Web bengali.cri.cn   
'চলতি বছর চীন ৬০০ মিলিয়ন টন শস্য উত্পাদন করবে'(অর্থ-কড়ি; ৫ জানুয়ারি ২০১৯)
  2019-01-05 13:22:05  cri


১. চলতি বছর চীন অন্তত ৬০০ মিলিয়ন টন শস্য উত্পাদনের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে। সম্প্রতি দেশটির কৃষি ও গ্রামবিষয়ক মন্ত্রী হান ছাংফু একটি কর্ম-সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, এ বছর চীনের আবাদি জমির পরিমাণ ১১০ মিলিয়ন হেক্টর ধরে রাখা হবে। দেশের খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিত করা তাঁর মন্ত্রণালয়ের টপ প্রায়োরিটি বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

চীনে ২০১৮ সালে শস্যের বাম্পার ফলন হয়। এ বছর উত্পাদিত হয় ৬৫৭.৯ মিলিয়ন টন শস্য। অবশ্য তা ২০১৭ সালের চেয়ের ০.৬ শতাংশ কম ছিল।

২. আমদানি বৃদ্ধি, আমদানি-প্রক্রিয়া সহজতর করা, ও সরবরাহব্যবস্থার কাঠামোগত সংস্কারের লক্ষ্যে, চীন ৭ শতাধিক আমদানিপণ্যের ওপর শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্ত কার্যকর করেছে গত মঙ্গলবার থেকে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এতে চীন আরও উন্মুক্ত হবে।

এদিকে, ২০১৮ সাল থেকেই চীন ঔষধ, গাড়ি, নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্যের ওপর আমদানি-শুল্ক ৯.৮ শতাংশ থেকে ৭.৫ শতাংশে কমিয়ে আনে। ২০১৮ সালে চীনের আমদানির পরিমাণ ২ লাখ কোটি মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে যায়, যা একটি নতুন রেকর্ড।

৩. চীনের ৩০ হাজারের বেশি সিনিক স্পট ও পর্যটনকেন্দ্র আছে। এগুলোর মধ্যে ২৫৯টি ফাইভ-এ লেভেলের তথা সর্বোচ্চ মানের। সম্প্রতি চীনের সংস্কৃতি ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানায়।

তবে, মন্ত্রণালয় এ-ও জানিয়েছে যে, ২০১৮ সালের প্রথম ১০ মাসে দুই শতাধিক পর্যটনকেন্দ্রকে মানসম্পন্ন নয় বলে চিহ্নিত করা হয়। এসব কেন্দ্রের সেবা ও ব্যবস্থাপনা সন্তোষজনক নয়।

চীনের সর্বোচ্চ মানের পর্যটনকেন্দ্রগুলোর মধ্যে আছে প্রাসাদ যাদুঘর বা নিষিদ্ধ নগর, সামার প্যালেস, হাংচৌয়ের পশ্চিম হ্রদ ইত্যাদি।

৪. চীনের শানতুং প্রদেশে ২০২২ সালের মধ্যে বিদ্যুতচালিত যানবাহনের জন্য এক লাখ চার্জিং স্ট্যাশান নির্মাণ করা হবে। সম্প্রতি স্টেট গ্রিড শানতুং ইলেক্ট্রিক পাওয়ার কোম্পানি এ তথ্য জানায়।

শানতুংয়ে বর্তমানে ১৩০০টি চার্জিং পোল আছে। ১৭টি শহরে এই পোলগুলো ২০১৮ সালের নভেম্বরের মধ্যে স্থাপিত হয়েছে। এর মধ্যে ১৩২টি চার্জিং স্ট্যাশান ও ৫৭৬টি চার্জিং পোল রাজপথের পাশে নির্মাণ করা হয়েছে। শানতুংয়ে বর্তমানে এক লাখ ৪০ হাজার বিদ্যুতচালিত যানবাহন আছে বলেও কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, চীনের ত্রয়োদশ পাঁচসালা পরিকল্পনা (২০১৬-২০২০) অনুসারে, ২০২০ সালের মধ্যে দেশে ৫০ লাখ বিদ্যুতচালিত গাড়ির জন্য দেশব্যাপী চার্জিং নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা হবে।

৫. চীনের ম্যাকাও বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চলের পণ্যরফতানি বেড়েছে। গত বছরের নভেম্বরে ম্যাকাও রফতানি করে ১২.৬৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য, যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১.৮ শতাংশ বেশি।

ম্যাকাওয়ের পরিসংখ্যান ব্যুরো জানায়, পণ্যের আমদানিও বেড়েছে। নভেম্বরে ম্যাকাও পণ্য আমদানি করে ৮.০৬ বিলিয়ন পাতাকা'র (ম্যাকাও মুদ্রা), যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৬.৭ শতাংশ বেশি। এর মানে ২০১৮ সালের নভেম্বরে পণ্যবাণিজ্যে ম্যাকাওয়ের ঘাটতি ছিল ৭.০৪ বিলিয়ন পাতাকা।

৬. দক্ষিণ কোরিয়া গত বছর ৬০৫.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য ও সেবা রফতানি করেছে, যা দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ। সম্প্রতি দেশটির বাণিজ্য, শিল্প ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদন অনুসারে, আগের বছরের চেয়ে ২০১৮ সালে রফতানি বেড়েছে ৫.৫ শতাংশ। ২০১১ সালে দক্ষিণ কোরিয়া প্রথম রফতানির ক্ষেত্রে ৫০০ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করেছিল।

প্রতিবেদন অনুসারে, ২০১৮ সালে দক্ষিণ কোরিয়া আমদানি করেছে ৫৩৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য ও সেবা, যা আগের বছরের চেয়ে ১১.৮ শতাংশ বেশি। এর মানে, ২০১৮ সালে দেশটির বাণিজ্য-উদ্বৃত্ত ছিল ৭০.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

৬. মালয়েশিয়ায় গত নভেম্বরে প্রডিউসার প্রাইস ইনডেক্স (পিপিআই) আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ২.৯ শতাংশ কম ছিল। দেশটির পরিসংখ্যান ব্যুরো জানায়, মূলত কৃষি, মত্স্য ইত্যাদি খাতে উত্পাদন কমে যাওয়ায় সার্বিকভাবে পিপিআই কমেছে।

৭. সদ্যসমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোটের বিজয়কে 'ঐতিহাসিক জয়' অবিহিত করে অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশের বেসরকারি খাতের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। সোমবার বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এফবিসিসিআই বলেছে, বর্তমান সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রাখার পক্ষে এটি এক তাৎপর্যপূর্ণ গণরায়। বিজ্ঞপ্তিতে নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক বলেও আখ্যায়িত করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশে রূপান্তরিত করার লক্ষ্যে ব্যবসা-বান্ধব মহাজোট সরকারকে দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায় বরাবরের মতো পূর্ণ সমর্থন ও সহযোগিতা করবে।

৮. এদিকে বাংলাদেশে টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগের আগামীর উন্নয়ন পরিকল্পনায় জনগণকে নিরবচ্ছিন্ন ও সাশ্রয়ী দামে বিদ্যুৎ দেওয়া অগ্রাধিকার পাবে বলে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানিয়েছেন। মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নতুন বছরের প্রথম কর্মদিবস মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুত খাতে ৪০০০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করা গেলে আশানুরূপ ফল পাওয়া যাবে।

উল্লেখ্য, গত সেপ্টেম্বরে ১১ হাজার ৫৩৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের নতুন রেকর্ড করে বাংলাদেশ। এর আগে গত ১৮ জুলাই ১১ হাজার ৩৮৭ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়েছিল। আওয়ামী লীগ সরকারের দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় ২০২১ সালের মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট, ২০৩০ সালের মধ্যে ৪০ হাজার মেগাওয়াট এবং ২০৪১ সালের মধ্যে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্য ঠিক করা আছে।

৯. স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) পয়লা জানুয়ারি থেকে স্বর্ণের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম বৃদ্ধি পাওয়াকে এর কারণ হিসেবে তুলে ধরেছে বাজুস।

মঙ্গলবার এক বিজ্ঞপ্তিতে বাজুস জানায়, প্রতিভরি স্বর্ণে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৫১৬ টাকা পর্যন্ত বাড়িয়ে নতুন দর নির্ধারণ করা হয়েছে। নবনির্ধারণ মূল্যতালিকা অনুযায়ী, ২২ ও ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণের দাম প্রতি ভরিতে বেড়েছে ১ হাজার ৫১৬ টাকা। আর ২১ ক্যারেট স্বর্ণের দাম প্রতি ভরিতে বেড়েছে ১ হাজার ৪৫৮ টাকা। তবে অপরিবর্তিত রয়েছে সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ ও রূপার দাম।

১০. বিশ্বে বর্তমানে বন্দরকেন্দ্রিক যত প্রকল্প আছে, তার মধ্যে বাংলাদেশের পায়রা গভীর সমুদ্রবন্দর সবচেয়ে ব্যয়বহুল বলে জানা গেছে। দীর্ঘ ৬৫ কিলোমিটার নৌপথে বড় আকারে খননকাজ করে এই সমুদ্রবন্দরে জাহাজ চলাচলের জন্য পথ তৈরি করতে হবে। আবার বন্দর থেকে পণ্য আনা-নেওয়ার নতুন সড়ক ও রেলপথও নির্মাণ করতে হবে। ফলে সম্ভাব্য খরচে এই প্রকল্প ছাড়িয়ে গেছে বিশ্বের সব বন্দরপ্রকল্পকে। ব্যয়বহুল প্রকল্প হওয়ায় গভীর সমুদ্রবন্দর হিসেবে এটির বাস্তবায়নকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন এ খাতের বিশেষজ্ঞরা।

উল্লেখ্য, পায়রা বন্দরের প্রাথমিক উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবে মূল বন্দর নির্মাণে ৮০৭ কোটি এবং বন্দরসহযোগী অবকাঠামো নির্মাণে ৯০৫ কোটি মার্কিন ডলার ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছিল। সব মিলিয়ে ১ হাজার ৮৩৪ কোটি ডলার বা প্রায় ১ লাখ ৫৪ হাজার কোটি টাকা খরচ ধরা হয়েছিল। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে এই প্রকল্প-প্রস্তাবনা তৈরি করা হয়। যদিও এখন পায়রা কর্তৃপক্ষ বলছে, প্রথম পর্যায়ে ভূমি অধিগ্রহণ ও মধ্য মেয়াদে তিনটি টার্মিনাল নির্মাণ বাবদ প্রায় ২৬ হাজার কোটি টাকা খরচ চূড়ান্ত করা হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়ন হলে পায়রা বন্দরে অন্যান্য প্রকল্প হাতে নেওয়া হবে।

(আলিমুল হক)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040