Web bengali.cri.cn   
'মাইলা'
  2019-10-28 14:43:50  cri


বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি আপনাদেরকে চীনের একজন বিখ্যাত নারী কন্ঠশিল্পীর পরিচয় দিবো। তিনি হলেন ইন স্যিউ মেই। তিনি ১৯৫৬ সালের জানুয়ারি মাসে হেইলংচিয়াং প্রদেশের হ্যেগাং শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হলেন চীনের জাতীয় প্রথম পর্যায়ের অভিনেত্রী, জাতীয় কংগ্রেসের প্রতিনিধি, জাতীয় নারী ফেডারেশনের নির্বাহী সদস্য ও চীনের সংগীতজ্ঞ সমিতির সদস্য। 'আজকে তোমার জন্মদিন' শীর্ষক গান ১৯৮৯ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী চীন প্রতিষ্ঠার ৪০তম বার্ষিকী উপলক্ষে গাওয়া হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইন স্যিউ মেই'র কন্ঠে 'আজকে তোমার জন্মদিন' শীর্ষক গান। ১৯৮৬ সালে তিনি 'শেনচৌ (চীন) সংগীত মহলের শ্রেষ্ঠ কন্ঠশিল্পী'-এর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮৯ সালে তিনি ত্রয়োদশ বিশ্ব যুবক ফেডারেশন উত্সবে শ্রেষ্ঠ কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯২ সালে তাঁর প্রকাশিত অ্যালবাম চীনের দ্বিতীয় গোল্ডন ডিস্ক অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন। ২০০৪ সালে তিনি নৈতিকতা ও শিল্প বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন শিল্পীর মর্যাদা লাভ করেন। এখন শোনাবো তাঁর কন্ঠে 'মাইলা' শীর্ষক গান। গানটি কাজাখ জাতির লোকসংগীত। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইন স্যিউ মেই'র কন্ঠে কয়েকটি গান।

এখন আমি আপনাদেরকে নারী কন্ঠশিল্পী লিয়াং জিং রু-এর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তাঁর জন্ম ১৯৭৮ সালের ১৬ জুন। তিনি মালয়েশিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৭ সালে চীনের বিখ্যাত গীতিকার লি জুং শেং-এর সাহায্যে তিনি তাইওয়ানে যান। তারপর ১৯৯৯ সালে প্রথম অ্যালবাম প্রকাশের মাধ্যমে সঙ্গীতজগতে তার পথচলা শুরু হয়। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'ফ্লাই এওয়েই' গানটি শোনাবো। গানটি ২০০৩ সালে রিলিজ হয়। চলুন, এখন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন লিয়াং জিং রু'র কন্ঠে 'ফ্লাই এওয়েই' শীর্ষক গান। ২০০০ সালে তার 'সাহসী' শিরোনামের গান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। এই গানের কারণে লিয়াং জিং রু দ্বাদশ তাইওয়ান সঙ্গীত পুরস্কারের শ্রেষ্ঠ এমটিভির মনোনয়ন পান। ২০০১ সালে লিয়াং জিং রু-এর তৃতীয় অ্যালবাম 'উজ্জ্বল তারা' প্রকাশিত হয়। ২০০২ সালে তাঁর চতুর্থ অ্যালবাম 'আমি সূর্যোদয় পছন্দ করি' বাজারে আসে। ২০০৩ সালে তাঁর পঞ্চম অ্যালবাম 'সুন্দর জীবন' প্রকাশিত হয়। ২০০৪ সালে লিয়াং জিং রু 'সুন্দর জীবন' অ্যালবামের কারণে ১৫তম তাইওয়ান শ্রেষ্ঠ গানের শ্রেষ্ঠ গায়িকার মনোনয়ন লাভ করেন। আর একই বছর তিনি ষষ্ঠ অ্যালবাম 'প্রজাপতি' প্রকাশ করেন। বন্ধুরা, এখন আমি আপনাদেরকে 'ভালবাসা অনেক সহজ' শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি তাইওয়ানের বিখ্যাত আর অ্যান্ড বি কন্ঠশিল্পী থাও চে রচনা করেন। লিয়া জিং রু ২০০৮ সালে নিজের অ্যালবামে গানটি অন্তর্ভুক্ত করেন। চুলন, আমরা একসঙ্গে শুনবো লিয়াং জিং রু'র কন্ঠে 'ভালবাসা অনেক সহজ' নামের গান।

বন্ধুরা, শুনছিলেন লিয়া জিং রু'র কন্ঠে 'ভালবাসা অনেক সহজ' গানটি। ২০০৫ সালে তিনি বিশ্বব্যাপী কনসার্ট আয়োজন করেন। আর একই বছর তিনি 'প্রজাপতি' গানের কারণে তাইওয়ানের শ্রেষ্ঠ গায়িকার পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৬ সালে তাঁর অ্যালবাম 'চুমু' প্রকাশিত হয়। এই অ্যালবামের অন্যতম গান 'উষ্ণতা' তাঁর প্রতিনিধিত্বশীল গানগুলোর অন্যতম। বন্ধুরা, ২০০৭ সালে তাঁর নবম ব্যক্তিগত অ্যালবাম 'আরাধনা' প্রকাশিত হয়। এই অ্যালবাম এশিয়ায় বিক্রি হয় ১০ লাখেরও বেশি কপি। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'নিংসিয়া' নামের গান শোনাবো। গানটি ২০০৪ সালে রিলিজ হয়। গানের কথা লেখক লি চেং ফান ২০০৪ সালের গ্রীষ্মকালে চীনের নিংসিয়া হুই জাতির স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলে স্থানীয় শিশুদের সঙ্গে তিন দিন বসবাস করার পর লিখেছিলেন। চলুন, আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম/ফেই)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040