Web bengali.cri.cn   
'প্রতিশ্রুতি'
  2019-06-22 19:40:15  cri


বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি আপনাদেরকে কন্ঠশিল্পী ইন স্যিয়াং চিয়ে'র কন্ঠে একটি গান শোনাবো। প্রথমে ইন স্যিয়াং চিয়ে'র পরিচয় তুলে ধরছি। তিনি ১৯৬৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বেইজিংয়ের ফাংশান এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কন্ঠশিল্পী, টিভি হোস্ট ও অভিনেতা। ১৯৯০ সালে তিনি টিভি অনুষ্ঠানের রেকর্ডিংয়ের কাজে অংশগ্রহণ শুরু করেন। তিনি অনেক অনুষ্ঠানে পরিবেশনা ও অনুষ্ঠানের হোস্টের কাজ করেছেন। ১৯৯৩ সালে তিনি নিজের একটি গান প্রকাশ করার পর সারা চীনে বিখ্যাত হয়ে ওঠেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'বোন, আপনি সাহস নিয়ে এগিয়ে যান' শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি একটি চলচ্চিত্রের থিম সং। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইন স্যিয়াং চিয়ে'র কন্ঠে একটি গান। এখন কন্ঠশিল্পী ইন চেংয়ের কন্ঠে একটি গান শোনাবো। তিনি ১৯৮৬ সালের ৩০ ডিসেম্বরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন অভিনেতা। ২০১১ সালে তিনি নাটকে অভিনয় শুরু করেন। ২০১৩ সালে তিনি টিভি সিরিজে অভিনয়ের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে বিনোদনজগতে প্রবেশ করেন। ২০১৪ সালে তিনি হলিউডের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০১৫ সালে তিনি প্রথম প্রধান অভিনেতা হিসেবে টিভি সিরিজে অভিনয় করেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'বাতাস বইতে থাকে' শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি চীনের হংকংয়ের বিখ্যাত কন্ঠশিল্পী চাং গুও রংয়ের কন্ঠের গান। ইন চেং পুনরায় গানটি গেয়েছেন। আশা করি, আপনারা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইন চেংয়ের কন্ঠে একটি গান। পিওনি ফুল হলো চীনের জাতীয় ফুল। পিওনি ফুল চীনে সম্পদের প্রতীক বলে পরিচিত। এখন আমি আপনাদেরকে শোনাবো 'পিওনি ফুলের গান' শিরোনামের গান। গানটি গেয়েছেন ইউ খুই চি। তিনি আসলে বেইজিং অপেরার কন্ঠশিল্পী। তিনি ১৯৬১ সালের ১৫ ডিসেম্বর লিয়াওনিং প্রদেশের শেনইয়াং শহরের একটি বেইজিং অপেরা পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হলেন হুই জাতির মানুষ। তিনি জাতীয় প্রথম পর্যায়ের অভিনেতা এবং নিয়মিত রাষ্ট্রীয় পরিষদের বিশেষ ভাতা পান। তিনি হলেন চীনা নাট্যকার সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান। চলুন, আমরা একসঙ্গে তাঁর কন্ঠে 'পিওনি ফুলের গান' শীর্ষক গান শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইউ খুই চি'র কন্ঠে 'পিওনি ফূলের গান' শীর্ষক গান। এখন চীনের তাইওয়ানের কন্ঠশিল্পী ইউ ছেং ছিংয়ের কন্ঠে গান শোনাবো। তিনি ১৯৬১ সালের ২৮ জুলাই চীনের তাইওয়ানের তাইপেই শহরের দাথং এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কন্ঠশিল্পী, সংগীতজ্ঞ, টিভি হোস্ট ও অভিনেতা। ১৯৮৬ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ১৯৮৯ সালে তিনি 'আমি একবারে অনেক ভালবাসি' শীর্ষক গান দিয়ে সারা চীনে বিখ্যাত্হয়ে ওঠেন। ১৯৯০ সালে তিনি 'দ্বাদশ শ্রেষ্ঠ দশটি চীনা সংগীত'-এর শ্রেষ্ঠ নতুন কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'বসন্তের কান্না' শীর্ষক গান শোনাবো। আশা করি, আপনারা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন কন্ঠশিল্পী ইউ ছেং ছিংয়ের কন্ঠে একটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে মালয়েশিয়ায় চীনা প্রবাসী কন্ঠশিল্পী গুয়াং লিয়াংয়ের কন্ঠে 'প্রতিশ্রুতি' নামের গান শোনাবো। আগের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে গুয়াং লিয়াংয়ের পরিচয় দিয়েছি। গানটি ২০০৬ সালে রিলিজ হয়। গানটি সে-বছর গ্লোবল চীনা সংগীত নামতালিকায় শ্রেষ্ঠ ২০টি সংগীতের একটি হিসেবে পুরস্কার লাভ করে এবং ২০০৭ সালে '২৯তম দশটি শ্রেষ্ঠ চীনা সংগীত স্বর্ণপদক' লাভ করে। চলুন, আমরা গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন কন্ঠশিল্পী গুয়াং লিয়াংয়ের কন্ঠে একটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে 'অর্ধচন্দ্রাকার' শীর্ষক গান শোনাবো। গেয়েছেন কন্ঠশিল্পী ছেন খুন। তিনি ১৯৭৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি ছং ছিং শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৫ সালে তিনি প্রাচ্য নাচ ও গান গ্রুপের কন্ঠশিল্পী হিসেবে কাজ শুরু করেন। ১৯৯৮ সালে তিনি শ্রেষ্ঠ ফলাফল নিয়ে বেইজিং চলচ্চিত্র একাডেমিতে ভর্তি হন। ১৯৯৯ সালে তিনি প্রথমে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০০০ সালে তিনি টিভি সিরিজে অভিনয় করার পর সারা চীনে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। চলুন, আমরা একসঙ্গে তাঁর কন্ঠে 'অর্ধচন্দ্রাকার' শীর্ষক গান শুনবো।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়। আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম/সুবর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040