Web bengali.cri.cn   
চীনের সবচেয়ে সুখী শহর ছেং তু
  2018-12-22 15:40:59  cri

২৬ নভেম্বর চীনের কুয়াং চৌতে প্রকাশিত হয় ২০১৮ সালের সবচেয়ে সুখী শহরগুলোর নামের তালিকা। ছেংতু, নিংপো ও হাং চৌসহ চীনের বিভিন্ন শহর নামতালিকায় স্থান পায়। 'ওরিয়েন্টাল আউটলুক উইকলি'-এর উদ্যোগে এ তালিকা প্রকাশিত হয়ে আসছে গত ১২ বছর ধরে। বিগত বারো বছরে ৯৯.৮ কোটি মানুষ তাদের জরিপে অংশগ্রহণ করে।

চলতি বছরের জরিপ কার্যক্রম শুরু হয় মে মাসে। জরিপে অংশগ্রহণ করেন ১ কোটি ২২ লাখ ৫০ হাজার মানুষ। তাঁদের ভোটে নির্বাচিত প্রথম ১০টি সুখী শহর হচ্ছে: ছেং তু, নিংপো, হাংচৌ, সিআন, নাননিং, কুয়াং চৌ, ছাংশা, থাইচৌ, থুং ছুয়ান ও চুহাই।

চলতি বছর চীনের সংস্কার ও উন্মুক্তকরণের নীতি চালুর ৪০তম বার্ষিকী। তালিকায় অন্তর্ভুক্ত শহরগুলো গত ৪০ বছরে অনেক উন্নত হয়েছে।

নিংপো শহর প্রচার বিভাগের প্রধান জানিয়েছেন, শুরু দিকে যেকয়টি শহরকে বিদেশিদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছিল, নিং পো সেগুলোর অন্যতম। বর্তমানে নিংপোর চৌ শান বন্দরে বছরে ১০০০ কোটি টনের বেশি পণ্য বোঝাই ও খালাশ হয়। পণ্যের ওঠানামার দিক দিয়ে বন্দরটি টানা ৯ বছর ধরে বিশ্বের বৃহত্তম বন্দর। চেচিয়াং প্রদেশের প্রথম এবং চীনের অষ্টম শহর হিসেবে নিংপো বৈদেশিক বাণিজ্যে ১০০০ কোটি মার্কিন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যায়। বিশ্বের ২২০টির বেশি দেশ ও অঞ্চলের সঙ্গে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে শহরের বিনিয়োগ ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক। নিং পো শহরের আয়তন চীনা ভূখণ্ডের মাত্র ০.১ শতাংশ; লোক সংখ্যাও তুলনামূলকভাবে কম। তবে দেশের জিডিপিতে এ শহরের অবদান ৬০ ভাগের এক ভাগ এবং মোট আমদানি-রফতানিতে অবদান ২০ ভাগের এক ভাগ। শহরের সবকটি জেলা চীনের প্রথম ১০০টি শক্তিশালী জেলার অন্তর্গত।

জরিপ অনুযায়ী, চীনে অর্থনীতিআতে সবচেয়ে উন্নত এলাকা ইয়াংসি নদীর বদ্বীপ অঞ্চল এবং চুচিয়াং নদীর বদ্বীপ অঞ্চলের নাগরিকরা নিজেদের সুখী মনে করে। তালিকার ২০টি শহরের মধ্যে অধিকাংশই এ দুটি অঞ্চলের। পাশাপাশি, গেল তিন বছরের উপাত্ত নিয়ে তুলনামূলক আলোচনা করলে দেখা যাবে, ছেং তু তিন বার তালিকার প্রথম ৫টি শহরের মধ্যে ছিল। অথচ বেইজিং, শাংহাই, হাংচৌ, সেনচেন দুবার করে প্রথম পাঁটি শহরের মধ্যে ছিল। বলা বাহুল্য, এই শহরগুলোর সবকটি অর্থনীতিতে উন্নত। তার মানে, বেশি অর্থ বেশি সুখের পূর্বশর্ত নয়। জরিপে শিক্ষা, চিকিত্সা, আয়, পরিবেশ, পাবলিক সেবা, নিরাপত্তা ও ভবিষ্যতের প্রত্যাশাসহ ১৬টি সূচক নিয়ে শহরগুলোকে মূল্যায়ন করা হয়। জরিপের ফলাফল থেকে আমরা দেখি, সুখের ব্যাপারে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলে যায়। যেমন, আর্থিক সামর্থ্য ও জীবনমান উন্নত হবার সাথে সাথে পরিষ্কার পানি, বিশুদ্ধ বায়ু, নিরাপদ খাবার ও সুন্দর পরিবেশের চাহিদাও বাড়তে থাকে। প্রাকৃতিক পরিবেশ মানুষের সুখবোধে আরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে চীনে।

গেল তিন বছরের জরিপ অনুযায়ী, চীনে সবচেয়ে ভাল ৫টি প্রাকৃতিক পরিবেশসমৃদ্ধ শহরের মধ্যে সি আন তিন বার অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এবং ছেং তু, হাং চৌ ও নান নিংও নির্বাচিত হয়েছে দুবার করে।

জরিপ অনুযায়ী, সাধারণত শিক্ষিত মানুষের জীবনমান ভাল ও উন্নয়নের সুযোগ বেশি এবং তারা তুলনামূলকভাবে বেশি সুখীও বটে।

যে শহরে পাবলিক সেবার মান ভাল সে শহরের মানুষও সুখী হয়। সরকার কী ধরনের সেবা দিতে পারে, কীভাবে দিতে পারে, তা মানুষের জীবনযাপনের ওপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলে।

নাগরিকের সুখবোধ থেকে আমরা দেখেছি সুন্দর জীবনের প্রতি সবার প্রত্যাশা। এবার জরিপ চীনের সামাজিক তথ্যমাধ্যমের একটি হট ইস্যুতে পরিণত হয়। জরিপের ফল জানতে ১২ ঘন্টায় সংশ্লিষ্ট লিঙ্কে ক্লিক হয় ১০ কোটি। দেশের ৩০টি প্রধান তথ্যমাধ্যম জরিপের ফল প্রকাশের অনুষ্ঠান কাভার করে এবং ৩১ হাজার মানুষ সংশ্লিষ্ট খবরে নিজ নিজ মন্তব্য লেখেনা।

জরিপ অংশগ্রহণকারীদের ৮০ শতাংশ মনে করেন, আয় তাদের সুখবোধের গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। তবে আয় বেশি হলেই সুখবোধ বেশি হবে, তা নয়। যাদের বার্ষিক আয় ৮০-১৫০ হাজার ইউয়ান, তাদের সুখবোধ সবচেয়ে বেশি। এক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে আছেন বার্ষিক আয় ২৫০ হাজার ইউয়ানের মানুষ। এর অর্থ মধ্যম আয়ের মানুষ সবচেয়ে সুখী।

এবার জরিপে চে চিয়াং প্রদেশের বেশ কয়েকটি শহর সুখী শহরের তালিকায় স্থান পায়। নিং পো, থাই চৌসহ নানান শহর সংস্কার ও উন্মুক্তকরণ থেকে উপকৃত হয়েছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে হাং চৌ শাংহাইকে পেছনে ফেলে বিখ্যাত পর্যটন শহর ও চীনা টিজিটাল অর্থনীতিতে শীর্ষ শহরে পরিণত হয়। শহরের দ্রুত উন্নয়নও নাগরিকদের সুখবোধের উত্স বলে জরিপে উঠে এসেছে। (শিশির/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040