Web bengali.cri.cn   
প্রসঙ্গ: চীনের উন্মুক্তকরণের নীতি ও বিদেশি বিনিয়োগ
  2019-07-01 14:45:33  cri

চীন সম্প্রতি বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নেতিবাচক বা নিগেটিভ লিস্ট প্রকাশ করেছে। এই লিস্ট অনুসারে, ৩০ জুলাই থেকে চীনে শিপিং এজেন্ট, সিনেমা, ব্রোকারেজ প্রতিষ্ঠান, টেলিযোগাযোগ, তেল ও গ্যাস অনুসন্ধান ও উন্নয়নসহ বিভিন্ন খাতে বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ উঠে যাবে বা শিথিল হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আপডেট তালিকা চীনের বিশ্বমুখী উন্মুক্ততার প্রতীক। চীন নিজেকে আরও বেশি উন্মুক্ত করেছে।

চীনের জাতীয় উন্নয়ন ও সংস্কার কমিশন এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয় রোববার প্রকাশিত বৈদেশিক বিনিয়োগ অনুমোদনের নেতিবাচক তালিকার এন্ট্রি ৪৮ থেকে ৪০-এ হ্রাস করে। একই দিনে প্রকাশিত অবাধ্য বাণিজ্য পরীক্ষা এলাকা বৈদেশিক বিনিয়োগ অনুমোদনের নেতিবাচক তালিকার এন্ট্রি ৪৫ থেকে ৩৭-এ হ্রাস করে।

এ পরিবর্তন প্রসঙ্গে জাপানের ইয়োকোহমা ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বেইজিং সেন্টারের পরিচালক লিউ ছিং বিন মনে করেন, চীনের উন্মুক্তকরণের গভীরতা বাড়ছে। বোঝা যায় যে, চীন নিজেকে বহির্বিশ্বের জন্য উন্মুক্ত করার গতি বাড়িয়েছে। তিনি বলেন,

"নেতিবাচক তালিকা পদ্ধতি এবং সর্বশেষ প্রকাশিত নেতিবাচক তালিকা থেকে দেখা যায় যে, আমরা ক্রমবর্ধমান হারে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাথে সংযুক্ত হচ্ছি। একই সাথে, এটি প্রমাণ করে যে, আমরা আরও খোলামেলা হচ্ছি, আমাদের উন্মুক্তরণের প্রক্রিয়া বেগবান হচ্ছে। বিশেষ করে, ৫জি যোগাযোগ ক্ষেত্রে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ৫জি যোগাযোগের ক্ষেত্রটি ক্রমশ বিস্তৃত হচ্ছে। এ খাতে উন্মুক্ততার বিচারে চীন বিশ্বের সবার চেয়ে এগিয়ে আছে বলা যায়।"

বৈদেশিক বিনিয়োগ অনুমোদনের নেতিবাচক তালিকার এন্ট্রিসংখ্যা আরও কমে গেছে; চীনে বাইরের বিশ্বের সেবাশিল্পের সম্প্রসারণের আরও সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। পরিবহন ও অভ্যন্তরীণ শিপিংয়ের ক্ষেত্রে চীনা এজেন্টের নিয়ন্ত্রণক্ষমতার বাধ্যবাধকতা দূর করা হয়েছে। ৫ লাখেরও বেশি জনসংখ্যার শহরের গ্যাস ও তাপ পাইপলাইন নেটওয়ার্ক খাতে বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে চীনা পক্ষের নিয়ন্ত্রণের বাধ্যবাধকতাও আর নেই। চলচ্চিত্র ও পারফর্মেন্স আর্টের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। টেলিযোগাযোগ খাতেও স্টোরেজ ও ফরওয়ার্ডিং এবং কল সেন্টারের মতো সেবার ক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগের পথে বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে।

লিউ মনে করেন, সাংস্কৃতিক উন্মুক্তকরণ চীনের নিজের সংস্কৃতির ওপর আস্থার প্রতীক। তিনি বলেন,

"উন্মুক্তকরণের কারণে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়বে এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়লে শিল্পের আরও স্বাস্থ্যকর ও সমৃদ্ধ উন্নয়ন ঘটবে। সাংস্কৃতিক উন্মুক্তকরণ চীনের নিজের সংস্কৃতির ওপর নিজের আস্থার প্রতীক।"

চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের গবেষণা প্রতিষ্ঠানের আন্তর্জাতিক বাজার গবেষণালয়ের উপপরিচালক পাই মিং মনে করেন, নেতিবাচক তালিকা ভবিষ্যতে আরও ছোট হবে; চীন তার নিজের আত্মবিশ্বাসের বহিঃপ্রকাশ ঘটাতেই থাকবে। বৈশ্বিক অর্থনৈতিক শাসনব্যবস্থায় চীনের কথা বলার অধিকারও এতে বাড়বে। ভবিষ্যতে চাপিয়ে-দেওয়া-বাণিজ্যযুদ্ধ মোকাবিলায় চীনের আত্মবিশ্বাসও বাড়বে। (জিনিয়া/আলিম/মুক্তা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040