Web bengali.cri.cn   
চেং ই চিয়ান
  2019-03-20 19:01:26  cri

চেং ই চিয়ান, তার ইংরেজি নাম ইকিন চেং। ১৯৬৭ সালের ৪ অক্টোবর চেং ই চিয়ান চীনের হংকং বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চলে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হলেন হংকং-এর বিখ্যাত অভিনেতা এবং পপ সঙ্গীতের কন্ঠশিল্পী।

চেং ই চিয়ান হংকং-এর খুব সাধারণ এক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পরিবারের অবস্থা ততটা ভালো নয়। তার বাবা একটি পোশাক কারখানার কর্মী, তার মা একজন গৃহিনী। চেং ই চিয়ানের একজন বড় ভাই এবং একজন ছোট বোন আছে। তাদের সম্পর্ক খুব ঘনিষ্ঠ এবং ভালো। যদিও হাতে বেশি টাকা নেই, কিন্তু পুরো পরিবার আনন্দের সঙ্গে জীবনযাপন কাটায়।

১৯৮৪ সালে চেং ই চিয়ান মাধ্যমিক স্কুলে লেখাপড়ার সময় রাস্তায় একটি বিজ্ঞাপন কোম্পানির কর্মী তার সুন্দর চেহারা দেখে তাকে বিজ্ঞাপনে অংশ নেয়ার সুযোগ দেন। এরপর চেং ই চিয়ান বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনের প্রধান অভিনেতা হিসেবে অভিনয় করেন।

১৯৮৬ সালে চেং ই চিয়ান হংকং-এর টেলিভিশন ব্রডকাস্ট লিমিটেড অর্থাত্ টিভিবি'র নতুন কন্ঠশিল্পীর প্রতিযোগিতায় অংশ নেন এবং প্রথম এক শ' জনের তালিকায় স্থান পান। পরে তিনি কুংফু শিল্পীর ক্লাসে ভর্তি হন। তবে চেং ই চিয়ানের চরিত্র খুব লাজুক এবং বেশি কথা বলতে পছন্দ করেন না, তিন মাস পর পরীক্ষায় ভালো ফলাফল না পাওয়ায় চেং ই চিয়ানকে টিভিবি আর সুযোগ দেয় না।

টিভিবিতে একজন শিল্পী হিসেবে সুযোগ না পাওয়ায় চেং ই চিয়ান পরে একটি কোম্পানিতে খুব সাধারণ একটি চাকরি খুঁজে পান। কয়েক মাস পর এই চাকরি তার কাছে খুব বিরক্তিকর মনে হয়, এবং তিনি আবার টেলিভিশনে যোগ দেয়ার সুযোগ খুঁজতে শুরু করেন। ঠিক এই সময় টিভিবি'র নতুন সুযোগ উন্মুক্ত হয়। এই বার চেং ই চিয়ান আগের অভিজ্ঞতা থেকে নিজের উন্নয়ন করেন, অবশেষে তিনি সফলভাবে টিভিবিতে যোগ দেন।

১৯৯১ সালে চেং ই চিয়ান বিএমজি সঙ্গীত কোম্পানিতে যোগ দেন এবং 'ক্যাশ পপ সঙ্গীত প্রতিযোগিতায়' অংশ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন। এর মাধ্যমে চেং ই চিয়ানের সঙ্গীত ব্রত আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়।

১৯৯২ সালে চেং ই চিয়ানের প্রথম ব্যক্তিগত অ্যালবাম 'আর কাঁদবে না' প্রকাশিত হয়। এই অ্যালবামের কারণে চেং ই চিয়ান সেই বছর পুরস্কারও লাভ করেন।

১৯৯৩ সালে চেং ই চিয়ানের দ্বিতীয় অ্যালবাম 'সাহারা' প্রকাশিত হয়।

২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে চেং ই চিয়ান 'সনি মিউজিক' কোম্পানিতে যোগ দেন। একই বছরের ডিসেম্বর মাসে তার নতুন অ্যালবাম 'ফ্রেন্ডস ফর লাইফ' প্রকাশিত হয়। অ্যালবাম প্রকাশের পর তিনি হংকং-এ 'চেং ই চিয়ানের মৈত্রীর সময়' নামে ব্যক্তিগত সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজন করেন। তা সবার সমর্থন এবং প্রশংসা অর্জন করে।

২০১১ সালে চেং ই চিয়ান আবার হংকং-এ 'বিউটিফুল ডে ২০১১' নামে সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজন করেন। ২০১২ সালে তিনি আবার হংকং, ম্যাকাও, কুয়াং চৌ ও যুক্তরাষ্ট্রে 'লাইট অ্যান্ড শ্যাডো ২০১২' নামে বিশ্বব্যাপী ভ্রাম্যমান সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজন করেন। ২০১৫ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত তিনি পর পর চীনের শাংহাই, নানচিং, হাংচৌ, থিয়ানচিন, উহান, শেনচেন, কুয়াংচৌ ও ফুচৌসহ বিভিন্ন শহরে 'মৈত্রীর যুগ' নামে ভ্রাম্যমান সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজন করেন।

(শুয়েই/টুটুল/সুবর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040