Web bengali.cri.cn   
প্রযুক্তির দোহাই দিয়ে চীনকে চাপিয়ে রাখার ইচ্ছা পূরণ হবে না: সিআরআই সম্পাদকীয়
  2019-05-22 18:49:11  cri
মে ২২: হুয়াওয়েই কোম্পানির ওপর রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি চীনের শেনচেন প্রদেশের ডিজেই ইনোভেশনস কোম্পানির উত্পাদিত ড্রোনে 'তথ্য ফাঁসের ঝুঁকি' থাকার অভিযোগ তুলেছে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে চীনের ভিডিও যন্ত্রপাতি উত্পাদনকারী হাইকভিশন কোম্পানিকে কালো-তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার কথাও রয়েছে। এর আগে চীনের সিআরআরসি নিউ ইয়র্কের নতুন সাবওয়ে ডিজাইন প্রতিযোগিতায় জিতে যাওয়ায় দেশটির 'নিরাপত্তা ঝুঁকি বাড়বে' বলে কয়েকজন মার্কিন রাজনীতিবিদ মিথ্যা অভিযোগও তুলেছিলো। চীন আন্তর্জাতিক বেতার-সিআরআইয়ের সম্পাদকীয়তে এসব কথা বলা হয়।

এসব ঘটনা থেকে দেখা গেছে, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, সামরিক ও অর্থনৈতিক দিক থেকে বিশ্বের প্রথম সারিতে থাকার পরও যুক্তরাষ্ট্রের কোন কোন রাজনীতিবিদ অন্য দেশের অগ্রগতি সহ্য পারে না। চীনের হুয়াওয়েইয়ের ৫জি সংক্রান্ত পেটেন্ট বিশ্বের প্রথম স্থানে আছে, ডিজেইয়ের তৈরি ড্রোন বিশ্বের বেসামরিক ড্রোন বাজারের ৭০ শতাংশ দখল করেছে, সিআরআরসি বিশ্বের বৃহত্তম মানুষবাহী রেলগাড়ি উত্পাদনকারী এবং হাইকভিশনের ভিডিও যন্ত্রপাতি বিশ্বের ১৫০টি দেশ ও অঞ্চলে ব্যবহৃত হচ্ছে।

মার্কিন রাজনীতিবীদরা ন্যায় প্রতিষ্ঠা ও অর্থনৈতিক নিয়ম প্রতিষ্ঠা না করে নীতি বিসর্জন দিয়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে চীনা কোম্পানির বিরুদ্ধে প্রযুক্তিগত অভিযোগ দিয়ে চাপিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। এ অবস্থা বিশ্ব অর্থনীতি তথা মানবজাতির প্রযুক্তিগত অগ্রগতি ও সাংস্কৃতিক সাফল্যের ক্ষেত্রে গুরুতর ক্ষতিকর।

বিখ্যাত মার্কিন অর্থনীতিবিদ জেফ্রি সাক্স খোলাখুলি বলেছিলেন, চীনের একমাত্র দোষ হচ্ছে ১৪০ কোটি জনসংখ্যার বড় দেশ। এটি ৫ কোটি মানুষের দক্ষিণ কোরিয়া হলে বিশাল সফলতার গল্প হতো। কিন্তু ঝড়বৃষ্টির মধ্যে ক্রমবর্ধমান চীনা কোম্পানিগুলো এসব চাপকে উন্নয়নের চালিকাশক্তিতে পরিবর্তন করবে। এগুলো হবে বুলিংয়ের জবাবে চীনের পাল্টা আক্রমণ।

(স্বর্ণা/তৌহিদ/মুক্তা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040