Web bengali.cri.cn   
কুক দ্বীপপুঞ্জের একদল চীনা মানুষ
  2019-11-12 15:36:27  cri
সম্প্রতি 'তৃতীয় চীন-প্যাসিফিক দ্বীপ দেশসমূহের অর্থনৈতিক উন্নয়ন সহযোগিতা ফোরামে' কুক দ্বীপপুঞ্জের উপ-প্রধানমন্ত্রী মার্ক ব্রাউন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক প্রচারে চীন সরকার ও জনগণের অবদানের বিষয়টির উচ্চ মূল্যায়ন করেছেন। এই প্রতিবেদনে দেখা গেছে, কেবলমাত্র একটি চীনা অর্থায়নে নেওয়া উদ্যোগে একটি কনফুসিয়াস ক্লাসরুম এবং স্বল্প সংখ্যক চীনা লোক রয়েছে। তবে তাদের নিরবচ্ছিন্ন প্রচেষ্টা দ্বীপ দেশটিকে চীনের শক্তিশালী বন্ধু রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, চীন প্রশান্ত মহাসাগরের কুক দ্বীপপুঞ্জে উচ্চ আদালত ভবন, স্টেডিয়াম, পানীয়জলের সুবিধা ইত্যাদি নির্মাণে সহায়তা করেছে। শিক্ষক ও অন্যান্য পেশার লোকজন পাঠিয়ে স্থানীয় সংস্কৃতি ও শিক্ষামূলক উদ্যোগ উন্নয়নে সহায়তা দিয়েছে। এর মাধ্যমে স্থানীয় জনগণের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান হলো 'অ্যাপিনিকা খও স্কুল'।

'অ্যাপিনিকা খও স্কুল' এর আগে আগুনে পুড়ে নষ্ট হয়ে গিয়েছিল এবং অনেক শিক্ষার্থীর স্কুলে যেতে অসুবিধা হচ্ছিল। স্থানীয় অঞ্চলে কাজ করা চীনের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের সহায়তায় স্কুল ভবনটি তৈরি হয় এবং এক বছরেরও কম সময়ে এটি পরিপূর্ণ স্কুলে পরিণত হয়। এটি কিন্ডারগার্টেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং বৃত্তিমূলক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৪টি বিভাগ রয়েছে। স্কুলটি গত মে মাস থেকে চালু হয় এবং বর্তমানে এটি কুক দ্বীপপুঞ্জের বৃহত্তম, সর্বাধিক বিস্তৃত এবং আধুনিক প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

কুক দ্বীপপুঞ্জের চীনা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের প্রধান গাও তং বলেন, এর সুনামের কারণে, নতুন স্কুলটি স্থানীয় বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী আকর্ষণ করেছে। এটি বিদেশি শিক্ষার্থীদেরও পছন্দের প্রতিষ্ঠান। গাও দং বলেন,

পুনর্নির্মাণের আগে শিক্ষার্থীরা জরাজীর্ণ শ্রেণিকক্ষে প্রচুর ভিড় করত, যার মধ্যে কিছু কিছু ছিল খোলা কক্ষ। আগে এখানে ২৬০জন ছাত্র ছিল এবং নতুন নির্মাণের পরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৪০জনে পৌঁছেছে। এটি স্কুলের অভিভাবকদের পছন্দের বিষয়। প্রতিবার যখন আমরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাই, শিক্ষকের কাছ থেকে আমি সবচেয়ে বেশি যে শব্দ শুনতে পাই, তা হলো 'ধন্যবাদ'। এখন স্কুলের অফিস এবং শিক্ষার পরিবেশ তৈরি হয়েছে। স্কুলটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, প্রশস্ত ও উজ্জ্বল, শিক্ষকরা সন্তুষ্ট এবং শিক্ষার্থীরা তা পছন্দ করেছে। মাতৃভূমি থেকে দশ হাজার মাইল দূরে কুক দ্বীপপুঞ্জের বসবাসকারী চীনা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপের কর্মীরা ব্যস্ততার পর অবসরে কেবল প্রিয়জনদের সাথে মোবাইল ফোনে চ্যাট করেই সময় কাটাতেন। তবে, দ্বীপে নেটওয়ার্ক ট্র্যাফিক ফি তুলনামূলকভাবে ব্যয়বহুল। তারা প্রচুর এমন ভিডিও চ্যাটগুলি ব্যবহার করার সাহস পর্যন্ত করতো না। তাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগের জন্য ভয়েস কল ব্যবহার করত।

চীনা নির্মাতাদের জন্য মিসেস অ্যাপি গভীর শ্রদ্ধা জানান। তিনি বলেন, 'আমরা চীনের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমাদের বাচ্চাদের এমন নিখুঁত স্কুল আনার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আমাদের অবশ্যই চীন সরকার এবং চীন নির্মাতাদের শ্রদ্ধা জানাতে হবে! এখানে লেখাপড়া করে, শিশুরা খুব স্বাচ্ছন্দ্যময় বোধ করছে। তারা চীন সম্পর্কে সব কিছু বুঝতে আগ্রহী।'

সিছুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক শিক্ষা বিভাগের স্নাতক শিক্ষার্থী ওয়াং জিয়া আরও একজন চীনা, যিনি দ্বীপপুঞ্জের মানুষকে মুগ্ধ করেছেন। কনফুসিয়াস ক্লাসরুমটি ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ৩০জনেরও বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছিল। এটি তিনটি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে চীনা ভাষা শিক্ষার কাজ করে। এখন কেবলমাত্র একজন সরকারি শিক্ষক ছুটিতে চীন ফিরে আসেন। এক বছরেরও কম সময়ের জন্য কুক দ্বীপপুঞ্জে আসা ওয়াং জিয়া সপ্তাহে ১০ টিরও বেশি ক্লাস নেন এবং স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে আগ্রহীদের জন্যও ক্লাসে পড়াতেন। তার শিক্ষার্থীদের মধ্যে চিকিৎসক, ব্যাংক কর্মী এবং প্রাপ্তবয়স্ক আছে। তিনি বলেন, কুক দ্বীপপুঞ্জের অনেক লোক চাইনিজদের বংশধর। তারা চীনা সংস্কৃতির সাথে তাদের পরিচয়ের জন্য চাইনিজ ভাষা শেখার সুযোগ পেয়ে অনেক আনন্দিত ও সম্মানিত। তারা ক্লাসরুম থেকে চাইনিজ ক্যালিগ্রাফি, খাবার, কাগজ কাটা এবং জীবনযাপন পদ্ধতি শিখেছে, চীনা সংস্কৃতির গভীরতা অনুভব করেছেন। স্থানীয় মানুষ চীনা ভাষা শেখায় অনেক সমর্থন দেয়। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের লোকজন পড়াশোনা করছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পরের সেমিস্টারে চীনা ভাষা অধ্যয়ন করবেন। কুক দ্বীপপুঞ্জের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা যিনি বহু বছর ধরে চীনা ভাষা শিখছিলেন, তিনি সাংবাদিকদের বলেন যে, এটি কনফুসিয়াস শ্রেণিকক্ষের নিয়মিত শিক্ষা যা স্থানীয় জনগণকে চীন সম্পর্কে জানার সুযোগ করে দেয়। তিনি বলেন, চীনের প্রভাব ক্রমবর্ধমান এবং এটি সবসময় বাড়ছে। আমি বুঝতে পারি যে উন্নয়নের সময় কুক দ্বীপপুঞ্জ এবং চীনের মধ্যে বোঝাপড়া ও বন্ধুত্বের প্রচার করা চীনের "এক অঞ্চল, এক পথ" উদ্যোগের অংশ। আমাদের লোকেরা ম্যান্দারিন শিখতে পছন্দ করে এবং চীন সম্পর্কে আরও জানতে আগ্রহী।

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040