Web bengali.cri.cn   
সরকারি প্রতিষ্ঠানের 'সম্পদ-দায় সীমাবদ্ধতা লক্ষ্য' নির্ধারণ করবে চীন
  2018-09-14 14:40:32  cri
সেপ্টেম্বর ১৪: সম্প্রতি চীনের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিসি) কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও রাষ্ট্রীয় পরিষদ কার্যালয় 'সরকারি প্রতিষ্ঠানের সম্পদ-দায় সীমাবদ্ধতার নির্দেশিকা প্রস্তাব' প্রকাশ করেছে। প্রস্তাবে বলা হয়, ২০২০ সালের শেষ দিকে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর গড় সম্পদ-দায় অনুপাত ২০১৭ সালের শেষ দিকের চেয়ে ২ শতাংশ কমানো হবে। সরকারি ঋণ এবং কর্পোরেট ঋণের সীমা ব্যাখ্যা, স্টক সম্পদ পুনর্বিন্যাস, অধিগ্রহণ ও একত্রীকরণ এবং দেউলিয়ার সংশ্লিষ্ট ব্যবস্থা উন্নত করা হবে; যাতে উচ্চ-ঋণগ্রস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর দায়বদ্ধতা যথাশীঘ্রই কমে আসে।

আজকের অনুষ্ঠানে আমি এ প্রস্তাব নিয়ে কিছু কথা বলবো।

আর্থিক ঝুঁকি প্রতিরোধ করা ও অর্থনীতির উচ্চ মানের উন্নয়ন বাস্তবায়নের জন্য সাম্প্রতিক বছরগুলোতে চীন ধারাবাহিক ব্যবস্থা নিয়ে সরকারি প্রতিষ্ঠানের লিভারেজ কমিয়েছে। ২০১৮ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত সারা চীনে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর গড় সম্পদ-দায়ের অনুপাত ছিল ৬৪.৯৩ শতাংশ। তা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ১ শতাংশ কম। সরকারি প্রতিষ্ঠানের সম্পদ-দায়ের অনুপাত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চেয়ে আরো বেশি।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, কাঠামোগত উন্নয়নের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পদ-দায় সীমাবদ্ধতা জোরদার করা। রাষ্ট্রীয় পরিষদের প্রাদেশিক মালিকানাধীন সম্পদ কমিটি গবেষণালয়ের সহযোগী গবেষক চৌ লি শা সাংবাদিকদের বলেন,

'অর্থনীতি নতুন স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে প্রবেশ করার পর কোনো কোনো সংশ্লিষ্ট অতিরিক্ত ক্ষমতা, যেমন লোহা ও ইস্পাত, কয়লা এবং অলৌহঘটিত ধাতু সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রভাব কমিয়েছে এবং লিভারেজ চাপ বাড়িয়েছে। তাই উচ্চ-ঋণগ্রস্ত প্রতিষ্ঠানের উচিত্, ভবিষ্যতে সিস্টেমেটিক আর্থিক ঝুঁকি নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে সমন্বয় করা। অন্যদিকে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সংস্কারকাজে সরকারি প্রতিষ্ঠানের স্টক সম্পদ ব্যবহারের দক্ষতা পুনরুজ্জীবিত করার প্রয়োজন দেখা দিয়েছে।'

এ পরিস্থিতিতে নতুন প্রকাশিত প্রস্তাবটিতে বলা হয়, সম্পদ ও দায় সীমানা নির্ধারণ লক্ষ্যমাত্রার ভিত্তিতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সরকারি প্রতিষ্ঠানকে শ্রেণীবদ্ধ ব্যবস্থাপনা এবং গতিশীল সমন্বয় করা হবে। সুশৃঙ্খলা এবং বাইরের সীমাবদ্ধতার মাধ্যমে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পদ-দায় সীমার স্থায়ী ব্যবস্থা গড়ে তোলা হবে।

যেমন, সীমা নির্দেশক ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্পদ-দায় অনুপাত শিল্পের গতিশীলতা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হবে। এ সম্পর্কে চৌ লি শা বলেন,

'ঋণ-ঝুঁকি শ্রেণীবদ্ধ ব্যবস্থাপনা বাস্তবায়নের কারণ হলো, উচ্চ-ঋণ অনুপাত ও কঠিন চাপ কমার সঙ্গে প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিশেষ নিয়ন্ত্রণ ও তত্ত্বাবধান জোরদার করা। ভবিষ্যত সংস্কার প্রক্রিয়ায় লিভারেজ হ্রাস এবং ঋণ কমানোর কাজ বিশেষ পরীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত হবে। শ্রেণীবদ্ধ ব্যবস্থাপনায় আরো কঠোর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নেয়া হবে।'

পরিচালনাগত উদ্দেশ্যে প্রস্তাবটিতে বলা হয়, ২০২০ সালের শেষ দিকে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর গড় সম্পদ-দায়ের অনুপাত ২০১৭ সালের শেষ দিকের চেয়ে কমপক্ষে ২ শতাংশ কমানো হবে; যাতে একই ক্ষেত্র ও একই আকারের প্রতিষ্ঠানগুলো গড়-মানে উত্তীর্ণ হয়। জাতীয় উন্নয়ন ও সংস্কার কমিশনের অর্থনৈতিক গবেষণালয়ের ডক্টর লিয়াং চি বিন বলেন, 'প্রস্তাবে উত্থাপিত ধারাবাহিক ব্যবস্থার ইতিবাচক, কঠোর, সমন্বয় ও নিরাপদ বৈশিষ্ট্য রয়েছে।'

প্রস্তাবটিতে আরো বলা হয়, সরকারি প্রতিষ্ঠান হলো, সম্পদ-দায় সীমা বাস্তবায়নের প্রথম ক্ষেত্র। যদি সরকারি প্রতিষ্ঠান প্রস্তাব বাস্তবায়ন না করে, তাহলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ তার জবাবদিহিতা জোরদার করবে।

(ছাই)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040