Web bengali.cri.cn   
'পথে'
  2019-06-17 16:28:34  cri


বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি আপনাদেরকে চীনের হংকংয়ের বিখ্যাত কন্ঠশিল্পী চাং স্যুয়ে ইয়ৌ (জ্যাকি চেউং)-এর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। জ্যাকি চেউং ১৯৬১ সালের ১০ জুলাই হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৮৪ সালে তিনি হংকংয়ের একটি সংগীত প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে সংগীতজগতে প্রবেশ করেন। ১৯৮৫ সালে তিনি নিজের প্রথম অ্যালবাম 'স্মাইল' প্রকাশ করেন। ১৯৯৩ সালে তিনি 'কিস গুডবাই' নামের অ্যালবাম দিয়ে তাইওয়ানে অ্যালবাম বিক্রির রেকর্ড ভেঙ্গে দেন। প্রথমে শোনাবো তাঁর কন্ঠে 'পথে' নামের গান। গানটি ২০০০ সালে রিলিজ হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন জ্যাকি চেউং'য়ের কন্ঠে 'পথে' নামের গান। ১৯৯৮ সালে তিনি তাইওয়ানের 'স্বর্ণ সংগীত' শ্রেষ্ঠ গায়কের পুরস্কার লাভ করেন। গায়ক ছাড়া তিনি একজন অভিনেতাও। ভালো অভিনয়ের কারণে তিনি অনেক চলচ্চিত্র পুরস্কারও লাভ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'নিউইয়র্কের গাড়িচালক বেইজিংয়ের স্বপ্ন চালায়' নামের গান। গানটি ১৯৯৭ সালে রিলিজ হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন জ্যাকি চেউং'য়ের কন্ঠে 'নিউইয়র্কের গাড়িচালক বেইজিংয়ের স্বপ্ন চালায়' নামের গান। ২০০১ সালে তিনি ২৩তম চীনা সংগীত পুরস্কার 'গোল্ডন নীডল অ্যাওয়ার্ডজ' লাভ করেন। ২০০৪ সালে তিনি নিজের প্রযোজিত অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০১০ সালের ৩০ ডিসেম্বর থেকে ২০১১ সালের ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত তিনি ওয়ার্ল্ড ট্যুর কনসার্ট আয়োজন করেন। ১২ মাসে তার কনসার্টে দর্শকসংখ্যা গিনিস রেকর্ড ভেঙ্গে দেয়। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'আমার পথে তুমি আছো' নামের গান শোনাবো। গানটি ১৯৯৩ সালে রিলিজ হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন জ্যাকি চেউং'য়ের কন্ঠে 'আমার পথে তুমি আছো' নামের গান। ২০১৩ সালে তিনি ৩৫তম চীনা স্বর্ণ সংগীত ৩৫তম বার্ষিকী পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৬ সালে তিনি 'একটি ক্লাসিক ট্যুর' (A CLASSIC TOUR) শীর্ষক ওয়ার্ল্ড ট্যুর কনসার্ট আয়োজন করেন। ১৯৮৬ সালে তিনি প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৮৯ সালে তিনি অষ্টম হংকং ফিল্ম পুরস্কারের শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯০ সালে তিনি ২৭তম তাইওয়ান গোল্ডন হর্স অ্যাওয়ার্ডজের শ্রেষ্ঠ সম-অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে 'শরতেএর স্বাদ' নামের গান শোনাবো। গানটি ১৯৮৯ সালে রিলিজ হয়। চলুন, আমরা গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন জ্যাকি চেউং'য়ের কন্ঠে 'শরতের স্বাদ' শীর্ষক গান। এখন তাঁর কন্ঠে একটি ক্যান্টনিজ গান শোনাবো। গানটির শিরোনাম 'ভালোবাসা শাশ্বত'। আসলে গানটির শিরোনামের কথা যেন আমাদের জীবনের কথা। আর ভালোবাসাসম্পর্কিত গানও যেন আমাদের আজীবন পছন্দের গান। 'ভালবাসা শাশ্বত' গানের কথা মোটামুটি এমন: 'শুরু হয়, কিন্তু শেষ নেই। শত শত কষ্ট ভোগ করতে পারি। কখনো চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়নি। এ অশেষ ভালবাসা আমি তোমাকে দেবো। এ জীবন ও পরবর্তী জীবনে আমি অশেষ ভালবাসা তোমাকে দেবো। চোখ বন্ধ করে অন্ধকারে তোমার চেহারা দেখি। আমার হৃদয়ের হ্রদে তোমার ভালোবাসা অশেষ। তোমার সঙ্গে অশেষ শাশ্বতে থাকবো। তোমার সঙ্গে আজীবন থাকবো। ভালোবাসার মৃত্যু নেই। আমরা একসঙ্গে সুখ-দুঃখে সময় কাটিয়েছি। আমি থাকলে তুমিও থাকবে। হাজার বছর পরও আমি তোমাকে ত্যাগ করবো না। আসলে তুমি আমাকে ত্যাগ করোনি, কারণ তুমি সবসময় আমার হৃদয়ের হ্রদে'।

আচ্ছা, বন্ধুরা এখন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন স্যুয়ে ইয়ৌ (জ্যাকি চেউং)-এর কন্ঠে কয়েকটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে চীনের হংকংয়ের আরেকজন বিখ্যাত কন্ঠশিল্পীর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি হলেন লু গুয়ান ইয়ান। তাঁর আসল নাম লু গুও ফু। তিনি ১৯৫০ সালের ১৯ জুলাই হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হংকংয়ের বিখ্যাত সরকার, অভিনেতা, কন্ঠশিল্পী ও পরিবেশকর্মী। তিনি ছোটবেলায় যুক্তরাষ্ট্রে গমন করেন। ১৯৭৭ সালে হংকংয়ে ফিরে এসে বিনোদনজগতে প্রবেশ করেন। তিনি হংকংয়ের বেশকিছু সংগীত ও চলচ্চিত্রের পুরস্কার লাভ করেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'আজীবনের ভালবাসা' নামের গান শোনাবো। গানটি একটি চলচ্চিত্রের থিম সং। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়। আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম/সুবর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040