Web bengali.cri.cn   
শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার ছিংতাও শীর্ষসম্মেলনের সফল সমাপ্তি
  2018-06-11 16:06:12  cri
শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার অষ্টাদশ শীর্ষসম্মেলন গত রোববার বিকেলে চীনের শানতুং প্রদেশের ছিংতাওয়ে শেষ হয়। চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং শীর্ষসম্মেলনে সভাপতিত্ব করার সময়ে বলেন, "আমাদের উচিত 'শাংহাই চেতনা'-র আলোকে মানবজাতির অভিন্ন লক্ষ্যের কমিউনিটি প্রতিষ্ঠা করা।" তাঁর বক্তব্য বিশেষজ্ঞদের ভূয়সী প্রশংসা কুড়ায়।

শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার পালাক্রমিক সভাপতিরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং "'শাংহাই চেতনা' উন্নয়ন এবং মানবজাতির অভিন্ন লক্ষ্যের কমিউনিটি প্রতিষ্ঠা" শীর্ষক ভাষণ দেন। ভাষণে প্রথমে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট মামনুন হুসেইনকে স্বাগত জানান প্রেসিডেন্ট সি। শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার সদস্যসংখ্যা বৃদ্ধির পর এটিই প্রথম শীর্ষসম্মেলন। মোদি ও হুসেইন নিজ নিজ দেশের পক্ষে প্রথম এই শীর্ষসম্মেলনে অংশ নেন।

প্রেসিডেন্ট সি বলেন, শাংহাই সহযোগিতা সংস্থা প্রতিষ্ঠার পর বিগত ১৭ বছরে গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য অর্জিত হয়েছে। এটি একটি জোটনিরপেক্ষ সংস্থা। এ-সংস্থা অন্য কোনো সংস্থার সঙ্গে বৈরিতার সম্পর্ক স্থাপনে অনিচ্ছুক এবং একটি গঠনমূলক অংশীদারিত্বের সম্পর্কের প্রতীক। এটা আঞ্চলিক সহযোগিতার নতুন পদ্ধতি, যা আঞ্চলিক শান্তি ও উন্নয়নের জন্য নতুন ধরনের অবদান রেখেছে।

শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার সচিবালয়ে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি লুকিয়ান্তসেভ এক সাক্ষাত্কারে বলেন, প্রেসিডেন্ট সি'র ভাষণে এতদঞ্চলের পাশাপাশি বিশ্বের পরিস্থিতির ওপর আলোকপাত করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট সি শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার কাঠামোতে সদস্যরাষ্ট্রগুলোর মধ্যে ব্যাপক সহযোগিতার সুনির্দিষ্ট বিশ্লেষণ করেছেন। লুকিয়ান্তসেভ বলেন,

"প্রেসিডেন্ট সি'র ভাষণে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পরিস্থিতির ওপর আলোকপাত করা হয়েছে এবং পরিস্থিতির যথাযথ মূল্যায়ন করেছেন তিনি। রাজনীতি, আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও অর্থনীতি—এই তিনটি গুরুত্বপূর্ণ দিক এবং সাংস্কৃতিক সহযোগিতার ব্যাপারে শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার অবস্থানও ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। তা ছাড়া, প্রেসিডেন্ট সি কয়েকটি গঠনমূলক প্রস্তাব পেশ করেছেন। আমি বিশ্বাস করি, প্রস্তাবগুলো সদস্যরাষ্ট্রগুলোর সমর্থন লাভ করবে এবং দ্রুত বাস্তবায়িত হবে।"

ভাষণে প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং বলেন, শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার জীবনীশক্তি এবং শক্তিশালী সহযোগিতা-শক্তি রয়েছে। এর মূল কারণ হল 'শাংহাই চেতনা'। সদস্যরাষ্ট্রগুলো এই চেতনায় উদ্বুদ্ধ।

পাকিস্তানের পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিভাগের প্রধান আম্কেদ আব্বাস মনে করেন, মানবজাতির অভিন্ন লক্ষ্যের কমিউনিটি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সংস্থাটির সদস্যরাষ্ট্রগুলোর ভবিষ্যৎ-সহযোগিতার দিক্‌-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দিয়েছে প্রেসিডেন্ট সি।

চীনে ভারতের রাষ্ট্রদূত গৌতম বাম্বাওয়ালা বলেছেন, প্রেসিডেন্ট সি'র ভাষণে শাংহাই সহযোগিতা সংস্থা উন্নয়নের দিক্‌-নির্দেশনা রয়েছে। আশা করা যায়, শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার কাঠামোতে ভারত আরও বড় ভূমিকা পালন করতে পারবে।

ভারতের দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ ডক্টর অভিষেক প্রতাপ সিং বলেন, প্রেসিডেন্ট সি তার ভাষণে সাংস্কৃতিক বিনিময়, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সহযোগিতা, পারস্পরিক রাজনৈতিক আস্থা এবং আঞ্চলিক সহযোগিতা জোরদারের কথা বলেছেন। তাঁর এ-বক্তব্য বৈশ্বিক উন্নয়নের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। (জিনিয়া/আলিম/মুক্তা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040