Web bengali.cri.cn   
'নববর্ষের গান সবাই একসাথে গাই'
  2020-01-02 19:31:15  cri

প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, আপনারা কেমন আছেন? বেইজিং থেকে প্রচারিত চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা অনুষ্ঠান 'সুরের ধারায়' আপনাদের সবাইকে আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি আমি শুয়েই ফেইফেই।

প্রতি সপ্তাহের এই সময় আমার কাছে খুব আনন্দের এবং সৌভাগ্যের। কারণ, এ সময় আপনাদের সঙ্গে সংগীতের মাধ্যমে মনের কিছু কথা বলতে পারি। বেইজিং ও বাংলাদেশের মধ্যে ভৌগোলিক দূরত্ব অনেক বেশি হলেও সংগীতের কোনো সীমানা নেই। আপনাদের সঙ্গে সুন্দর গান শুনতে শুনতে মনে হয়, আমি আপনাদের সঙ্গেই আছি; এটি আমার জন্য খুব সুন্দর মুহূর্ত!

আচ্ছা, আপনারা কি প্রস্তুত? চলুন তাহলে, আমার সঙ্গে প্রবেশ করুন সংগীতের জগতে।

বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠান হল নতুন বছরের প্রথম 'সুরের ধারায়' আসর। তাই আসরের শুরুতেই 'মাতৃভূমিকে গভীর ভালোবাসা' শীর্ষক গানটি দিয়ে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি নববর্ষের বিশেষ ও সুন্দর শুভেচ্ছা। (১)

প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, নতুন বছর এসেছে মানে শিগগিরি শীতকাল চলে যাবে এবং বসন্তকাল আসবে। এমন ঋতুতে মানুষের মনে আশা, সুখী এমন সুন্দর শব্দ ভেসে ওঠে। তাহলে এখন আপনাদের শোনাবো 'বসন্তকালের গান' নামের একটি সুন্দর গান। আশা করি গানটি আপনাদের ভালো লাগবে। (২)

প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, এখন শুনুন 'নববর্ষের গান সবাই একসাথে গাই' শীর্ষক গানটি। গানের কথা এমন: বসন্তকালে বিভিন্ন ফুল ফোটে, ফুলে সাজানো কতো সুন্দর দৃশ্য চোখে পরে! তরুণ-তরুণীরা পাহাড়ে দাঁড়িয়ে হাতে হাত রেখে গান গায়। গাইতে গাইতে এক সুন্দর বসন্ত আসছে। পাহাড়ের মেয়ে হাসে, ছেলে হাসে, সুন্দর জীবনে সবাই মনের খুশিতে হাসে। শুভ নববর্ষ, শুভ নববর্ষ, সবাই আনন্দ জীবন কাটাবো।

আচ্ছা, শুনুন সুন্দর গানটি। (৩)

প্রিয় বন্ধুরা, এখন শুনুন 'সম্পদের দেবতা এসেছেন' নামের একটি গান। বন্ধুরা, নতুন বছরে আপনার আশা কী? সুস্বাস্থ্য ও বেশি বেশি সম্পদ—তাই না? এখন 'সম্পদের দেবতা এসেছেন' গানের মাধ্যমে আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি নতুন বছরের শুভেচ্ছা। আশা করি গানটি আপনাদের ভালোই লাগবে। (৪)

বন্ধুরা, শুনলেন 'সম্পদের দেবতা এসেছেন'নামের গানটি। এখন শুনুন 'চলতি বছর আগের বছরের চেয়ে আরও ভালো হবে' শীর্ষক একটি গান। গানটি গেয়েছেন চীনের বিখ্যাত কন্ঠশিল্পী ইয়াং ইয়ু ইং। ইয়াং ইয়ু ইং ১৯৭১ সালের ১১ মে চীনের চিয়াংসি প্রদেশের নানছাং শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি চীনের বিখ্যাত গায়িকা, টিভি উপস্থাপিকা এবং গীতিকার।

ইয়াং ইয়ু ইং খুব সাধারণ এক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার মা সিয়ুং ইয়ুং হুং-এর প্রভাবে ছোটবেলায় তিনি সংগীতে নিজের সহজাত প্রতিভা প্রকাশ করেন। পাঁচ বছর বয়সেই তিনি পিয়ানো বাজাতে শিখে ফেলেন। ছয় বছর বয়সে তিনি মঞ্চে পারফর্ম করতে শুরু করেন। ১৯৮৫ সালে তিনি চীনের কেন্দ্রীয় টেলিভিশনের দেশব্যাপী সংগীত প্রতিযোগিতায় পুরস্কার লাভ করেন। চীনে ইয়াং ইয়ু ইং 'মিষ্টি গানের রানী' হিসেবেও পরিচিত। এখন আমরা 'মিষ্টি গানের রানী' ইয়াং ইয়ু ইং-এর গাওয়া 'চলতি বছর আগের বছরের চেয়ে ভালো হবে' শীর্ষক গানটি শুনবো। (৫)

শ্রোতাবন্ধুরা, এখন শুনুন ইয়াং ইয়ু ইং-এর গাওয়া আরেকটি গান; গানের নাম 'খুশির চেয়ে বেশি খুশি' । এই গানের নাম থেকে বোঝা যায় এটিও একটি শুভকামনার গান। আশা করি গানটি আপনাদের মনে খুশি এবং আনন্দ বয়ে আনতে পারবে। আচ্ছা, একসাথে শুনুন গানটি। (৬)

প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, শুনলেন 'খুশির চেয়ে বেশি খুশি' নামের গানটি। এখন যে-গান আপনাদের শোনাতে যাচ্ছি, এর নাম 'খুশির খবর একসাথে আসে'। আশা করি নতুন বছরে আপনাদের জীবনে সবসময় আনন্দের খবর আসবে, খুশির ঘটনা ঘটবে, জীবন আরো সুন্দর হবে। আচ্ছা, একসাথে শুনুন গানটি। (৭)

শ্রোতাবন্ধুরা, সুন্দর গান শুনতে শুনতে অনুষ্ঠানের শেষ প্রান্তে চলে এলাম; বিদায় নেয়ার আগে আপনাদের শোনাতে চাই আরেকটি শুভকামনার গান; গানের নাম 'আনন্দ আপনার বাসায় যাচ্ছে'। আশা করি গানটি আপনাদের ভালো লাগবে।

শ্রোতাবন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠান এখানেই শেষ করছি, সবাই ভালো থাকুন, সুন্দর থাকুন; পরের আসরে আবারও কথা হবে।

(শুয়েই/আলিম/সুবর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040