Web bengali.cri.cn   
বার্লিনে "প্রাচুর্য জমির" অনন্য সাংস্কৃতিক বন্ধন অনুভব
  2019-06-04 14:56:28  cri

চীনের সিছুয়ান সবসময় "প্রচুর পরিমাণে স্বর্গীয় জমির" খ্যাতি উপভোগ করেছে। সম্প্রতি চীনের সিছুয়ানে জার্মান সাংস্কৃতিক পর্যটন প্রচার সম্মেলন জার্মানির বার্লিনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জার্মানিতে চীনের রাষ্ট্রদূত উ খেন, ব্যবসা অফিসের মিনিস্টার ল্যাংকের কাউন্সিলর ওয়াং উয়েই তুং, সাংস্কৃতিক বিভাগের মিনিস্টার ল্যাংকের কাউন্সিলার ছেন চিয়েন ইয়াং, জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক নীতিবিষয়ক রাষ্ট্রীয় সচিব মিশেল মুন্তিফেরিং এবং জার্মানির উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়ায় ফেডারেল, ইউরোপীয় ও আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদকসহ প্রায় দু'শ চীনা ও জার্মান ব্যক্তি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

পর্যটন প্রচার সম্মেলনে সিছুয়ান পর্যটন সংস্কৃতির ফটো প্রদর্শনী, প্রচারমূলক ভিডিও, সিছুয়ান সূচিকর্ম এবং অন্যান্য হস্তশিল্প এবং সিছুয়ান চা-শো আয়োজন করা হয়। অতিথিরা স্থানীয় প্রাকৃতিক দৃশ্যাবলী, ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক হেরিটেজ এবং লোকপ্রথা সম্পর্কে আরও জানতে পারেন। সিছুয়ান প্রদেশের শিল্পীরা ঐতিহ্যবাহী লোকনাচের পারফরম্যান্স এবং সিছুয়ান অপেরা 'মুখ বদল' নিয়ে আসেন। যা "প্রাচুর্যের জমির" অনন্য সাংস্কৃতিক চরিত্রকে আরও সুন্দর করে প্রদর্শন করেছিল।

২০১৭ সালে চীন-জার্মান উচ্চ পর্যায়ের সাংস্কৃতিক বিনিময় ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার পর থেকে, দুই দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় ও পর্যটন সহযোগিতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

জার্মান পর্যটন বাজার চীন এশিয়ান পর্যটকদের বৃহত্তম উৎস। ১০৬ মিলিয়ন চীনা পর্যটক গত বছর জার্মানি গিয়েছিলেন। একই সঙ্গে জার্মানি ও ইইউ দেশগুলোর মধ্যে চীন ভ্রমণে যাওয়া পর্যটকের সংখ্যা ছিল সবচেয়ে বেশি। গত বছর চীন ভ্রমণকারী জার্মান নাগরিকের সংখ্যা ৬.৪ লাখে পৌঁছায়।

জার্মানিতে চীনের রাষ্ট্রদূত উ খেন তার ভাষণে বলেন, একটি বৃহৎ জনসংখ্যা এবং একটি প্রধান পর্যটন প্রদেশ হিসাবে, সিছুয়ান চীন-জার্মানি সাংস্কৃতিক বিনিময় এবং পর্যটন সহযোগিতায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ৫ বছর আগে, জার্মান চ্যান্সেলার অ্যাঙ্গেলা মার্কেল চীন সফরকালে সিছুয়ান প্রদেশে 'কুং পাও চিকেন' রান্নার অভিজ্ঞতা এখনও মানুষের মনে রয়েছে। দু'বছর আগে বার্লিন চিড়িয়াখানায় বড় পান্ডা 'মেংমেং' ও 'চিয়াও ছিং' যায়। তারাও চীনের সিছুয়ান প্রদেশ থেকে গিয়েছে। রাষ্ট্রদূত উ বলেন, সিছুয়ান উচ্চ পর্যায়ের পারস্পরিক সফর এবং চীন ও জার্মান পর্যটন সহযোগিতায় একটি জনপ্রিয় প্রদেশ হয়ে উঠেছে। এর কারণ হলো, বিশ্বমুখী উন্মুক্তকরণের উপর জোর দেয় এ অঞ্চল।

তিনি বলেন,

"ঐতিহ্যগতভাবে, চীনের উন্মুক্তকরণে সিছুয়ান সর্বদা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। দু'হাজারের বছরেরও আগে, সিছুয়ান প্রদেশের রাজধানী ছেংদু শহর থেকে শুরু হয় দক্ষিণ সিল্ক রোড। সেসময় সিছুয়ানের কাপড় ও বাঁশের পণ্য ভারতে রপ্তানি করা হতো। আজ, সিছুয়ান "এক অঞ্চল, এক পথ" নির্মাণে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করছে। ছেংদুতে তৈরি ইউরোপের ফাস্ট রেল সিছুয়ান এবং জার্মানির নিউইয়র্কবার্গসহ ২৫টি বিদেশি শহরকে সংযুক্ত করেছে। ২০১৩ সাল থেকে ইউরোপ ফাস্ট রেলটি চীন ও ইউরোপের মধ্যে ব্যস্ততম রুট হয়ে ওঠে।

জার্মানিতে একটি প্রবাদ রয়েছে: 'পাহাড় ও পর্বতগুলি মিলিত হয় না, কিন্তু মানুষকে একে অপরের সঙ্গে দেখা করতে হবে।' আজ সিছুয়ান প্রাদেশিক সরকার সাংস্কৃতিক পর্যটন প্রচার সম্মেলনের মাধ্যমে জার্মানদের সিছুয়ান চুম্বনের অভিজ্ঞতা দিতে আমরা খুব ভালো একটি সহযোগিতা প্ল্যাটফর্ম স্থাপন করেছে। আমি বিশ্বাস করি, এই অনুষ্ঠানটি সিছুয়ান প্রদেশ- এমনকি সমগ্র চীনা সংস্কৃতি বোঝার ক্ষেত্রে জার্মান জনগণের জন্য আরও সহায়ক হবে এবং উভয় দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় ও পর্যটন সহযোগিতা উন্নত করবে।"

পর্যটন প্রচার সম্মেলনে একই সময়, সিছুয়ান প্রদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে জার্মান প্রকল্প সহযোগিতা নিয়ে সিরিজ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক নীতি-বিষয়ক সচিব বলেন, ৪৭ বছর আগে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পর থেকে চীন-জার্মান সম্পর্ক সুষ্ঠু রয়েছে। এটি চীন-ইইউ সম্পর্কের মধ্যে শক্তিশালী রাজনৈতিক পারস্পরিক বিশ্বাস, গভীরতম অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সহযোগিতা এবং সর্বাধিক সাংস্কৃতিক বিনিময়ের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে পরিণত হয়েছে।

তিনি বলেন,

"স্থানীয় সহযোগিতা চীন ও জার্মানির মধ্যে দূরত্ব কমাতে পারে-কোম্পানি, ছাত্রছাত্রী, শিল্পী, কর্মকর্তা এবং জীবনের সব প্রান্ত থেকে অন্য ব্যক্তিদের বিনিময় ধারণা, একে অপরের কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণ এবং বোঝার বিষয় উন্নত করবে। আমাদের সমাজের মতো, স্থানীয় সহযোগিতা সমৃদ্ধ ও প্রাণবন্ত এবং এটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কারণ মানুষের মধ্যে বাহ্যিক সহযোগিতা ব্যবস্থা গড়ে ওঠে। এটি বর্তমান বিশ্বে জাতীয় পর্যায়ে পারস্পরিক বিশ্বাস শক্তিশালী করার ভিত্তি।"

জার্মানির উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়ায় ফেডারেল, ইউরোপীয় ও আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদক ডাক্তার মার্ক স্পিচ বলেন, সিছুয়ান প্রদেশ এবং জার্মানির উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়া ৩১ বছর আগে বন্ধুত্বপূর্ণ প্রদেশ-স্টেট সম্পর্ক স্থাপন করেছিল, তখন থেকে উভয় পক্ষের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের বিনিময় আরও ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠে। অর্থনীতি, বাণিজ্য, কৃষি, পরিবেশগত সুরক্ষা এবং কর্মীদের প্রশিক্ষণের ক্ষেত্রে সহযোগিতা ফলপ্রসূ সাফল্য অর্জন করেছে এবং মানুষের মধ্যে বন্ধুত্ব ক্রমান্বয়ে গভীর হয়েছে। ডাক্তার মার্ক স্পিচ বলেন,

"সিছুয়ান প্রদেশ চীনের 'পশ্চিমা উন্নয়ন কৌশল' হৃদয়ে ধারণ করেছে। 'এক অঞ্চল, এক পথ' নির্মাণের গুরুত্বপূর্ণ একটি কেন্দ্র এটি। উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়া ইউরোপের কেন্দ্রে অবস্থিত। চীন-ইউরোপ ট্রেন লাইনের মাধ্যমে, উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়ার ডুইসবার্গটি দক্ষিণ-পশ্চিম চীনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সংযুক্ত হয়েছে। এ সময়, উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়াও ইউরোপের চীনা বিনিয়োগের জন্য পছন্দসই একটি গন্তব্য এবং এখানে ১১০০টিরও বেশি চীনা কোম্পানি সহযোগিতা শুরু করেছে। ভবিষ্যতে, উত্তর রাইন-ওয়েস্টফালিয়া বিনিয়োগের পরিবেশ আরও উন্নত হবে এবং আন্তরিকভাবে চীন, বিশেষ করে সিছুয়ান প্রদেশের বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগে স্বাগত জানায়। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, বিভিন্ন ক্ষেত্রে উভয় পক্ষের সহযোগিতার গভীরতা বাড়ানোর প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।"

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040