Web bengali.cri.cn   
শে জাতি (She)
  2019-06-12 13:45:57  cri

শে জাতির লোকসংখ্যা প্রায় ৭.১ লাখ। চীনের ফুচিয়ান, চেচিয়াং, চিয়াংসি, কুয়াং তুং, কুই চৌ, আনহুই ও হু নান—এই সাতটি প্রদেশে এদের বাস। এর মধ্যে ৯০ শতাংশের বেশি শে জাতির মানুষ ফুচিয়ান ও চেচিয়াংয়ের পাহাড়ি অঞ্চলে বাস করে। এ দুটি প্রদেশের শে জাতির মানুষের সংখ্যা গোটা জাতির মোট জনসংখ্যার যথাক্রমে ৫২.৭ শতাংশ ও ২৪ শতাংশ।

শে জাতিঅধ্যুষিত এলাকা দক্ষিণ-পূর্ব চীনের পাহাড়ি অঞ্চল এবং সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৫০০ থেকে ১৫০০ মিটার উঁচু। এখানকার ৯০ শতাংশ পাহাড়ের উচ্চতা এক হাজার মিটারের নীচে। সারা বছরের গড় তাপমাত্রা ১৪ থেকে ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বৃষ্টিপাত প্রচুর। শে জাতিঅধ্যুষিত এলাকার চা বিশ্ববিখ্যাত। যেমন, চেচিয়াং প্রদেশের হুই মিং চা, কুয়াং তুং প্রদেশের উ লং চা, ফু চিয়ান প্রদেশের ফু আন চা, উ ই চা ইত্যাদি।

শে জাতি নিজস্ব ভাষা আছে। হান জাতির 'হাক্কা' নামের এক আঞ্চলিক ভাষার কাছাকাছি শে জাতির ভাষা। তবে কুয়াং তুং প্রদেশের কয়েক জায়গায় বাসকারী শে জাতির মানুষ যে-ভাষা ব্যবহার করে, তা ইয়াও জাতির ভাষার কাছাকাছি। শে নিজস্ব লিখিত ভাষা ছিল না। তারা যেখানে বাস করে সেখানে হান জাতির আঞ্চলিক ভাষা বলে।

শে জাতির মানুষ নিজেদের ডাকে সান হা, সান তা। শে ভাষায় হা ও তা মানে অতিথি। সান হা মানে পাহাড়ে বসবাসকারী অতিথি। শে পুরাতন একটি নাম। ৭০০ বছর আগে জাতির নাম হিসেবে এটি ব্যবহৃত হতে শুরু করে।

শে জাতির মধ্যে বিশেষ একটি সামাজিক সংগঠন ব্যবস্থা আছে, যাকে ডাকা হয় ছি থাং। ফাং নামের ছোট একটি গোষ্ঠিও আছে। যাদের পরিবারিক নাম একই, সাধারণত তারা একই ছি থাংয়ের মানুষ। ছি থাংয়ের একজন প্রধান নির্বাচিত হন। বয়স্ক ও সর্বোচ্চ মর্যাদার প্রবীণ প্রধান হতে পারেন। তিনি জাতির মধ্যে বিভিন্ন বিরোধের মীমাংসা করেন এবং জাতির পাবলিক ইস্যুগুলো ব্যবস্থাপনা করেন। ছি থাংয়ের ধর্মীয় জমি আছে এবং এ জমির আয় দেবতাদের পূজায় ব্যয় হয়। প্রতিবছর দু'বার বড় পূজা অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

ছি থাংয়ের চেয়ে ছোট একটি গোষ্ঠিকে বলা হয় ফাং। আত্মীয়স্বজন নিয়ে গঠিত হয় 'ফাং'।

শে জাতির পরিবার পিতৃতান্ত্রিক। তবে পরিবারে নারীর মর্যাদা উচ্চ। তারা পুরুষের মতো সম্পত্তির উত্তরাধিকার পেয়ে থাকেন। যদি মেয়ে পরিবারের একমাত্র সন্তান হয়, তাহলে তার স্বামী তার পরিবারে এসে বাস করতে পারেন এবং তাদের সন্তান মার পরিবারিক নাম অনুসরণ করে।

শে জাতির নারীর বিশেষ একটি ড্রেস আছে, যাকে বলা হয় 'বড় ড্রেস'। বিয়ের সময় এবং মারা যাবার পর 'বড় ড্রেস' পরতে হয়। বিয়ের ড্রেস লাল রঙের এবং শেষকৃত্যানুষ্ঠানের ড্রেস কালো রঙের।

বিয়ে অনুষ্ঠান ও শেষকৃত্যানুষ্ঠানে নারী 'রাজকুমারী মুকুট' নামের একটি অলঙ্কার পরেন।

শে জাতির পুরুষরা বিয়ে ও পুজার অনুষ্ঠানে যথাক্রমে গাঢ় নীল ও লাল রঙের লম্বা শার্ট পরেন।

শে জাতির উত্সবের অধিকাংশ হান জাতির মতোই। যেমন, বসন্ত উত্সব, মধ্য-শরতৎ উত্সব ইত্যাদি। শে জাতির নিজস্ব উত্সবের মধ্যে রয়েছে আত্মীয়দের সাথে সাক্ষাৎ উত্সব, উ ফান উত্সব, ও তা চেন উত্সব ইত্যাদি।

শে জাতির মানুষ চীনের বিভিন্ন প্রদেশে বাস করে বলে, পরিবার ও আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে প্রতিবছর নির্দিষ্ট একদিন মিলিত হবার প্রথা চালু হয়। তারা চান্দ্র পঞ্জিকার দ্বিতীয় মাসের দ্বিতীয় দিন আত্মীয়দের সাথে সাক্ষাৎ উত্সব হিসেবে নির্ধারণ করে।

চান্দ্রপঞ্জিকার তৃতীয় মাসের তৃতীয় দিনকে বলা হয় উ ফান উত্সব। ভাত দিয়ে পূর্বপুরুষদোএ পূজা করা এদিনের এক নিয়ম।

প্রতিবছরের শেষ মাসের ১৫ বা ২৪ তারিখে তা চেন উত্সব। এদিন বাড়িঘর সার্বিকভাবে পরিষ্কার করার সময়।

তা ছাড়া, প্রতিবছরের দ্বিতীয় মাসের ১৫ তারিখ, সপ্তম মাসের ১৫ তারিখ, অষ্টম মাসের ১৫ তারিখ তাদের পুর্বপুরুষ পূজা দিবস। এর থেকে বোঝা যায়, শে জাতি পূর্বপুরুষদের পূজার ওপর বেশ গুরুত্ব দেয়। (শিশির/আলিম/রুবি)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040