Web bengali.cri.cn   
ইয়াং লান-এর গল্প
  2018-07-13 13:57:48  cri

ইয়াং লান। টিভি হোস্ট, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, শিল্পপতি এবং মানবপ্রেমিক। তিনি সান মিডিয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং সান কালচার ফান্ডের চেয়ারম্যান। ১৯৯০ সাল থেকে চীনের কেন্দ্রীয় টেলিভিশনের "চেংতা ভ্যারাইটি শো"-এর উপস্থাপিকা হিসেবে কাজ শুরু করেন। পরে হংকংয়ের ফিনিক্স টিভিতে যোগ দেন। এখানে তিনি "ইয়াং লান ওয়ান অন ওয়ান" শীর্ষক অনুষ্ঠানের হোস্ট হিসেবে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বিশ্বের ৭ শতাধিক ব্যক্তির সাক্ষাত নিয়েছেন। বিশ্বের চীনা দর্শকদের কাছে তিনি সুপরিচিত।

১৯৯৯ সালে তিনি শেয়ার বাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি "সান সংস্কৃতি চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন কোম্পানি" বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০০০ সালে তিনি প্রথম ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক থিমভিত্তিক স্যাটেলাইট চ্যানেল 'সান টিভি' প্রতিষ্ঠা করেন। চীনা সংস্কৃতির উন্নয়ন এবং মিডিয়া খাতে আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ও সহযোগিতা জোরদারের ক্ষেত্রে সান টিভি অসাধারণ সাফল্য অর্জন করে। ফোর্বস ম্যাগাজিন একে বিশ্বের সেরা ছোট শিল্পপতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত করে। ২০০৫ সালে ইয়াং লান 'হার ভিলেজ' শীর্ষক টিভি টক শো উপস্থাপনা করেন। এ ছাড়া, তিনি দু'বার অলিম্পিকের প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

পাশাপাশি তিনি ২০১০ শাংহাই আন্তর্জাতিক মেলার দূত হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ইউনিসেফের প্রথম চীনা দূত, আন্তর্জাতিক বিশেষ অলিম্পিকের বৈশ্বিক দূত ও চীন চ্যারিটি ফেডারেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৩ সালের মে মাসে নিউ ইয়র্কের পালে মিডিয়া সেন্টার তাকে 'অগ্রণী নারী' পুরস্কার প্রদান করে। তিনিই হলেন প্রথম অ-মার্কিন নাগরিক, যিনি এ-পুরস্কার লাভ করেন। পাশাপাশি ফোর্বস তাকে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ১০০ নারীর অন্যতম হিসেবে নির্বাচন করে।

ইয়াং লান তার নিজের সান মিডিয়া গ্রুপের বর্তমান ব্যবসাটি তিন ভাগে ভাগ করেছেন: প্রকৃত টিভি অনুষ্ঠান, চলচ্চিত্র, ও আইপি টেলিভিশন। টিভি অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ওপর নির্মিত একটি ধারাবাহিক তথ্যচিত্রও রয়েছে। ইয়াং লান তাঁর নিজের কাজে সন্তুষ্ট। তিনি বলেন, 'কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ওপর আমি এই প্রথম তথ্যচিত্র নির্মাণ করি।' চলতি বছর তথ্যচিত্রটি যুক্তরাষ্ট্রের চীনা ভাষা চ্যানেল এবং সিঙ্গাপুরের জাতীয় টেলিভিশনে প্রচার শুরু করেছে। ফলে তিনি এ ধরনের আরও তথ্যচিত্র নির্মাণে আগ্রহী হয়েছেন।

১৩ বছর আগে "হার ভিলেজ" টক শো শুরু হয়েছিল। ইয়াং লান বলেন, 'গত পাঁচ বছরে আমরা টক শো-এর মান উন্নত করার চেষ্টা করে আসছি।' সাধারণ নারীদের মধ্যে এই টক শো-টি ব্যাপক জনপ্রিয়।

নিজেকে একজন সফল ব্যবসা পরিচালক ভাবতে পছন্দ করেন ইয়াং লান। তিনি বলেন, 'বর্তমান যুগে মিডিয়ার উন্নয়ন বিশ্বে মহান পরিবর্তন ডেকে এনেছে। এক্ষেত্রে আমাদের অব্যাহত চিন্তা-গবেষণা থাকা দরকার।'

ইয়াং লান তাঁর বর্তমান কাজ খুব উপভোগ করেন। তিনি বলেন, "আমার এখনও কৌতূহল আছে, আবিষ্কারের ক্ষমতা আছে, চেষ্টা করার ইচ্ছা আছে। পাশাপাশি ক্রমাগত সৃজনশীল কাজ করার ক্ষমতাও আছে।" তিনি মনে করেন, এমন ইতিবাচক অভ্যন্তরীণ শক্তিগুলোই মানুষকে প্রতিদিন নতুন কিছু করতে উদ্ধুদ্ধ করে। তিনি বলেন, "কেউ কেউ হয়তো ভাবেন যে, আমি খুব কঠিন ব্যস্ততার মধ্যে সময় কাটাই। কিন্তু এটা এক ধরনের মূল্যবান অভিজ্ঞতা। এই কঠিন ও ব্যস্ত সময়ে আমি জীবনকে অনুভব করি। এ-অভিজ্ঞতা ও অনুভূতি আমি কোনোকিছুর বিনিময়ে হাত ছাড়া করতে চাই না।"

ইয়াং লান সাংবাদিক ও মিডিয়া-কর্মীদের সবচেয়ে বেশী মূল্য দিয়ে থাকেন। তার একাধিক পরিচয় আছে। কিন্তু এখনও তিনি যোগাযোগের ব্যাপারে আগ্রহী, সাংবাদিকতার প্রতি দুর্বল। তিনি বলেন, 'মনে সন্দেহ জাগলে তা দূর করার চেষ্টা করি আমি। অজানা জিনিস আমাকে এখনও আকর্ষণ করে। নির্ভয়ে সবকিছু শিখতে চাই। আমার মনে হয়, আমি নিজের সাংবাদিক ও মিডিয়া-কর্মীর পরিচয়কে বেশি মূল্যবান বলে গণ্য করি। আমার পরের পরিচিতিগুলো সাংবাদিক পরিচয়ের ওপর ভিত্তি করেই গড়ে উঠেছে। আমার মনে হয়, এ-ব্যাপারে আমার সহজাত প্রতিভা আছে। এসব করতে গিয়ে আমি কষ্ট যেমন পেয়েছি, তেমনি পেয়েছি অফুরন্ত আনন্দ। আমি আমার কাজের জন্য গর্ব করি। "

(প্রেমা/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040