Web bengali.cri.cn   
'চকমক'
  2018-04-07 19:10:16  cri



বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি আপনাদেরকে তাইওয়ানের কন্ঠশিল্পী ইয়াং চং ওয়েই'র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। প্রথমে শোনাবো তাঁর কন্ঠে 'চকমক' শীর্ষক গান। গানটি ২০১৩ সালে রিলিজ হয়। গানে একজন যুবক নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার কথা বলে। আশা করি, বন্ধুরা, গানটি পছন্দ করবেন।

২০০৭ সালে ইয়াং চং ওয়েই তাইওয়ানের একটি সংগীত প্রতিযোগিতায় দশজন শ্রেষ্ঠ গায়কের নামতালিকায় অন্তর্ভুক্ত হন। ২০০৮ সালে তিনি প্রথম ইপি প্রকাশ করেন। ইপিটি টানা ছয় মাস তাইওয়ানের শ্রেষ্ঠ গানের স্থানে ছিল। একই বছরের মে মাসে তিনি নিজের কনসার্ট আয়োজন করেন। এখন আমি আপনাদেরকে ইয়াং চং ওয়েই'র কন্ঠে 'গুডবাই অ্যান্ড হ্যালো' (Goodbye & Hello) শীর্ষক গান শোনাবো। গানটি নারীকন্ঠশিল্পী ছাই চিয়ান ইয়া'র গাওয়া গান। কিন্তু ইয়াং চং ওয়েই একটি সংগীত প্রতিযোগিতায় পুনরায় সেটি গেয়েছেন। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

২০০৮ সালের নভেম্বর মাসে ইয়াং চং ওয়েই সিঙ্গাপুরের হিট অ্যাওয়ার্ডের (Singapore Hit Awards) সবচেয়ে জনপ্রিয় পুরুষ কন্ঠশিল্পীর পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৯ সালের জানুয়ারিতে ইয়াং চং ওয়েই তাঁর কন্ঠে 'পেঁয়াজ' নামের গান দিয়ে তাইবেই'র হিট এফএম'র বার্ষিক শত শ্রেষ্ঠ গানের তালিকায় প্রথম স্থান লাভ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'পেঁয়াজ' নামের গান শোনাবো। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইয়াং চং ওয়েই'র কন্ঠে 'পেঁয়াজ' নামের গান। ২০১১ সালের ২৬ অগাষ্টে তিনি দ্বিতীয় অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০১৩ সালে তিনি তৃতীয় অ্যালবাম প্রকাশ করেন। একই বছরে তিনি হুনান প্রদেশের টিভি কেন্দ্রের সংগীত প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান লাভ করেন। ২০১৪ সালে তিনি শেনচেন টিভি কেন্দ্রের সংগীত প্রতিযোগিতায় পুরুষ কন্ঠশিল্পীর স্বর্ণপদক লাভ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে তাঁর কন্ঠে 'আমি গেছি, আমি যাইনি' শীর্ষক গান শোনাবো। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইয়াং চং ওয়েই'র কন্ঠে 'আমি গেছি, আমি যাইনি' গানটি। এখন আমি আপনাদেরকে ইয়াং চুং ওয়েই'র কন্ঠে 'আমাদের যেন কোথায় দেখা হয়েছে' গান শোনাবো। গানটি ২০১৩ সালে চীনে প্রচারিত একটি খুবই জনপ্রিয় টিভি সিরিজের থিম সং। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

বন্ধুরা, শুনছিলেন ইয়াং চং ওয়েই'র কন্ঠে কয়েকটি গান। এখন আমি আপনাদেরকে নারী কন্ঠশিল্পী সুন ইয়ান চি'র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। তিনি ১৯৭৮ সালের ২৩ জুলাই সিঙ্গাপুরে জন্মগ্রহণ করেন। ২০০০ সালে তিনি নিজের প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। তিনি পাঁচ বছর বয়স থেকে পিয়ানো বাজানো শেখেন। দশ বছর বয়সে তিনি প্রথমবারের মতো গান পরিবেশন করেন। ১৮ বছর বয়সে তিনি প্রথম গান লেখেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় একটি ব্যান্ডের প্রধান গায়িকা ছিলেন। ২০০০ সালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হওয়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে সংগীতজগতে প্রবেশ করেন। এখন আমি আপনাদেরকে সুন ইয়ান চি'র কন্ঠে 'প্রথম দিন' শীর্ষক গান শোনাবো। আশা করি, বন্ধুরা গানটি পছন্দ করবেন।

২০০০ সালে সুন ইয়ান চি দু'টি অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০০৩ সালে তিনি নিজের সংগীত কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। এ বছরের জানুয়ারিতে তিনি তার ষষ্ঠ অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০০৬ সালে তিনি সিঙ্গাপুরের এক প্রতিযোগিতায় পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৭ সালে তিনি সিঙ্গাপুরের বিশিষ্ট যুব পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৮ সালে তিনি বেইজিং অলিম্পিক গেমসের সরকারি চারটি গানে কণ্ঠ দেন। ২০১৫ সালে তিনি হংকংয়ের দশটি শ্রেষ্ঠ গানের পুরস্কার লাভ করেন। একজন গায়িকা ছাড়া তিনি একজন পোশাক ডিজাইনারও বটে। এখন আমি আপনাদেরকে শোনাবো সুন ইয়ান চি'র কন্ঠে 'মুলানের অনুভূতি' শীর্ষক গান। আশা করি, আপনারা গানটি পছন্দ করবেন।

প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (ছাই/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040