Web bengali.cri.cn   
হঠাত্ আমার কথা কি মনে পড়বে?
  2017-11-10 10:00:38  cri



মুক্তা: বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানের শুরুতে আমি চেং ই মিংয়ের কণ্ঠে 'হঠাত্ আমার কথা কি মনে পড়বে?' নামের গান শোনাবো। চেং ই মিং ১৯৮২ সালের ৩ জুলাই হুনান প্রদেশের ছাংদে শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কণ্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত প্রযোজক। ২০০২ সালে তিনি চীনের প্রথম ওয়েবসাইটভিত্তিক সঙ্গীত নাটক তৈরি করেন। নাটকটির থিম গান 'যখন আমি আবার তোমাকে ভালোবাসি' ওয়েবসাইটে খুব জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। ২০০৫ সালে তিনি নিজের প্রযোজনায় প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০০৯ সালে তিনি হুনান প্রদেশের টেলিভিশন কেন্দ্রের এক সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন এবং তাঁর নিজের লেখা গান 'জুলাই' স্বর্ণপদক লাভ করে। ২০১২ সালে তিনি নিজের সঙ্গীত কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৩ সালে তিনি হুনান প্রদেশের টেলিভিশন কেন্দ্রের আরেকটি সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন। একই বছরে তিনি নিজের প্রথম মাইক্রো চলচ্চিত্র প্রকাশ করেন। ২০১৪ সালে তিনি দ্বিতীয় অ্যালবাম প্রকাশ করেন।

'হঠাত্ আমার কথা কি মনে পড়বে?' নামের গানটি হল একটি টিভি সিরিজের থিম গান। গত ১৫ সেপ্টেম্বর গানটি প্রকাশিত হয়।

টুটুল: 'হঠাত্ আমার কথা কি মনে পড়বে?' গানের কথা এমন, 'অনেক দিন ধরে তোমার কোনো খোঁজ পাই না? আমি এমন পুরুষ যে তোমার কাছে যেতে পারি না। আমার দুঃখ নেই, কিন্তু কান্না করতে চাই। এ বিশ্বে আমাদের কিভাবে দেখা হবে? ভালোবাসা কিভাবে সুখ দেয় ও ভেঙ্গে যায়। ঘৃণা কিভাবে পূরণ করা হবে? ভালোবাসা উল্কার মত পড়ে যাচ্ছে। 'তোমাকে অনেক মিস করছি'- আমি বার বার এ কথা বলি। তোমাকে অনেক মিস করছি। তোমার কি হঠাত্ আমার কথা মনে পড়বে?। তোমাকে অনেক মিস করছি। শুধু আকাশের তারা আমার কাছে থাকে। তোমাকে অনেক মিস করছি। আমি চাই তুমি আমাকে ঘনিষ্ঠভাবে আলিঙ্গন করবে। তোমার কি হঠাত্ আমার কথা মনে পড়বে?' বন্ধুরা, এখন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

(গান ১)

মুক্তা: আচ্ছা বন্ধুরা, শুনছিলেন 'হঠাত্ আমার কথা কি মনে পড়বে?' নামের গানটি। এখন আমি আপনাদেরকে গুয়ান সিয়াও থংয়ের কণ্ঠে 'আমার বয়স হয়েছে ২০' নামের গান শোনাবো। গুয়ান সিয়াও থং ১৯৯৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বেইজিংয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন অভিনেত্রী। তিনি এখন বেইজিং চলচ্চিত্র একাডেমিতে লেখাপড়া করছেন। ২০০১ সালে তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। ২০১৭ সালের ১৬ জুন তিনি শাংহাই টেলিভিশন সিরিজে পুরস্কার লাভ করেন। 'আমার বয়স হয়েছে ২০' গানটি গত ১৭ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত হয়। গুয়ান সিয়াও থং নিজেই এ গানের কথা লিখেছেন।

টুটুল: ' আমার বয়স হয়েছে ২০' গানের কথা হল, 'ঠিকই আছে বয়স, ঠিকই আছে স্বপ্ন। ঠিকই আছে, ঠিক সময়েই ভালোবাসা হয়েছে। আমাদের কখন দেখা হবে? এখন আমার বেশি চাপ নেই। দায়িত্বও বেশি নয়। ঝামেলা ও ভাঙা ভাঙা ভাষা শোনার সময় নেই। আমার বয়স হয়েছে ২০, আমি এখন একজন প্রাপ্তবয়স্ক। আমি জানি, জীবন পরী কাহিনী নয়। আমি প্রস্তুতি নিয়েছি। আমার উত্সাহ আছে। কঠিন ও চ্যালেঞ্জ ভয় করি না আমি'। চলুন বন্ধুরা, এখন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনি।

(গান ২)

মুক্তা: বন্ধুরা, শুনছিলেন 'আমার বয়স হয়েছে ২০' নামের গান। এখন শুনবেন 'যৌবনে কে থাকে?' নামের গান। গেয়েছেন ইয়াং ছেং লিন। ইয়াং ছেং লিন ১৯৮৪ সালের ৪ জুন চীনের তাইওয়ানের তাইপেই শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন কণ্ঠশিল্পী, অভিনেত্রী, চলচ্চিত্র সম্পাদনাকারী ও উপস্থাপিকা। ২০০০ সালে তিনি একটি সঙ্গীতদলের সদস্য হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে সঙ্গীত জগতে প্রবেশ করেন। এ বছরের নভেম্বরে দলটি প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করে। ২০০২ সাল থেকে তিনি টিভি অনুষ্ঠানে উপস্থাপিকার কাজ শুরু করেন। ২০০১ সালে তিনি টিভি সিরিজে অভিনয় শুরু করেন। ২০০৫ সালে তিনি প্রথম নিজের অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০১০ সালে তিনি তাইওয়ানের 'দ্য গোল্ডেন বেল অ্যাওয়ার্ডস'-এ শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৬ সালে তিনি নিজের দশম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। এ বছর থেকে তিনি চলচ্চিত্র সম্পাদনা শুরু করেন। 'যৌবনে কে থাকে?' গানটি গত ১৫ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত হয়।

টুটুল: গানটির কথা এমন, 'পাখির ছানা খাড়া বাঁধে দাঁড়িয়ে পাখা মেলে, পানিতে প্রতিফলিত আলোয় তাকে অশান্ত দেখা যায়। কষ্ট ছিলো, হতাশা ছিলো, ছিলো প্রত্যাশা। কিন্তু আমার সাহস এখনো আছে। আগে ছোট ঘটনার জন্য বিশ্ব ত্যাগ করতে চাইতাম। ভালোবাসার জন্য সারা দিন মুখ চেপে হাসতাম।কিন্তু মনে করি, আমার সঙ্গে এসবের কোনো সম্পর্ক নেই। আমি ভালোবাসি, কারণ আমি এখানে। যৌবনে কে আছে? সে আমার অবস্থা পরিবর্তন করেছে? যদিও পথ ছিলো অনেক কঠিন, তবে ওই কঠিন অবস্থা সমাধানের মাধ্যমে আমার ধৈর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। স্মৃতি যেন আঁকাবাঁকা নদীর মতো। পাহাড়ের বাইরে সমুদ্রে আমাদের জাহাজ কি দেখা যাবে? আমি ভালোবাসি, অতীত ভবিষ্যতে পরিণত হবে'। তো বন্ধুরা, তাহলে চলুন এখন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনি, কেমন?

(গান ৩)

মুক্তা: বন্ধুরা, শুনছিলেন 'যৌবনে কে থাকে?' নামের গান। এখন আমি আপনাদেরকে নারী কণ্ঠশিল্পী কুয়ান সিন ইয়ানের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবো। কুয়ান সিন ইয়ান ১৯৭৯ সালের ৩১ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হলেন চীনা বংশোদ্ভূত কানাডিয়ান। তিনি প্রধানত হংকংয়ে নিজের সঙ্গীত কাজ উন্নয়ন করেন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া থেকে স্নাতক হন। ১৯৯৯ সালে তিনি বিশ্বব্যাপী চীনা সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার পর সঙ্গীত জগতে প্রবেশ করেন। ২০০২ সালে তিনি নিজের প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন। ২০১১ সালের মার্চ মাসে তিনি ৩৩তম গোল্ডেন সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক লাভ করেন। আজকের অনুষ্ঠানে আমি তাঁর কণ্ঠে 'নীরবে সহ্য করা' নামের গান শোনাবো।

টুটুল: 'নীরবে সহ্য করা' গানটির কথা এমন, 'আত্মসমর্পণের অশ্রু পড়ে গেছে। শূন্যতা পূরণ করি। মর্মস্পর্শী ঘাম ও আকাঙ্খা বেশি। আমাকে গ্রহণ করবে? চাপ সহ্য করি, নীরবে সহ্য করি। যদি তুমি এ রকম আমাকে পছন্দ করো, তাহলে আমার সঙ্গে হাসবে, আমার কাছে থাকবে। তুমি কি যত্ন করো? তুমি কি কখনো আমার কথা শোনো? কল্পনার জগতে তোমার সঙ্গে মিথ্যা সম্পর্ক বজায় রাখি। সেই সত্যিকারের আমি মারা গেছি'। বন্ধুরা, এখন আমরা একসঙ্গে গানটি শুনবো।

(গান ৪)

মুক্তা: বন্ধুরা, শুনছিলেন 'নীরবে সহ্য করা' শিরোনামের একটি গান। আশা করি, গানটি সবাই পছন্দ করেছেন। শ্রোতাবন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে আমরা আপনাদেরকে চারটি চীনা গান শুনিয়েছি। এখন শোনাবো কয়েকটি বাংলা গান। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে।

(বাংলা গান)

টুটুল: প্রিয় শ্রোতা, এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। যদি আমাদের অনুষ্ঠানে আপনারা কোনো পছন্দের গান শুনতে চান, তাহলে জানাবেন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা ben@cri.com.cn। আর আমার নিজস্ব ইমেইল ঠিকানা caiyue@cri.com.cn। 'গানের অনুরোধ' আমার নিজস্ব ই-মেইল ঠিকানায় পাঠালে ভালো হয়।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই। আশা করি, আগামী সপ্তাহের একই দিন, একই সময়ে আবারো আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন। চাই চিয়ান। (মুক্তা/টুটুল)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040