Web bengali.cri.cn   
'সিহু হ্রদের বসন্তকাল'
  2018-12-03 10:07:08  cri



বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে আমি প্রথমে আপনাদেরকে চীনের তাইওয়ানের একজন নারী কন্ঠশিল্পী'র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি হলেন ফেং ফেই ফেই। তিনি ১৯৫৩ সালের ২০ অগাষ্ট জন্মগ্রহণ করেন এবং ২০১২ সালের ৩ জানুয়ারি মারা যান। তিনি তাইওয়ানের থাওইয়ান জেলার দাসি থানায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একজন কন্ঠশিল্পী, অভিনেত্রী ও উপস্থাপিকা। তিনি ১৯৭১ সালে প্রথম নিজের সংগীত প্রকাশ করে আনুষ্ঠানিকভাবে বিনোদনজগতে প্রবেশ করেন। প্রথমে শোনাবো তাঁর কন্ঠে 'সিহু হ্রদের বসন্তকাল' নামের গান। গানটি ২০০৩ সালে রিলিজ হয়। সিহু হ্রদ চীনের চেচিয়াং প্রদেশের হাংচৌ শহরে অবস্থিত। সিহু হ্রদ বিশ্ববিখ্যাত। আশা করি, আপনারা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ফেং ফেই ফেই'র কন্ঠে 'সিহু হ্রদের বসন্তকাল' নামের গান। ১৯৭২ সালে তিনি প্রথম টিভি সিরিজে অভিনয় করেন। ১৯৭৩ সালে তিনি টিভিতে উপস্থাপিকার কাজ শুরু করেন। ১৯৭৭ সালে তিনি 'আমি একটি মেঘ' নামের গান গেয়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। ১৯৭৯ সাল থেকে তিনি টানা নয় বছর তাইওয়ানের সবচেয়ে জনপ্রিয় নারী কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮১ সালে তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। ১৯৮২ ও ১৯৮৩ সালে তিনি টানা দুই বছর গোল্ডেন বেল শ্রেষ্ঠ নারী কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮৬ সালে তিনি অ্যালবাম প্রকাশ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'স্বপ্নদর্শী' নামের গান শোনাবো। গানটি ১৯৯১ সালে রিলিজ হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন নারী কন্ঠশিল্পী ফেং ফেই ফেই'র কন্ঠে কয়েকটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে সামনে কন্ঠশিল্পী লি মিংয়ের পরিচয় তুলে ধরবো। তিনি ১৯৬৬ সালের ১১ ডিসেম্বর বেইজিংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কন্ঠশিল্পী, অভিনেতা, চলচ্চিত্র-সম্পাদক, শিল্পপতি ও দাতব্যকর্মী। ১৯৮৫ সালে তিনি সংগীত প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন এবং আনুষ্ঠানিকভাবে বিনোদনজগতে প্রবেশ করেন। ১৯৮৯ সালে তিনি টিভি সিরিজের থি সং গেয়েছেন। ১৯৯০ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। প্রথম আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'শরীরের গান শুনুন' শোনাবো। গানটি তাঁর প্রথম অ্যালবামে অন্তর্ভুক্ত হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন লি মিংয়ের কন্ঠে 'শরীরের গান শুনুন'। ১৯৯৩ সালে তিনি চীনের হংকংয়ের সংগীত প্রতিযোগিতার সবচেয়ে জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে তাঁর সংগীত গোল্ডেন মেলডির পুরস্কার লাভ করে। ১৯৯৫ সালে তিনি পুনরায় সবচেয়ে জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৬ সাল থেকে তিনি টানা তিন বছর গোল্ডেন মেলডির স্বর্ণপদক লাভ করেন। ১৯৯৯ সালে তিনি হংকংয়ের সংগীত পুরস্কার গ্রহণ করতে অস্বীকার করেন। ১৯৮৭ সালে তিনি প্রথম টিভি সিরিজে অভিনয় করেন। ১৯৮৯ সাল থেকে লি মিং চীনের তাইওয়ানে কাজ শুরু করেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'এ রাতে তুমি আসবে কি না' নামের গান শোনাবো। গানটি ১৯৯১ সালে রিলিজ হয়। তখন সারা চীনে খুবই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে গানটি। চলুন, আমরা একসঙ্গে শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন কন্ঠশিল্পী লি মিংয়ের কন্ঠে কয়েকটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে নারী কন্ঠশিল্পী লি লিং ইউ'র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি ১৯৬৩ সালের ৯ এপ্রিল শাংহাইয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কন্ঠশিল্পী ও অভিনেতা। তিনি ১৯৮৫ সালে প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ১৯৮৭ সালে টিভি সিরিজে অভিনয় করেন। একই বছরে তাঁর প্রকাশিত অ্যালবাম ৮০ লাখ কপি বিক্রি হয়। ১৯৮৭ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত তিনি ৮৮টি অ্যালবাম প্রকাশ করেন। প্রথমে শোনাবো তাঁর কন্ঠে 'চা পিকিং সংগীত' নামের গান। এটি চীনের চেচিংয়াং প্রদেশের লোকসংগীত। আশা করি, বন্ধুরা লি লিং ইউ'র কন্ঠে গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন লি লিং ইউ'র কন্ঠে 'চা পিকিং সংগীত' নামের গান। ১৯৯২ সালে তিনি চীনা সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের গোল্ডেন অ্যালবাম পুরস্কার লাভ করেন। ২০১২ সালে তিনি বেইজিংয়ে প্রথম কনসার্ট আয়োজন করেন। ২০১৩ সালের ৫ জানুয়ারি শাংহাইয়ে কনসার্ট আয়োজন করেন। তিনি শাংহাই'র একটি সাধারণ শ্রমিকপরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাঁর আরো দু'জন বড় ভাই আছে। তিনি ছোটবেলায় শাংহাই'র অঞ্চলিক অপেরা শিখেছিলেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'সিন্ধু মেয়ে' নামের গান শোনাবো। গানটি চীনের গত শতাব্দীর আশির দশকে একটি টিভি সিরিজের সংগীত। গানে ভারতীয় সংগীতের বৈশিষ্ট্য দেখা যায়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়। আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারও আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040