুলির মাধ্যমে চীনা চা সংস্কৃতি প্রবর্তন ও প্রচার করেন। যাতে স্থানীয় লোকেরা চীনের চা মাস্টারদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে এবং তারপর চাইনিজ চা সম্পর্কে আরও জানতে পারেন।

তিনি বলেন, আমরা আজকের ইভেন্টের মাধ্যমে একটি বার্তা দিতে চাই। সেটি হলো, চা সংস্কৃতি জাতীয় সীমানা অতিক্রম করতে পারে। একই সাথে, উন্নয়নের দৃষ্টিকোণ থেকে চা সংস্কৃতির গুরুত্ব উপেক্ষা করা যায় না। চীনা চা সংস্কৃতির দার্শনিক ভাবটি আরও বেশি লোকদের জানানোর চেষ্টা করা উচিত। আমি বিশ্বাস করি এভাবে চীনা চা সংস্কৃতি বিদেশে আরও সুন্দরভাবে ছড়িয়ে পড়বে।

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040