Web bengali.cri.cn   
'বেইবি'
  2018-05-11 15:26:15  cri



বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি চীনের হংকংয়ের একজন নারী কন্ঠশিল্পীর সঙ্গে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি হলেন মো ওয়েন ওয়েই ক্যারেন মোক। প্রথমে আমরা একসঙ্গে শুনবো তাঁর কন্ঠে 'বেইবি' শীর্ষক গান।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ক্যারেন মোক'র কন্ঠে 'বেইবি' নামের গান। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে খুবই জনপ্রিয় একটি গান 'যখন বৃদ্ধ হবে' শোনাবো। বন্ধুরা, পৃথিবীতে একমাত্র মা-বাবাই আমাদেরকে সবচেয়ে গভীরভাবে ভালোবাসেন। তাদের এই ভালোবাসায় কোনো স্বার্থ নেই, নেই কোনো কৃত্রিমতা। তারা কখনো আমাদের ত্যাগ করেন না এবং তাদের শত কষ্টের মাঝেও তারা আমাদের সুখী দেখতে চান। আমরাও আমাদের মা-বাবাকে ভালোবাসি। কিন্তু জীবনের হাজার রকমের ব্যস্ততা আমাদেরকে তাদের কাছ থেকে অনেক দূরে সরিয়ে দিয়েছে। তাই এই ব্যস্ততার মাঝেও যখনই সময় পাবেন, ছুটে যাবেন নিজের মা-বাবার কাছে। কারণ আপনার মা-বাবা বাড়িতে আপনার জন্য অপেক্ষা করছেন। চলুন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ক্যারেন মোক'র কন্ঠে 'যখন বৃদ্ধ হবে' নামের গান। বন্ধুরা, ক্যারেনের দাদা ব্রিটিশ, দাদি চীনা; তাঁর মা'র শরীরে আছে ইরানি, জার্মান ও চীনা রক্ত। তিনি নিজে হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৩ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করে আনুষ্ঠানিকভাবে সংগীতজগতে প্রবেশ করেন। তাঁর অনেক গান এখনও খুবই জনপ্রিয়। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'হিরোশিমায় ভালবাসা' শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি ১৯৯৭ সালের অক্টোবরে রিলিজ হয়। আশা করি, বন্ধুরা, গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ক্যারেন মোক'র কন্ঠে 'হিরোশিমায় ভালবাসা' গানটি। ১৯৯৩ সালে ক্যারেন প্রথম ক্যান্টোনিজ অ্যালবাম প্রকাশ করে আনুষ্ঠানিকভাবে বিনোদন জগতে প্রবেশ করেন। ১৯৯৫ সালে তিনি প্রথমে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি হংকংয়ের চলচ্চিত্র পুরস্কার, এচকেএফএ'র শ্রেষ্ঠ সেরা পার্শ্ব-অভিনেত্রীর পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৭ সালে তিনি তাইওয়ানে প্রথম মেন্ডারিন ভাষার গানের অ্যালবাম প্রকাশ করেন। অ্যালবামটি ৮ লক্ষাধিক কপি বিক্রয় হয়। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'ফোটানো জল ও সাদা রুটি' নামের শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি ২০১১ সালে রিলিজ হয়। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ক্যারেন মোক'র কন্ঠে 'ফোটানো জল ও সাদা রুটি' গানটি। ১৯৯৯ সালে হংকং ফ্যাশন ডিজাইনার অ্যাসোসিয়েশন ক্যারেনকে বিশিষ্ট ফ্যাশন ব্যক্তির মর্যাদা প্রদান করে। ২০০৩ সালে তিনি পঞ্চম সিসিটিভি-এমটিভি সংগীত প্রতিযোগিতায় হংকংয়ের শ্রেষ্ঠ কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৮ সালে তিনি হংকংয়ের পক্ষ থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার পঞ্চম এশিয়া সংগীত উত্সবে অংশ নেন এবং এশিয়ার শ্রেষ্ঠ নারী কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ২০১১ সালে তিনি 'বেইবি' নামের গান দিয়ে তাইওয়ানের গোল্ডেন মেলডি অ্যাওয়ার্ডসের শ্রেষ্ঠ মেন্ডারিন ভাষার নারী কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে ক্যারেন'র কন্ঠে 'সারা বিশ্বে তুমি সবচেয়ে ভাল' নামের গান শোনাবো। আশা করি, বন্ধুরা, গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ক্যারেন মোক'র কন্ঠে 'সারা বিশ্বে তুমি সবচেয়ে ভাল' নামের গান। এখন আমি আমার আরেকজন প্রিয় কণ্ঠশিল্পী ছি ছিনের গান শোনাতে চাই। ছি ছিন ১৯৬০ সালের ১২ জুলাই চীনের তাইওয়ানের তাইচং শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার বড় বোন একজন বিখ্যাত্ কণ্ঠশিল্পী। ১৯৮১ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। এরপর তিনি সেনাবাহিনীতে গান গাওয়া শুরু করেন। সেনাবাহিনী থেকে অবসর নিয়ে ১৯৮৫ সালে তিনি নিজের অ্যালবাম প্রকাশ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে ছি ছিন'র কন্ঠে 'ফুরফুরে তাইপেই' শীর্ষক গান শোনাবো। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040