Web bengali.cri.cn   
চীনা প্রযুক্তিবিদ ছেন সিং সিং: পরিশ্রমী যুবকের প্রতিকৃতি
  2019-07-08 08:39:23  cri

চীনা কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিসি) প্রতিষ্ঠার ৯৮তম বার্ষিকী উপলক্ষে সম্প্রতি সিআরআই'র সাংবাদিকরা সিপিসি'র কয়েকজন সাধারণ সদস্যের সাক্ষাত্কার নিয়েছেন। এর মধ্যে সাধারণ তেল-শ্রমিক থেকে শুরু করে সরকারি কর্মচারী পর্যন্ত আছেন। আশা করি, সিপিসি'র সাধারণ সদস্যদের শুনে শ্রোতারা সিপিসি-কে আরও ভালোভাবে জানতে পারবেন। সিপিসি'র সদস্যসংখ্যা ৯ কোটি। চীনা জনগণের সমর্থনে এটি বিশ্বের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল। সিপিসি চীনা মানুষকে সমৃদ্ধ ও সুন্দর জীবন গড়ে তোলার ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিয়েছে এবং দিচ্ছে। প্রথমে শোনাবো ২৯ বছর বয়সী সিপিসি'র যুবসদস্য ছেন সিং সিংয়ের গল্প।

ছেন সিং সিং হলেন চীনা প্রকৌশল পদার্থবিজ্ঞান একাডেমির যান্ত্রিক উত্পাদন প্রযুক্তি গবেষণা ইনস্টিটিউটের একজন উচ্চ পর্যায়ের প্রযুক্তিবিদ। তিনি উচ্চ পর্যায় ও আধুনিক পণ্য উত্পাদনের কাজ করেন। ২০১৮ সালে তিনি 'মহা দেশ কারিকর' শীর্ষক পুরস্কার লাভ করেন। ছেন সিং সিং শানতুং প্রদেশের গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একটি প্রযুক্তি ও শিল্প একাডেমি থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। বিদ্যালয়ে তিনি বৈদ্যুতিক, ঢালাই, ফিল্টার, অঙ্কন ও সিএসি গাড়িসংশ্লিষ্ট প্রযুক্তি শিখেছেন। ২০০৯ সালে তিনি কাজ করা শুরু করেন।

২০১৫ সালে তিনি চীনের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিশেষ আণবিক পাম্প প্রকল্পের মূল উপাদন উত্পাদনের দায়িত্ব পালন করেন। কাজটা অনেক জটিল। ছেন সি সিং বলেন, কাজটা আসলে অনেক জটিল। আর সেজন্য ছেন সিং সিং কাজটাকে তুলনামূলকভাবে সহজ ও উন্নত করতে গবেষণা করেন। তিনি সঠিক টুল ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির মধ্যে সমন্বয় সাধন করেন। তিনি বলেন, 'গবেষণার পর সৃষ্ট নতুন যন্ত্র খুবই ভাল। আগে উত্পাদনের সময় ছিল নয় ঘন্টা। এখন সময় লাগে মাত্র ২ ঘন্টা। আমাদের উত্পাদন-ক্ষমতা ৪ গুণ বেড়েছে। এ ছাড়া, পণ্যের মানও অনেক উন্নত হয়েছে।'

ছোটবেলায় ছেন সিং সিং বাইসাইকেল ও টেলিভিশন খুলে পুনরায় জোড়া লাগাতেন। বড় হওয়ার পর তিনি স্বপ্ন দেখতেন বড় প্রযুক্তিবিদ হওয়ার। ২০০৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত তিনি পৃথক পৃথকভাবে অনেক প্রযুক্তি প্রতিযোগিতায় অংশ নেন এবং অনেক পুরস্কার লাভ করেন। তিনি বলেন, প্রতিটি প্রতিযোগিতা ও অনুশীলন তাঁকে একটু একটু করে দক্ষ প্রযুক্তিবিদ বানিয়েছে।

চীনের একজন উচ্চ পর্যায়ের প্রযুক্তিবিদ ছেন সিং সিং। তিনি প্রযুক্তির মান উন্নয়নে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি চুলের চেয়ে পাতলা ০.০২ মিলিমিটার কর্তনকারী মাথা দিয়ে ২ সেন্টিমিটার কম ব্যাসে ডিস্কে ১০টি গর্ত ড্রিল করার প্রযুক্তি আবিষ্কার করেন। এ ধরনের আরও আবিষ্কার আছে তার। পরিশ্রমের মাধ্যমে ছেন সিং সিং অনেক কাজ করেছেন, যা অন্যরা করতে পারেননি।

ছেন সিং সিং বলেন, শুধু বিদ্যালয়ের শিক্ষার ওপর নির্ভর করে কেউ বড় ও বিশিষ্ট প্রযুক্তিবিদ হতে পারে না। গবেষণা ও পরিশ্রম লাগে। তিনি বলেন, 'আমাদের উচিত অব্যাহতভাবে নতুন জ্ঞান ও প্রযুক্তি শেখা এবং অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করা। এভাবে নিজের মান উন্নত করা যায়। কোনো কোনো সময় আমি গবেষণার সময় ঘুমাতে ভুলে যাই। কিন্তু এতে আমি খুশি। এখন আমাদের অনেক বিশিষ্ট প্রযুক্তিবিদ আছেন। তাঁরা আমার মতো পরিশ্রম করছেন।'

ছেন সিং সিং আরও দু'জন উচ্চ মানের প্রযুক্তিবিদকে নিয়ে একটি গ্রুপ তৈরি করেছেন। এই গ্রুপ প্রযুক্তির নব্যতাপ্রবর্তন নিয়ে কাজ করছে। গ্রুপটির সদস্যরা পেশাদার প্রযুক্তি বিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তাঁদের অভিন্ন স্বপ্ন হলো নতুন যুগে বহুমুখী উচ্চ প্রযুক্তিবিদে পরিণত হওয়া এবং দেশের উন্নয়নে অবদান রাখা। ছেন সিং সিং বলেন, 'যে পরিশ্রম করে এবং যখন যে-কাজ করে, তা ভালোভাবে করে—সে কখনও ব্যর্থ হয় না। আমাদের উচিত জীবন সম্পর্কে সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করা। দৃষ্টিভঙ্গি আপনার জীবনের মান নির্ধারণ করবে।'

এ সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, 'বর্তমান চীনে উচ্চ মানের প্রযুক্তিবিদ, বিশেষ করে শীর্ষ পর্যায়ের দক্ষতাসম্পন্ন প্রতিভার অভাব রয়েছে। প্রতিভাবানরা ভাল বেতন পেয়ে থাকেন এবং তাদের ভবিষ্যৎ হয় উজ্জ্বল। এতে নিজের জীবনের মূল লক্ষ্য যেমন পূরণ করা যায়, তেমনি দেশের জন্য অবদান রাখা যায়।'

তিনি জানান, তিনি কাজ করছেন দশ বছর ধরে। ভবিষ্যতে তাঁর পথ আরও অনেক লম্বা। ভবিষ্যতে তিনি অবশ্যই অব্যাহতভাবে নতুন জ্ঞান ও প্রযুক্তি শিখতে থাকবেন। নিজের স্বপ্ন বাস্তবায়ন এবং দেশের জন্য অবদান রাখার চেষ্টা করতে থাকবেন তিনি।

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040