Web bengali.cri.cn   
হ্যালো চায়না: ৮৪. বাটিক
  2017-07-21 11:11:45  cri


'লা রান' বা বাটিক হচ্ছে মোম ব্যবহার করে কাপড়ের ওপর রঙের ছাপ দেওয়ার প্রায় দু'হাজার বছরের প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী চীনা পদ্ধতি।

এ পদ্ধতিতে কাপড়ে রঙ করা খুবই সহজ। প্রথমেই তরল মোম দিয়ে কাপড়ের ওপর নকশা ফুটিয়ে তোলা হয়। এ কাজে ব্যবহার করা হয় এক ধরনের স্টিলের ছুরি। কাপড়ের ওপর মোমের নকশা আঁকা, রঙের মধ্যে সেটি চুবানো এবং সবশেষে কাপড়টি ধুয়ে পরিষ্কার করার মাধ্যমে শেষ হয় গোটা প্রক্রিয়া।

কাপড়ে রঙ করার এ পদ্ধতি দক্ষিণ-পশ্চিম চীনের সংখ্যালঘু মিয়াও জাতি'র মধ্যে প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম ধরে চলে আসছে। এতে স্থানীয় মানুষের সমৃদ্ধ অনুভব ও জীবনযাপনের বৈশিষ্ট্যময় রীতিনীতি প্রতিফলিত হয়। একে 'প্রাচ্য শিল্পকলার শ্রেষ্ঠ ফুল' হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়ে থাকে।

বাটিকের নকশা বৈচিত্র্যময়, রুচিশীল। এ পদ্ধতিতে নকশাকৃত কাপড় দিয়ে মেয়েদের পোশাক ও বিভিন্ন ধরনের শিল্পকর্ম তৈরি করা যায়। অনেকে শুধু এ ধরনের নকশাকৃত কাপড় কিনে স্রেফ শোভা বাড়ানোর জন্য বাড়ির দেয়ালে ঝুলিয়ে রাখেন। এতে বাড়ির মালিকের রুচিবোধ প্রতিফলিত হয়।

চীনের 'লা রান' বা মোমছাপ নিয়ে একটি প্রাচীন গল্প প্রচলিত আছে। গুল্পটি এমন: মিয়াও জাতি'র এক সুন্দর বালিকা অনেক দিন ধরেই চেষ্টা করে যাচ্ছিল তার কল্পনার রঙে রঞ্জিত একটি কাপড় তৈরি করতে। কিন্তু সে বারবার ব্যর্থ হচ্ছিল। একদিন কাজ করতে করতে সে ভীষণ ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়ল। ঘুম থেকে উঠে সে দেখল, তার কাপড়ের ওপর মোম পড়ে সেটি আরও বিশ্রী হয়ে গেছে।মিয়াও বালিকা উপায়ন্তর না-দেখে কাপড়টিকে আবারও নীলের মধ্যে চুবিয়ে নিল। নীল থেকে সেটি উঠিয়েই বালিকা অবাক! কাপড়ের যেসব জায়গায় মোম পড়েছিল সেসব জায়গায় সুন্দর সাদা নকশা আঁকা হয়ে গেছে! নীল কাপড়ে সাদা নকশা। বালিকা তখন কাপড়ে নকশা আঁকার এক নতুন পদ্ধতি খুঁজে পেল এবং যথারীতি তার স্বজনদের শিখিয়ে দিল। ব্যস, চালু হয়ে গেল 'লা রান' বা বাটিক ব্যবহার করে কাপড়ে নকশা করার ধারা।

আজকাল সংখ্যালঘু মিয়াও জাতি'র মেয়েরা মোমছাপ দিয়ে শুধু কাপড়ে নকশা আঁকার কাজ করে তা নয়, তারা এ পদ্ধতিতে অনেক হস্তশিল্পও তৈরি করে। এসব হস্তশিল্পের কদর বেশি, মূল্যও বেশি।

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040