Web bengali.cri.cn   
চীনের কুই চৌ প্রদেশের লি পো জেলা
  2017-07-26 14:47:42  cri


চীনের কুই চৌ প্রদেশের লি পো জেলার আছে বিপুল পর্যটনসম্পদ। লি পোকে ডাকা হয় 'পৃথিবীর পান্না' বলে। লি পো'র লোকসংখ্যার অধিকাংশই সংখ্যালঘু জাতির মানুষ এবং এটি সংশ্লিষ্ট প্রদেশের সবচেয়ে দরিদ্র জেলাগুলোর একটি ছিল। দারিদ্র্যমুক্তির জন্য গোটা জেলায় পর্যটনশিল্প উন্নয়নের সিদ্ধান্তগ্রহণ ও তা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটতে থাকে। এলাকার পাহাড় ও নদীসহ প্রাকৃতিক সম্পদ জনগণের উপকারে আসে।

লি পো'র পর্যটনসম্পদের মধ্যে দু'টি বিখ্যাত বিশ্ব পর্যায়ের সম্পদ আছে। একটা হল 'বিশ্ব প্রাকৃতিক ঐতিহ্য' এবং আরেকটি হল 'বিশ্ব জীবমণ্ডল রিজার্ভ'। ২০০৭ সালে লি পো তার বিশেষ কার্স্ট বন এ ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্যের জন্য বিশ্ব প্রাকৃতিক ঐতিহ্যের অংশে পরিণত হয়। এটা চীনের ষষ্ঠ বিশ্ব প্রাকৃতিক ঐতিহ্য। লি পো বিখ্যাত হলেও ছিল দরিদ্র। লি পো জেলার প্রচারণা বিভাগের প্রধান লেই তা বলেন, দারিদ্র্যমুক্তির জন্য তাদেরকে তিনটি পাহাড় 'অতিক্রম করতে হবে'। এ তিনটি পাহাড় হল

ইয়াও সান, মা সান ও ইউয়ু লিয়াং সান। এর মধ্যে ইয়াও পাহাড় ও ইউয়ু লিয়াং পাহাড়ে বসবাস করে সংখ্যালঘু জাতির মানুষ। লেই তা বলেন,

"লি পো জেলায় সংখ্যালঘু জাতির মানুষের সংখ্যা বেশি, প্রায় ৯২.৭ শতাংশ। এখানকার সংখ্যালঘু জাতিগুলোর মধ্যে আছে পু ই জাতি, সুই জাতি ইয়াও জাতি ও মিয়াও জাতি। লি পো জেলার সংখ্যালঘু জাতিগুলোর বৈশিষ্ট্যময় সংস্কৃতি দারিদ্র্য মোকাবিলার গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। উদাহরণস্বরূপ, সুই জাতির লোকেরা নিজস্ব সংস্কৃতির ভিত্তিতে গ্রামীণ পর্যটন ও পারিবারিক হোটেল ব্যবসায় যথেষ্ট উন্নতি করেছে।"

সুই জাতির মেয়ে লুও থিং। এখন তিনি সুই জাতি অধ্যুষিত গ্রাম, সুই ভু'র একটি পারিবারিক হোটেলে কাজ করেন। তিনি বলেন,

"এখানে পর্যটনশিল্প বিকশিত হবার আগে আমরা বাইরে কাজ করতাম। আর এখন আমরা নিজের গ্রাম ছেড়ে বাইরে যাই না। এখন আমরা বাড়ির কাছেই কাজ করতে পারি এবং পরিবারের প্রবীণ ও শিশুদের যত্ন নিতে পারি। এটা আমাদের জন্য খুবই ভালো একটা সুযোগ।"

লি পো জেলার কোনো একটি বিশেষ জায়গা পর্যটনসম্পদে পূর্ণ নয়। তাই বিভিন্ন জায়গায় পর্যটনশিল্প উন্নয়নে মনোযোগ দিতে হচ্ছে। ২০১৫ সালে লি পো জেলার সর্বত্র পর্যটনশিল্প উন্নয়নে পরিকল্পনা করা হয়। এ পরিকল্পনার উদ্দেশ্য, স্থানীয় লোকজনকে দারিদ্র্যমুক্ত করা।

লি পো তথ্যমাধ্যমকেন্দ্রের উপ-পরিচালক ছেং সিং লু বলেন, "২০১৫ সালের প্রথমার্ধে আমাদের জেলা পর্যটনশিল্প উন্নয়নের সার্বিক কৌশল গ্রহণ করে। এর আগে লি পো জেলার মাত্র তিনটি জায়গায় পর্যটনশিল্প উন্নয়ন করা হয়েছিল। তখন কেবল ওই তিনটি জায়গার বাসিন্দারা উপকৃত হয়। কিন্তু অন্যান্য জায়গার মানুষ দারিদ্র্যসীমার নীচেই থেকে যায়। ফলে একই জেলার মধ্যে দেখা দেয় বৈষম্য। অথচ গোটা জেলাজুড়েই পর্যটনসম্পদ আছে!"

লি পো জেলায় প্রাকৃতিক পর্যটনসম্পদ যেমন আছে, তেমনি আছে সংখ্যালঘু জাতির সাংস্কৃতিক সম্পদ। তাই লি পো জেলায় পর্যটনশিল্প উন্নয়ন খুব কঠিন নয়। ছেং সিং লু বলেন, পর্যটনশিল্পের সার্বিক উন্নয়ন মানে সব জায়গায় একই পদ্ধতি অনুসরণ নয়। একেকটি জায়গার বৈশিষ্ট্য ও সবলতা বিবেচনায় রেখেই উন্নয়ননীতি প্রণয়ন করা হয়। তিনি বলেন, "সার্বিক উন্নয়ন মানে গোটা জেলার পর্যটনশিল্প উন্নয়ন করা। তবে আমরা একেক জায়গার জন্য একেক কৌশল গ্রহণ করেছি। তাই দেখা যায়, কোথাও কোথাও সংখ্যালঘু জাতির সংস্কৃতিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে, আবার কোথাও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে পারিবারিক হোটেল ব্যবসাকে। পাশাপাশি কৃষি ও সেবাশিল্পের উন্নয়নেও আমরা সমান নজর দিয়েছি।"

লি পো জেলায় ইতোমধ্যেই তিনটি কৃষিপার্ক নির্মাণ করা হয়েছে। এসব পার্কের মাধ্যমে কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াকরণ করা হয় এবং পর্যটনশিল্পকে প্রমোট করা হয়। এখন লি পো জেলায় আছে ৫টি প্রদেশ পর্যায়ের কার্যকর কৃষি প্রদর্শনী পার্ক এবং একটি প্রদেশ পর্যায়ের কৃষিপ্রযুক্তি প্রদর্শনী পার্ক। ছেং সিং লু বলেন, পর্যটনশিল্প উন্নয়নের সাথে সাথে স্থানীয় কৃষিপণ্যও উন্নত হয়েছে। পরিস্কার ও সবুজ কৃষিপণ্য পর্যটকদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এ প্রসঙ্গে ছেং সিং লু বলেন

"আমাদের কৃষিপণ্যগুলো স্থানীয় কৃষকরা উত্পাদন করে। এসব পণ্যের মধ্যে আছে পাম ওয়াইন। কার্ষ্ট এলাকায় রয়েছে ৩ হাজার একর এলাকাজুড়ে পাম বাগান। বাগান থেকে উত্পাদিত পাম দিয়ে স্থানীয় মানুষ ওয়াইন ও প্যাকেটজাত খাবার তৈরি করে। তা ছাড়া, থু জিয়া জাতির বোনা কাপড় এবং জাম্বুরা, আঙ্গুর ও পীচসহ বিভিন্ন ফল থেকে তৈরি সংখ্যালঘু জাতির বিশেষ খাবারও জনপ্রিয় কৃষিপণ্য।"

গত বছর লি পো জেলায় পর্যটকের সংখ্যা ১ কোটি ছাড়িয়ে যায়। লি পোতে পর্যটকরা যেসব খাবার খান, তার সবই স্থানীয়ভাবে উত্পাদন করা হয়। যেমন, ইয়াও পাহাড়ে Pheasant চাষ করা হয়, ২০১৬ সালে যার মূল্য ছিল প্রায় ৫ কোটি ৪০ লাখ ইউয়ান। এটা ইয়াও সান স্থানীয় মানুষের আয়ের প্রধান উত্স। তা ছাড়া, সারা লি পো জেলায় অনেক দরিদ্র গ্রাম জাম্বুরাসহ বিভিন্ন ফল চাষ করে। এর মাধ্যমেও কয়েক শত মানুষ দারিদ্র্যমুক্ত হয়েছেন।

যথাযথ নীতি অনুসরণ করে পর্যটনশিল্পের সার্বিক উন্নয়নে লি পো জেলা দ্রুত সাফল্য পেয়েছে। ২০১৬ সালে ১ কোটিরও বেশি পর্যটক জেলাটি ভ্রমণে আসে, যা আগের বছরের চেয়ে ৪৩.২৩ শতাংশ বেশি। ২০১৬ সালে পর্যটনশিল্পের আয় ছিল ১১০৯ কোটি ৬০ লাখ ইউয়ান, যা আগের বছরের চেয়ে ৬৪.৪৬ শতাংশ বেশি। চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে পর্যটনশিল্পে প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে ৬০ শতাংশের বেশি। গোটা জেলায় ২০ হাজারের বেশি মানুষ পর্যটনসংশ্লিষ্ট কাজের সাথে সম্পৃক্ত এবং ৬০ হাজার মানুষ এ শিল্প থেকে উপকৃত হচ্ছে। লি পো জেলা প্রচারণা বিভাগের প্রধান লেই তা বলেন, চলতি বছর সরকার ৮৮০ কোটি ইউয়ান বিনিয়োগ করে ২২টি প্রকল্প উন্নয়নের মাধ্যমে লি পো জেলার পর্যটনশিল্পকে আরও উন্নত করবে।

(শিশির/আলিম/সুবর্ণা)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040