Web bengali.cri.cn   
'মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ'
  2018-08-26 15:25:02  cri



বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি আপনাদেরকে তিব্বতি জাতির নারী কণ্ঠশিল্পী আলান দাওয়া দোল্মার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি ১৯৮৭ সালের ২৫ জুলাই সিছুয়ানের তিব্বতি জাতির অঞ্চল খাংদিংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ৮ বছর বয়স থেকে সংগীত শিক্ষা শুরু করেন। তিনি সিছুয়ান সংগীত বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতেন। প্রথমে শোনাবো তাঁর কন্ঠে 'মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ' নামের গান। গানটি ২০০৮ সালে রিলিজ হয়। গানটি একটি চলচ্চিত্রের থিম সং। চলুন, আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন আলান'র কন্ঠে 'মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ' শীর্ষক গান। ২০০৩ সালে তিনি পিপলস লিবারেশন আর্মি আর্টস কলেজে ভর্তি হন। ২০০৪ সালে তিনি একটি লোকসংগীত গ্রুপে যোগ দেন। ২০০৫ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০০৬ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি জাপানি সংগীত কোম্পানি তার সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে। তিনি হলেন জাপানি সংগীতজগতে প্রবেশকারী প্রথম তিব্বতি মেয়ে। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'সবচেয়ে রোমান্টিক বিষয়' শীর্ষক গান শোনাবো। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন আলান'র কন্ঠে 'সবচেয়ে রোমান্টিক বিষয়' নামের গান। ২০০৬ সালের সেপ্টেম্বরে তিনি শাংহাই এশিয়া সংগীত উত্সবে দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন। ২০১১ সালে তিনি জাপানি ভাষায় গানের অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০১৬ সালে তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। এখন আমি আলানের কণ্ঠে 'সুন্দরী উপত্যকা' নামের গান শোনাবো। গানটিতে বলা হয়েছে: পাহাড় ও নদীর রহস্য পার হয়ে প্রকৃতির দৃশ্য আবিষ্কার করি/ পাহাড়, সমভূমি ও মেঘ দেখেছি/ আকাশ থেকে ঝরে পড়ে বৃষ্টি/ ফুলের সঙ্গে বয়ে চলে মাছ/ এতো সুন্দর কোনো কথা হতে পারে কী!/ এতো সুপরিচিত কণ্ঠ! এত শান্তির পরিবেশ!/ কে ভেবেছিলো আমাদের পুনর্মিলনের কথা!/ অতীতের সে পরিচয় হল পুনর্মিলনের সূত্র!/যদি পথ আরও দীর্ঘ হয়, তাহলে তুমি কি আমার জন্য অপেক্ষা করবে?/ যদি তুমি আমার মন দেখতে পারো, তাহলে নিজেকেও খুঁজে পাবে/ আমি তোমার সঙ্গে ঘুমন্ত স্মৃতি নিয়ে জেগে উঠতে চাই/ আমার ভালোবাসা এখন তোমার জন্য অপেক্ষা করছে/ আমার ভালবাসা তোমার সঙ্গে আজীবন থাকবে।

আচ্ছা, বন্ধুরা, এখন চলুন গানটি শোনা যাক।

বন্ধুরা, শুনছিলেন আলান'র কন্ঠে কয়েকটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে চিয়াং দা ওয়েই'র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি ১৯৪৭ সালের ২২ জানুয়ারি থিয়ানচিন শহরের হ্যপিং এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হলেন চীনের বিখ্যাত টেনোর কন্ঠশিল্পী ও প্রথম পর্যায়ের অভিনেতা। তিনি নিয়মিত রাষ্ট্রীয় পরিষদের বিশেষ ভাতা পেয়ে থাকেন। তিনি হলেন চীনা কন্ঠশিল্প সমিতির সদস্য। এখন আমি আপনাদরেকে তাঁর কন্ঠে 'উত্তর রাষ্ট্রের বসন্তকাল' নামের গান শোনাবো। গানের সুর জাপানি লোকসংগীত থেকে নেওয়া হয়েছে। চলুন, আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন চিয়াং দা ওয়েই'র কন্ঠে 'উত্তর রাষ্ট্রের বসন্তকাল' নামের গান। ১৯৭৮ সালে তিনি নিজের লেখা গান গেয়েছেন। ১৯৮০ সালে তিনি সারা চীনে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। ১৯৮৯ সালে তিনি প্রথম চীনের স্বর্ণ রেকর্ড পুরস্কার লাভ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'রাস্তার কথা' নামের গান শোনাবো। গানটি ১৯৮৬ সালে রিলিজ হয়। গানটি তখনকার একটি খুবই জনপ্রিয় টিভি সিরিজের থিম সং।

বন্ধুরা, শুনছিলেন চিয়াং দা ওয়েই'র কন্ঠে 'রাস্তার কথা' নামের গান। ২০০৯ সালে 'চীন-আফ্রিকা সহযোগিতা উন্নয়ন ফোরাম'-এ তিনি 'চীন-আফ্রিকা শিল্পী'-র মর্যাদা লাভ করেন। সে-বছর তিনি চীনের পিপলস নেটওয়ার্কের নির্বাচিত সবচেয়ে জনপ্রিয় ৬০ জন শিল্পীর নাম-তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হন। তাঁর রচনা দু'টি গান চীনের প্রচার মন্ত্রণালয়ের শ্রেষ্ঠ ১০০টি দেশাত্ববোধক গানের নাম-তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'পিওনি গান' শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি এখনও জনপ্রিয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়। আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারও আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040