Web bengali.cri.cn   
চীনের শিক্ষার উন্নয়নে সিপিপিসিসি'র সদস্যদের গুরুত্বারোপ
  2019-03-18 16:59:52  cri

 


গত সপ্তাহের অনুষ্ঠানে চীনের জাতীয় গণকংগ্রেস (এনপিসি) ও গণরাজনৈতিক পরামর্শ সম্মেলন )সিপিপিসিসি)-র প্রতিনিধি ও সদস্যদের শিক্ষা সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রস্তাব ও পরামর্শ নিয়ে কিছু তথ্য তুলে ধরেছি। আজকের অনুষ্ঠানে চীনের শিক্ষার উন্নয়নে তাঁদের আরো বেশি মতামত তুলে ধরবো।

শিক্ষার অধিকার নিশ্চিতকরণে চীনের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রশাসনিক বিভাগের ২০১৮ সালের নানান ব্যবস্থা

চীনের ফুচিয়ান প্রদেশের ছুয়ানচৌ শহরের নাগরিক ছেন ই হুং সাংবাদিককে জানান, ২০১৮ সালের মার্চ মাসে কিন্ডারগার্টেনের নতুন সেমিস্টারে তিনি বাচ্চার মাসিক খরচ ১৬২০ ইউয়ান প্রদান করেন, তবে কয়েক দিন পর ৩২৪ ইউয়ান ফেরত দেওয়া হয় এবং সেপ্টেম্বর মাসে এ খরচ ১১৩৫ ইউয়ানে নেমে আসে। কেন এ খরচ কমে এসেছে? এ সম্পর্কে স্থানীয় শিক্ষা বিভাগ জানায়, ম্যাডাম ছেনের বাচ্চার কিন্ডারগার্টেন ব্যাপক কল্যাণমূলক বেসরকারি কিন্ডারগার্টেনের অন্যতম। এখানে স্থানীয় সরকার ভর্তুকি বৃদ্ধি করেছে,তাই নাগরিকদের ব্যক্তিগত খরচ কমে এসেছে।

চীনের শানতুং প্রদেশে কিন্ডারগার্টেনে বার্ষিক ভর্তি সংখ্যা ৫ লক্ষাধিক হবে বলে নির্ধারণ করা হয় এবং ২০২০ সালের মধ্যে প্রদেশটিতে প্রি-স্কুলের শিক্ষা গ্রহণের পরিমাণ ৯০ শতাংশ হবে। এছাড়া, ব্যাপক কল্যাণমূলক কিন্ডারগার্টেনে ভর্তির হার ৮০ শতাংশে পৌঁছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্থানীয় সরকার।

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে 'প্রি-স্কুল শিক্ষার গভীর সংস্কার ও সুশৃঙ্খল উন্নয়ন-সম্পর্কিত প্রস্তাব' প্রকাশিত হয়। প্রস্তাবে প্রথমবারের মতো ব্যাপক কল্যাণকর শ্রেষ্ঠ মানের প্রি-স্কুল উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত হয়। এতে ২০২০ সালে সরকারি কিন্ডারগার্টেনের পরিমাণ ৫০ শতাংশের উপরে পৌঁছানো এবং এতে ভর্তির সমস্যা সমাধান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

দরিদ্র এলাকার বাধ্যতামূলক শিক্ষার উন্নয়নে অবকাঠামো নির্মাণসহ ২০টি প্রস্তাব পেশ

চীনের মধ্য ও পশ্চিমাঞ্চলে উচ্চ শিক্ষার দ্রুততর উন্নয়নে নতুন করে ১৪টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেছে চীনের শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ অঞ্চলে গ্রাম ও দরিদ্র এলাকার শিক্ষার্থীদের শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সংখ্যা ১ লাখ ৩৮০০ জনেরও বেশি।

ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়ার অতিরিক্ত চাপ কমাতে হবে

চীনের চেচিয়াং প্রদেশের হাংচৌ শহরের একজন পিতা বলেন, 'আমার বাচ্চা মাত্র প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ে, তবে তার দৃষ্টিশক্তি-ক্ষমতা অনেক কমে গেছে, আরো বড় হবার পর কি হবে তা ভাবতে পারি না।'

এ সম্পর্কে চীনের বাধ্যতামূলক শিক্ষার পর্যবেক্ষণমূলক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, চীনের চতুর্থ শ্রেণী থেকে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত বাচ্চাদের দৃষ্টিক্ষমতা পরীক্ষায় দৃষ্টিক্ষীণতার পরিমাণ ৩৬.৫ ও ৬৫.৩ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। বাচ্চাদের অতিরিক্ত চাপ সম্ভবত দৃষ্টিক্ষীণতার প্রধান কারণ। তা মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং দক্ষ ব্যক্তির প্রশিক্ষণে সহায়ক নয়।

এ সম্পর্কে শিক্ষামন্ত্রী ছেন বাও শেং মনে করেন, বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান নির্দিষ্ট শিক্ষা ব্যবস্থার বাইরে নানান প্রশিক্ষণ দিতে পারবে না। বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা বা প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে ভালো ফলাফল অর্জন করাকে একমাত্র শ্রেষ্ঠ মানদণ্ড হিসেবে নির্ধারণ করা যাবে না। এভাবে ছাত্রছাত্রীদের অতিরিক্ত চাপ কমাতে হবে। তা না হলে পিতামাতা শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানকে অর্থ দেবে ঠিকই কিন্তু স্কুলের সুশৃঙ্খল শিক্ষা গতি নষ্ট হয়ে যাবে। শিক্ষার ব্যবস্থা ও বাচ্চাদের স্বাস্থ্যকর মানসিক অবস্থার সাথে অসঙ্গতি চিন্তা-ধারা জড়িয়ে পড়লে তা পিতামাতার মধ্যে ব্যাপক উদ্বেগ তৈরি করে। এমন ঘটনা ঘটতে দেওয়া যাবেনা।

শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণায় বর্তমানে চীনের ২৭৫৮টি জেলায় বিশেষ সংশোধনী কাজ সম্পন্ন হয়েছে, বিভিন্ন প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের সংস্কারও ৯৮.৯ শতাংশের মতো সম্পন্ন হয়েছে।

দরিদ্র এলাকার শিক্ষার উন্নয়নে চীন সরকারের বিশেষ বরাদ্দ

২০১৮ সালে দরিদ্র এলাকার শিক্ষার উন্নয়নে ৩ বিলিয়ন ইউয়ান সহায়তা দিয়েছে চীন সরকার। সিছুয়ান প্রদেশের লিয়াংশান অঙ্গরাজ্যের ই জাতির অধ্যুষিত এলাকার প্রতিটি গ্রামের বাচ্চা এখন ম্যান্ডারিন বলতে পারে। উন্নত শহরের শিক্ষকদের সাহায্যে স্থানীয় অঞ্চলের বাচ্চারা বিভিন্ন শ্রেষ্ঠ অভ্যাস তৈরি করেছে এবং অঞ্চলটিতে দারিদ্র্যবিমোচনে কার্যকর অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে।

জানা গেছে, ২০১৮ সালে ১০ কোটি দরিদ্র শিক্ষার্থীর সহায়তায় ৬০ বিলিয়ন ইউয়ান রেনমিনপি বরাদ্দ করে চীন সরকার। শিক্ষার মাধ্যমে দারিদ্র্যমুক্তকরণ একটি নতুন ও কার্যকর পদ্ধতিতে পরিণত হয়েছে, যা চীনা সমাজের দ্রুত উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

গ্রামাঞ্চলের বাচ্চাদের প্রি-স্কুল শিক্ষা গ্রহণ নিয়ে সিপিপিসিসি'র ব্যাপক আলোচনা

পরিবার মানুষের জীবনের প্রথম শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান আর পিতামাতা হলেন বাচ্চাদের প্রথম শিক্ষক। গত বছর চীনের শিক্ষা সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং এ সম্পর্কে একটি ভাষণ দেন। এছাড়া, সম্প্রতি চীন সরকারের কর্ম-বিবরণীতে আরো সমান ও গুণগতমানসম্পন্ন শিক্ষার উন্নয়ন এবং গ্রাম ও শহরের বাধ্যতামূলক শিক্ষার যৌথ উন্নয়ন চালু করার কথা উল্লেখ করেন চীনের প্রধানমন্ত্রী লি খ্য ছিয়াং। তাতে বহু পদ্ধতিতে সেমিস্টার শিক্ষা জোরদারের উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। চীনের গ্রামাঞ্চলে শিক্ষার প্রথম ধাপ হিসেবে বাচ্চাদের প্রি-স্কুল শিক্ষার উন্নয়ন সিপিপিসিসি'র ব্যাপক মনোযোগ পায়।

সিপিপিসিসি'র সদস্য, চীনের নর্থ-ওয়েস্ট নর্মাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট লিউ চুং খুই জোর দিয়ে বলেন, গ্রামাঞ্চলের বাচ্চাদের গুণগতমানসম্পন্ন প্রি-স্কুল শিক্ষা গ্রহণ শহরায়ন ও গ্রামের উন্নয়নের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ। এ সম্পর্কে তিনি বলেন,

'আমরা দেখেছি ভালভাবে প্রি-স্কুল পরিচালিত হলে বাচ্চাদের পিতামাতা আরো বেশি অতিরিক্ত সময় পেয়ে অন্যান্য কাজ করতে পারেন, যা গ্রামের উন্নয়ন ও গ্রামকে চাঙ্গা করে তোলার জন্য সহায়ক।'

দেশ উন্নয়ন করতে চাইলে দক্ষ ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। বর্তমানে গ্রামাঞ্চলের বাচ্চাদের পিতামাতাদের বয়স ৩০ থেকে ৪০ বছর। তারা অতীতের তুলনায় এখন বাচ্চাদের শিক্ষার ওপর অনেক বেশি গুরুত্ব দেন। প্রি-স্কুল শিক্ষাদানে সরকারের বরাদ্দ বৃদ্ধির সাথে সাথে বর্তমানে গ্রামাঞ্চলের শিক্ষাদানে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। সিপিপিসিসি'র সদস্য ইয়াং ফেং জি বলেন, অতীতে গ্রামাঞ্চলে কিন্ডারগার্টেনের সংখ্যা ছিলো খুবই কম। তাই বাচ্চাদের কিন্ডারগার্টেনে ভর্তি করা ছিলো অনেক কঠিন একটি ব্যাপার। বর্তমানে বিভিন্ন গ্রামে সরকারি ও বেসরকারি কিন্ডারগার্টেন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ফলে বাচ্চাদের দেখাশোনার ক্ষেত্রে পরিবারের চাপ অনেক কমে গেছে।

সিপিপিসিসি'র সদস্য, চীনের হাইনান নর্মাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-প্রধান কুও চিয়ান ছুন গত এক বছর ৩ বছর বয়সের নিচে বাচ্চাদের প্রাথমিক শিক্ষাদান নিয়ে গবেষণা করেন। তিনি বলেন, ৬ বছরের আগে প্রি-স্কুল শিক্ষা বাধ্যতামূলক শিক্ষা ব্যবস্থায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি, বিশেষ করে ৩ বছরের নিচে বাচ্চাদের শিক্ষা প্রধানত পরিবারের উপর নির্ভর করে হয়ে থাকে এবং গ্রামাঞ্চলে দাদা-দাদীদের যত্ন নেওয়ার দৃশ্য ব্যাপকভাবে দেখা যায়। তাই বাচ্চাদের দেখাশোনার জ্ঞানের অভাব এবং সরকারি নীতি ও অর্থ সহায়তা অভাবের সমস্যা দেখা দেয়।

এ উপলক্ষ্যে 'গ্রামাঞ্চলের বাচ্চাদের প্রি-স্কুলে পারিবারিক শিক্ষার নির্দেশনা ও সমর্থন জোরদার এবং নাগরিকদের গুণাবলী উন্নীত করা' বিষয়ক প্রস্তাব রচনা করেন তিনি। সরকারি নীতি ও অর্থায়নের আহ্বান জানানোর সাথে সাথে নতুন যুগে গ্রামাঞ্চলের পিতামাতাদের প্রশিক্ষণ জোরদার এবং পিতামাতাদের স্কুল চালু করার প্রত্যাশা প্রকাশ করেন তিনি। কুও চিয়ান ছুন বলেন,

'পিতামাতাদের প্রশিক্ষণের বাধ্যতামূলক ব্যবস্থা চালু করতে হবে এবং কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। কমিউনিটির লোকসংখ্যা অনুযায়ী পিতামাতাদের বিশেষ স্কুল চালু করা উচিত এবং সংশ্লিষ্ট স্কুলে শিক্ষক ও অর্থায়ন দেওয়া উচিত। এ সম্পর্কে প্রস্তাব ও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।'

গ্রামাঞ্চলের অনেক পিতামাতা বলেন, তারা বাচ্চাদের শিক্ষাদানের অবস্থা উন্নত করতে চান, তবে সুবিধাজনক ও কার্যকর পদ্ধতিতে সংশ্লিষ্ট জ্ঞান অর্জনে তারা সক্ষম নন। এ সম্পর্কে সদস্য কুও তাঁর পরামর্শ দিয়ে বলেন,

'সরকারের নেতৃত্বে সমাজের বিভিন্ন মহলের যৌথ অংশগ্রহণে বাচ্চাদের সেবা-কেন্দ্র স্থাপন করা প্রয়োজন, যাতে বিভিন্ন পরিবারের চাপ কমানো যায়'।

গ্রামের শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণের ভিত্তি হিসেবে প্রি-স্কুলে কি পড়াশোনা করানো উচিত তা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এ সম্পর্কে নর্থ-ওয়েস্ট নর্মাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট লিউ চুং খুই বলেন,

'গ্রামে প্রি-স্কুল শিক্ষার প্রতিষ্ঠান ও স্কুল সংখ্যা বেশি, তবে সবচেয়ে বড় সমস্যা কিভাবে শিক্ষার মান উন্নীত করা যায়? প্রাথমিক স্কুলের মতো প্রি-স্কুলের বাচ্চাদের পড়াশোনা করানো যাবেনা, বাচ্চাদের বড় হওয়ার নিয়ম অনুযায়ী তাদের স্বাভাবিক উন্নয়ন বাস্তবায়ন করা উচিত।'

সিপিপিসিসি'র সদস্য, হংকং হানরুং পুস্তক ব্যুরোর মহাপরিচালক শি হান জি জোর দিয়ে বলেন, গ্রামে বাচ্চাদের শিক্ষাদানে নৈতিকতার ওপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। তিনি বলেন,

'প্রি-স্কুল পর্যায়ে বাচ্চাদের শিক্ষাদানে নৈতিকতার ওপর বেশি গুরুত্ব দেওয়ার আশা করি, যাতে তারা কৃতজ্ঞতা ও সঠিক মূল্যবোধ পোষণ করতে পারে।'

চীনের শহর ও গ্রামের প্রি-স্কুল শিক্ষাদানের সম্পদ ও ব্যক্তিদের পরিবেশের ভারসাম্যহীনতা সম্পর্কে সিপিপিসিসি'র সদস্যরা তথ্যায়ন প্রযুক্তি ও নিউ মিডিয়ার মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলের স্থগিত অবস্থা উন্নীত করার আশা প্রকাশ করেন। সিপিপিসিসি'র সদস্য চীনের খনিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-প্রধান চিয়াং ইয়াও তুং বলেন, অতীতে 'ইন্টারনেট প্লাস শিক্ষাদান' পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয় ও দরিদ্র জেলার যোগাযোগ এবং একই বিষয়ের ক্লাস ও গ্রামের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ নির্ধারিত হয়, এতে বিভিন্ন পদক্ষেপের কার্যকর সাফল্য অর্জিত হয়। তিনি বলেন,

'বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, অনলাইন শিক্ষা ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে উন্নত প্রযুক্তিতে গ্রামের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া উচিত, যা খুবই কার্যকর পদ্ধতি।'

সিপিপিসিসি'র সদস্য কুও ইউয়ান ইউয়ান জানান, গ্রামাঞ্চলের বাচ্চাদের নিউ মিডিয়াবিষয়ক প্রযুক্তির জ্ঞান অর্জনে মনোযোগ দেওয়া উচিত। তিনি বলেন,

'গ্রামাঞ্চলের বাচ্চারা যাতে শুরুতেই ব্যর্থ না হয়, তার ওপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। দরিদ্র এলাকার বাচ্চাদের যত দ্রুত সম্ভব কম্পিউটারসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম ব্যবহার করতে সহায়তা দিতে হবে। ভবিষ্যতে ইন্টারনেট ও নিউ মিডিয়া প্রযুক্তি সংস্কারের সম্মুখীন হবে, যদি শুরুতে তারা ব্যর্থ হয়, তাহলে তাদের জন্য বড় অসুবিধা তৈরি হবে।'

গ্রামাঞ্চলের প্রি-স্কুল শিক্ষার উন্নয়নে শুধু সরকারের সহায়তা প্রয়োজন তা নয়, বরং সমাজের বিভিন্ন মহলের মনোযোগ, চেতনা ও সুষ্ঠু সাংস্কৃতিক পরিবেশ দরকার। শিক্ষা ভবিষ্যতের প্রত্যাশা, তাই মানুষ ও শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি তৈরিও ছোটবেলা থেকে শুরু করতে হবে। গ্রামাঞ্চলের প্রি-স্কুল শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপকভাবে পরামর্শ সংগ্রহ করার কথা উল্লেখ করেন সদস্য কুও। তিনি বলেন,

'চীনা জনগণের জন্য সরকারের ভূমিকা নাগরিকদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব রয়েছে আমার। জনগণের মতামত ও পরামর্শ শোনা ও সংগ্রহ করা সিপিপিসিসি'র সদস্যদের দায়িত্ব ও কর্তব্য।'

প্রিয় শ্রোতা, সময় দ্রুত চলে যায়। আমাদের আজকের অনুষ্ঠানও এখানেই শেষ করতে হবে। এ অনুষ্ঠান সম্পর্কে কোনো মতামত থাকলে আমাদের চিঠি লিখতে ভুলবেন না। আমাদের যোগাযোগ ঠিকানা ben@cri.com.cn,caoyanhua@cri.com.cn

সময় মতো আমাদের অনুষ্ঠান শুনতে না পারলে বা শুনতে মিস করলে আমাদের ওয়েবসাইটে তা শুনতে পারবেন। ওয়েবসাইটের ঠিকানা: www.bengali.cri.cn

তাহলে এবার বিদায় নিচ্ছি, সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, থাকুন সুন্দর ও আনন্দে। আগামী সপ্তাহের একই দিনে একই সময় আবারো কথা হবে। যাই চিয়ান। (সুবর্ণা/টুটুল/স্বর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040