Web bengali.cri.cn   
চাও ছুয়ান
  2019-03-19 18:52:35  cri


চাও ছুয়ান, ১৯৬১ সালের ১৮ জুন চীনের তাইওয়ান প্রদেশের চিয়াই শহরে জন্মগ্রহণ করেন, তিনি হলেন চীনের সঙ্গীত মহলের বিখ্যাত গায়ক এবং সুরকার। ১৯৮৭ সালে চাও ছুয়ান 'রকসঙ্গীত' কোম্পানিতে যোগ দেন এবং আনুষ্ঠানিকভাবে সঙ্গীত মহলে প্রবেশ করেন।

ছোটবেলায় চাও ছুয়ান রেডিওতে গান শুনতে শুরু করেন এবং সুন্দর সুর শুনে তিনি সঙ্গীতের শক্তি উপলব্ধি করেন। হাইস্কুলের সময় তার জীবনের প্রথম গিটার কেনা হয় এবং সেই সময় থেকে তিনি গিটার বাজানো শিখতে শুরু করেন। তারপর বিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর সঙ্গীতের প্রতি তার আগ্রহ আরো বেড়ে যায়। তিনি লেখাপড়া করার পাশাপাশি সহপাঠীর সঙ্গে একটি সঙ্গীত ব্যান্ডও গঠন করেন।

এরপর চাও ছুয়ান সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। দু'বছর পর সেনাবাহিনী ছেড়ে তিনি আবার এক বাণিজ্যিক কোম্পানিতে চাকরি শুরু করেন। ১৯৮২ সালে চাও ছুয়ান ও তার ছোট ভাই চাও চিয়ে এবং কয়েক জন ভালো বন্ধু একসাথে 'রেডক্রস কোরাস দল' গঠন করেন। তাদের এই দল প্রধানত রকসঙ্গীত রচনা করে এবং পরিবেশন করে।

১৯৮৬ সালে চাও ছুয়ানের নেতৃত্বে 'রেডক্রস' কোরাস দল সেই বছর তাইওয়ানের প্রথম জনপ্রিয় কোরাস দল প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়। ১৯৮৭ সালে চাও ছুয়ান ও তার কোরাস দল তাইওয়ানের যুব কেন্দ্রে একটি সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজন করে। তিন ঘন্টা স্থায়ী অনুষ্ঠানে চাও ছুয়ানের আকর্ষণীয় কণ্ঠ সবার মন জয় করে।

১৯৮৮ সালের ১ নভেম্বর চাও ছুয়ানের প্রথম ব্যক্তিগত অ্যালবাম 'আমি কুত্সিত, কিন্তু আমি খুব স্নেহশীল' প্রকাশিত হয়। এর মধ্যে এই অ্যালবামের প্রধান গান 'আমি কুত্সিত, কিন্তু আমি খুব স্নেহশীল' সেই বছর তাইওয়ানের শ্রেষ্ঠ বার্ষিক গানের পুরস্কার এবং শ্রেষ্ঠ গানের এমটিভি'র পুরস্কার জিতে নেয়।

১৯৮৯ সালে চাও ছুয়ান তাইওয়ানের শ্রেষ্ঠ কণ্ঠশিল্পী ছেন শেং ও 'লাল পিপড়া কোরাস দলের' লুও হুং উ'র সঙ্গে তাইওয়ানে 'একান্ত অনুগত বন্ধু' নামে সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজন করেন। একই বছরের ২০ মে, চাও ছুয়ানের নিজের দ্বিতীয় অ্যালবাম 'আমি অবশেষে তোমাকে হারিয়েছি' প্রকাশিত হয়। এতে অন্তর্ভুক্ত 'আমি অবশেষে তোমাকে হারিয়েছি' গানটি চাও ছুয়ানের প্রতিনিধিত্বকারী গানের অন্যতম।

১৯৯০ সালের ৬ জানুয়ারি, তাইওয়ানের প্রথম 'গোল্ডেন মেলোডি অ্যাওয়ার্ডস'-এ চাও ছুয়ানের গান 'আমি খুব কুত্সিত, কিন্তু আমি খুব স্নেহশীল' সেই বছর শ্রেষ্ঠ বার্ষিক গান এবং শ্রেষ্ঠ গানের এমটিভি'র পুরস্কার লাভ করে। এরপর জাপানের এনএইচকে টেলিভিশনের আমন্ত্রণে চাও ছুয়ান জাপানে সঙ্গীতানুষ্ঠানে অংশ নেন।

১৯৯০ সালের ১ অগাস্ট, চাও ছুয়ানের তৃতীয় অ্যালবাম 'আমি ছোট একটি পাখি' প্রকাশিত হয়। এই অ্যালবামের প্রধান গান 'আমি ছোট একটি পাখি'র মাধ্যমে চাও ছুয়ান পুরো চীনে বিখ্যাত হয়ে ওঠেন। চাও ছুয়ান খুব সাধারণ মানুষ থেকে সঙ্গীত মহলের মহা তারকায় পরিণত হন।

(শুয়েই/টুটুল/সুবর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040