Web bengali.cri.cn   
চীনের ৪০ বছরের সংস্কার ও উন্মুক্তকরণ
  2018-06-13 09:19:33  cri

 গেরি গ্রিমস্টোন  ও চীন আন্তর্জাতিক বেতারের সাংবাদিক



৪০ বছর আগে, তত্কালীন চীনা নেতা তেং সিয়াও পিংয়ের উদ্যোগে, সিপিসি'র একাদশ জাতীয় কংগ্রেসের তৃতীয় পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনের পর, চীনে চালু হয় সংস্কার ও উন্মুক্তকরণের ঐতিহাসিক প্রক্রিয়া। একই সময়, তত্কালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থেচারের উপযুক্ত সহকারী ও ব্রিটিশ অর্থনীতির সংস্কারের উদ্যোক্তা গেরি গ্রিমস্টোন ব্রিটেনের রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোকে বেসরকারিকরণের কাজ এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা শুরু করেন। সম্প্রতি সেই গেরি গ্রিমস্টোন চীন আন্তর্জাতিক বেতারকে বিশেষ সাক্ষাত্কার দেন। তিনি বলেন, গেল কয়েক দশকে চীন সংস্কারের ক্ষেত্রে অসাধারণ অগ্রগতি অর্জন করেছে।

৬৯ বছর বয়সী গেরি গ্রিমস্টোন চীনের সংস্কার ও উন্মুক্তকরণ প্রক্রিয়া শুরুর পর এ-পর্যন্ত দুই শতাধিক বার চীন সফর করেছেন। একভাবে বললে তিনি প্রতিমাসেই চীন সফর করেন। তিনি সরকারি কর্মকর্তা ছিলেন। পরে তিনি Standard Life Aberdeen-এর চেয়ারম্যান হন। এখন তিনি চীন-ব্রিটেন মুক্ত বাণিজ্য এলাকা পরীক্ষামূলক প্রকল্পের ব্রিটিশ দলের নেতা।

নিজের প্রথম চীন সফরের কথা স্মরণ করে গ্রিমস্টোন বলেন, "প্রায় ৩০ বছর আগে আমি প্রথম চীন সফর করি। তখন আমি ব্রিটেনের থেচার প্রশাসনে রাষ্ট্রীয় শিল্প-প্রতিষ্ঠান সংস্কার প্রকল্পের দায়িত্ব পালন করছিলাম। তত্কালীন চীনা প্রধানমন্ত্রী জু রং জির আমন্ত্রণে আমি চীন সফর করি এবং চীনা রাষ্ট্রীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠানের সংস্কার নিজ চোখে দেখি। আমি মনে করি, শিল্পপ্রতিষ্ঠানে সংস্কার বিষয়ে চীন সরকারের সিদ্ধান্ত ছিল সঠিক এবং শুরুর দিকেই চীন এ-ব্যাপারে সাফল্য অর্জন করতে শুরু করে। আমি বিশ্বাস করি, চীন সরকার বরাবরই শিল্পপ্রতিষ্ঠান সংস্কারের কাজকে গুরুত্ব দিয়ে এসেছে।"

চীনের সংস্কার ও উন্মুক্তকরণ প্রক্রিয়ার দিকে ফিরে তাকিয়ে গ্রিমস্টোন মনে করেন, চীনে সংস্কারের ক্ষেত্রে সফলতা এসেছে লেগে থাকার কারণে এবং দৃঢ়ভাবে পরিকল্পনা অনুসারে কাজ করার জন্য। তিনি বলেন, "আমি মনে করি, চীনের সংস্কার ও উন্মুক্তকরণ প্রক্রিয়ার সাফল্যের মূল কারণ সরকারের দৃঢ়তা। চীনের কয়েকজন নেতা খুবই দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ছিলেন এবং আছেন। চীনের সংস্কারনীতিও সব মহলের কাছে বরাবরই গ্রহণযোগ্য ছিল। সংস্কারের ফলে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকৃষ্ট হয়েছে। অন্যান্য ক্ষেত্রে চীন সরকার ভালো করেছে। তাই আমরা চীনের সংস্কার প্রক্রিয়া থেকে অর্জিত সাফল্য দেখেছি। এই প্রক্রিয়া এখনও স্থিতিশীলভাবে চলছে। চীন অসাধারণ একটি সংস্কার-পথ খুঁজে পেয়েছে।"

সংস্কার ও উন্মুকরণের কষ্ট ও সমস্যা কাটিয়ে ওঠার কথা বলতে গিয়ে গ্রিমস্টোন চীনে নিজের কার্জের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, "চীনে বাজার অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সবচেয়ে কঠিন কাজ ছিল। চীন বড় একটি দেশ এবং কেন্দ্রীয় সরকার থেকে স্থানীয় সরকার পর্যন্ত প্রশাসনিক পর্যায়ও অনেক বেশি। উন্নয়নের দিক দিয়ে অঞ্চলের সঙ্গে অঞ্চলের পার্থক্য স্পষ্ট। আমার কোম্পানি চীনের ৮৬টি শহরে ব্যবসা চালু করে। আমি দেখেছি চীনের বাজার-অর্থনীতির ধারাবাহিকতা। এটা সহজে বাস্তবায়নযোগ্য ছিল না। চীনের প্রশাসন পর্যায়ের স্থিতিশীলতা ও নীতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে দৃঢ়তার কারণে এসবকিছু বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে।"

চীনে গ্রিমস্টোনের কোম্পানি মূলত জীবনবীমা ও সম্পদ-ব্যবস্থাপনার ব্যবসা করে। তিনি বলেন, চীন সরকার বৈদেশিক বিনিয়োগের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। এতে সবাই লাভবান হচ্ছে।

গেল ৪০ বছরে চীন ও ব্রিটেনের সম্পর্কের সাফল্য এবং ভবিষ্যতের উন্নয়ন নিয়ে গ্রিমস্টোন বলেন, "আমি মনে করি, বিগত ৪০ বছরে চীন ও ব্রিটেনের অর্জিত সবচেয় বড় সাফল্য হচ্ছে পাস্পরিক আস্থা ও বোঝাপড়া। দুদেশের আছে উজ্জ্বল ইতিহাস এবং এ-কারণে দু'দেশের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় থাকা সহজতর। আমাদের ইতিহাস আমাদেরকে অনেক সমস্যা সমাধানের সূত্র বলে দেয়। আমি মনে করি, দু'দেশের সহযোগিতা ও বিনিময়ের ভিত্তি তৈরি হয়ে গেছে এবং ভবিষ্যতে দু'দেশের সম্পর্কের আরও উন্নয়ন নিয়ে আমি আশাবাদী।"

গ্রিমস্টোন বলেন, চলতি বছরের বোয়াও ফোরামে চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং 'উদ্ভাবনের মাধ্যমে ভবিষ্যতকে নেতৃত্ব দেওয়া'র ধারণা উত্থাপন করেন। ব্রিটেনের সঙ্গে বিনিময় থেকে চীন আরও বেশি নতুন ধারণা পাবে। তিনি বলেন,

চীন ব্রিটেন থেকে আরও বেশি উদ্ভাবনী ধারণা পেতে পারে। চীনা শিল্পপতিরা মনে করেন, বৃটিশ শিল্পপতিদের কাছ থেকে তাঁরা 'উদ্যোক্তা চেতনা' পেতে পারে; শিখতে পারেন অনেককিছু।

অবশেষে 'গোল্ডেন যুগ'-এ চীন-বৃটিশ সম্পর্কের ভবিষ্যত নিয়ে গ্রিমস্টোন বলেন, "চলমান ভাল প্রবণতা দীর্ঘসময় ধরে বজায় রাখা খুব গুরুত্বপূর্ণ। দৃঢ় অংশীদারিত্বের সম্পর্ক তৈরি করতে বেশ সময় লাগে। একটি বাড়ি নির্মাণ করতে চাইলে যেমন দৃঢ় ভিত্তি তৈরি করতে হয়, অনেকটা তেমন। আশা করি দু'দেশের সম্পর্ক সবসময় এমন উন্নয়নের প্রবণতা বজায় রাখবে।"

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040