Web bengali.cri.cn   
আমি সেই, যাকে তুমি ভালোবাসো না
  2018-01-26 10:25:36  cri



মুক্তা: বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে চীনের তাইওয়ানের কণ্ঠশিল্পী ডিক এন্ড কাউবয়ের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। ডিক এন্ড কাউবয় ১৯৫৯ সালের ২৭ নভেম্বর একটি দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৮ বছর বয়স থেকে মিউজিক পাবে গান পরিবেশনা শুরু করেন। তিনি ২০ বছর বয়স থেকে তার কোম্পানির সেলসম্যান, টিকিট ক্লার্ক ও গিটার শিক্ষক হিসেবে কাজ করা শুরু করেন। ২৮ বছর বয়স থেকে তিনি রেকর্ড কোম্পানিতে কাজ শুরু করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ১৯৯৭ সালে তিনি দ্বিতীয় অ্যালবাম প্রকাশ করেন। অ্যালবামটি টানা পাঁচ সপ্তাহ ধরে হংকংয়ের বিক্রির তালিকায় দশম স্থানে ছিলো। ২০০১ সাল থেকে তিনি চীনের মূলভূভাগে সংগীত নিয়ে কাজ শুরু করেন। তিনি বিভিন্ন সংগীত প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্ব পালন করা শুরু করেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি ডিক এন্ড কাউবয়ের কণ্ঠে 'আমি সেই, যাকে তুমি ভালোবাসো না' গানটি শোনাবো।

তৌহিদ: 'আমি সেই, যাকে তুমি ভালোবাসো না' গানে বলা হয়েছে,

"আঁধার রাতে বেজে ওঠে ফোন, আমি বিনিদ্র রজনী কাটাই

নিশ্চিয় তুমিই ডেকেছ আমায়!

হয়তো তার আঘাতে হৃদয় তোমার ক্ষতবিক্ষত!

হয়তো তুমি এখন তার প্রতি সন্দেহ করো

এটা সেই স্বেচ্ছাচারিতার পরিণতি!

নিজেকে বুঝতে পারো?

কার সঙ্গে থাকতে চাও, তা বুঝতে পারো?

আমি সেই, যাকে তুমি ভালোবাসো না!

অথচ আমিই তোমার ভালোবাসার দরজায় অপেক্ষা করি।

সারা দিন-রাত স্মৃতির সঙ্গে লড়াই করি।"

আচ্ছা, বন্ধুরা, চলুন গানটি শুনি।

(গান ১)

মুক্তা: শুনছিলেন 'আমি সেই, যাকে তুমি ভালোবাসো না' গানটি। এখন আমি আপনাদেরকে 'তুমি আমাকে একটি আলিঙ্গন দাওনি' গানটি শোনাবো। গেয়েছেন হৌস্যুয়ান ও সারা। হৌস্যুয়ান ১৯৭৯ সালের ১৪ ডিসেম্বরে কুয়াংসি চুয়াং জাতির স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের লিউচৌ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৭ সাল থেকে তিনি সংগীত রচনা শুরু করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময়ই তিনি নিজের ব্যান্ড প্রতিষ্ঠা করেন। ২০০৫ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। অ্যালবামে সব গান তিনি নিজেই রচনা করেছেন। ২০০৬ সালে দ্বিতীয় অ্যালবাম প্রকাশ করেন তিনি। অন্যদিকে সারা হলেন দক্ষিণ কোরিয়ার মানুষ। তিনি ১৯৮৫ সালের ২৮ সেপ্টেম্বরে জন্মগ্রহণ করেন। কিন্তু সংগীতের সঙ্গে জড়িত হন চীনে, ২০০৫ সালে। ২০০৭ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন।

তৌহিদ: 'তুমি আমাকে একটি আলিঙ্গন দাওনি' গানটিতে বলা হয়েছে,

আমি আসি; তবে, তুমি আমাকে একটি জিনিস দাওনি। জিনিস? হ্যাঁ। প্রিয়তম, তুমি আমাকে এখনো একটি আলিঙ্গন দাওনি। ঘুম ভাঙ্গার পর তোমার আলিঙ্গন অনুভব করি। আমার প্রিয় তুমি আমাকে কত ভালোবাসো? এখনও আমার অশ্রু ঝরে! প্রিয়তম, তুমি এখনো আমাকে একটি হাসি দাওনি। আমার একাকীত্বের কষ্ট দূর করতে পারি আমি। আমাকে ভালোবাসার মানুষ খুবই কম। তোমাকে ভালোবাসি, এটিই আমার একমাত্র অহংকার। চলার পথে হঠাত্ মিষ্টি ভালোবাসার কথা মনে পড়ে। কিংবদন্তির ভালোবাসার অধিকাংশ ফল ভালো নয়। আমারা কি ভালোবাসার প্রস্তুতি নিয়েছি? প্রেমের পথে উষ্ণ আলিঙ্গনের প্রস্তুতি নেই। তুমি এখনো আমাকে একটি আলিঙ্গন দাওনি।

আচ্ছা, বন্ধুরা, চলুন গানটি শুনি।

(গান ২)

মুক্তা: শুনছিলেন, 'তুমি এখনো আমাকে একটি আলিঙ্গন দাও নি' নামের গান। এখন আমি আপনাদেরকে কণ্ঠশিল্পী হুয়াং লি সিং'র সঙ্গে পরিচয় করবো। হুয়াং লি সিং ১৯৭৪ সালের ২১ সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের লস এঞ্জেলেসে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কণ্ঠশিল্পী ও অভিনেতা। ১৯৯২ সালে তিনি প্রথমে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০০০ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০০৫ সালে তিনি পঞ্চম অ্যালবাম প্রকাশ করেন এবং তাইওয়ানের ১৬তম গোল্ডেন মেলোডি অ্যাওয়ার্ডসের শ্রেষ্ঠ ম্যান্ডারিন অ্যালবামের মর্যাদা লাভ করেন। পাশাপাশি তিনি অনেক জনপ্রিয় চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে হুয়াং লি সিংয়ের কণ্ঠে 'মাচি' নামের গান শোনাবো। তিনি কণ্ঠশিল্পী চৌ লি মিং অ্যান্ড্রু চৌর সঙ্গে গানটি গেয়েছেন।

তৌহিদ: 'মাচি' একটি জাপানি শব্দ। অর্থ ভাই। গানে বলা হয়েছে,

তুমি আমার মাচি। মাচি মানে কি? আমার ভাই। আমার ভালো ভাই। আমার ঘনিষ্ঠ বন্ধু। ভাই হলে পারস্পরিক সহায়তা করতে হয়। আমি প্রস্তুতি নিয়েছি, তোমাকে যেকোনো সহায়তা করবো। তোমার কষ্ট আমারই কষ্ট। আমি তোমার কষ্ট দূর করতে সহায়তা করবো। এ বিশ্ব আমাদের। প্রতিদিন তোমাকে ভালো ভাই হিসেবে দেখি। আমরা ভাই, আজীবনের ভাই।

আচ্ছা, বন্ধুরা, চলুন গানটি শুনি।

(গান ৩)

মুক্তা: শুনছিলেন 'মাচি' গানটি। এখন আমি আপনাদের তাইওয়ানের কণ্ঠশিল্পী হুয়াং সিয়াও হু'র সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। হুয়াং সিয়াও হু ১৯৬৩ সালের ২১ জুন তাইওয়ানের কাও সিয়ং শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৮৯ সালে প্রথম সংগীত প্রকাশ করে আনুষ্ঠানিকভাবে বিনোদন জগতে প্রবেশ করেন। ১৯৯০ সালে তিনি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। তিনি অ্যালবামটি দিয়ে তাইওয়ানের দ্বিতীয় গোল্ডেন মেলোডি অ্যাওয়ার্ডসের শ্রেষ্ঠ নতুন কণ্ঠশিল্পী ও রেকর্ডিংয়ের মর্যাদা লাভ করেন। ২০০৬ সাল থেকে তিনি চীনের মূলভূভাগে সংগীত নিয়ে কাজ শুরু করেন। ২০০৭ সাল থেকে তিনি সংগীত প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি আপনাদেরকে হুয়াং সিয়াও হু'র কণ্ঠে 'ভালোবাসার প্রবন্ধ' গানটি শোনাবো।

তৌহিদ: 'ভালোবাসার প্রবন্ধ' গানে বলা হয়েছে,

ভালোবাসা আসলে কেমন! বুঝতে পারিনা এবং কোন কারণ নেই। প্রেমের সিদ্ধান্ত অনেক কঠিন। পরস্পরকে ভালোবাসলে একসঙ্গে থাকতে হয়। ভালোবাসা আসলে এ ধরণের বিষয় যে, কখনো তা ন্যায্য হয় না! প্রতিটি ভালোবাসা কখনো গরম, কখনো কখনো ঠাণ্ডা।

ভালোবাসা এক ধরণের খেলার মতো, যার কোনো নিয়ম নেই, আর কেউ বিজয়ী হয় না। পরবর্তীতে আবার আত্মবিশ্বাস ফিরে আসে। ভালোবাসা যেন অন্ধের মতো।

এখনও তোমাকে ভালোবাসি কিনা জানি না, আর চিন্তা করতেও চাই না।

(গান ৪)

‌মুক্তা: বন্ধুরা, শুনছিলেন 'ভালোবাসার প্রবন্ধ' গানটি। আশা করি, গানগুলো সবাই পছন্দ করেছেন। শ্রোতাবন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে আমরা আপনাদেরকে চারটি চীনা গান শুনিয়েছি। এখন শোনাবো কয়েকটি বাংলা গান। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে।

শিল্পী: সতীনাথ মুখপাধ্যায়

(বাংলা গান)

তৌহিদ: প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (মুক্তা/তৌহিদ)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040