Web bengali.cri.cn   
চীনের ই জাতির মেং হুও নতুন গ্রাম
  2017-07-18 18:17:30  cri
সুপ্রিয় বন্ধুরা, আপনারা শুনছেন চীন আন্তর্জাতিক বেতার থেকে প্রচারিত বাংলা অনুষ্ঠান 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি'। আর এ অনুষ্ঠানে আপনাদের সঙ্গে আছি আমি আপনাদের বন্ধু ওয়াং ছুই ইয়াং জিনিয়া।

বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে প্রথমে শুনবেন 'মস্কোয় চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ দ্বিভাষিক মোবাইল অ্যাপস প্রকাশিত' শিরোনামে একটি প্রবন্ধ।

'চীন আন্তর্জাতিক বেতার' এবং 'রাশিয়া টুডে নিউজ' আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থার যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ' দ্বিভাষিক মোবাইল অ্যাপস চালু হওয়ার ঘোষণা ৩ জুলাই মস্কোয় চীনা সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে প্রকাশিত হয়।

চীনের প্রচার মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী উপ-মন্ত্রী হুয়াং খুন মিং, চীন-রাশিয়া বন্ধুত্বপূর্ণ, শান্তিপূর্ণ ও উন্নয়নশীল সমিতির রাশিয়া পক্ষের প্রেসিডেন্ট বরিস তিতোভ, চীন আন্তর্জাতিক বেতারের মহাপরিচালক ওয়াং কেং নিয়েন, 'রাশিয়া টুডে নিউজ' আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থার পরিচালক দিমিত্রি কিসেলেভসহ চীন ও রাশিয়ার সরকারি ও সাংস্কৃতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে দেওয়া এক ভাষণে হুয়াং খুন মিং বলেন, চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের রাশিয়ায় রাষ্ট্রীয় সফরের আগে চীন ও রাশিয়ার মিডিয়া সাফল্যের সঙ্গে 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ' দ্বিভাষিক মোবাইল অ্যাপস প্রতিষ্ঠা ও প্রকাশ করে। তা দু'দেশের নতুন মিডিয়ার সহযোগিতার সর্বশেষ ফলাফল। এটি একই সঙ্গে চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের সফর এবং চীন-রাশিয়া বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের এক বিশেষ উপহারও ।। হুয়াং বলেন, 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ' দ্বিভাষিক মোবাইল অ্যাপস হলো দু'দেশের প্রধান মিডিয়ার সম্পদ সংগ্রহ করার একটি সার্বিক নতুন সহযোগিতা।

তিনি বিশ্বাস করেন, দু'দেশের মিডিয়ার চেষ্টা ও সহযোগিতায় আরো বেশি উচ্চ গুণগতমানের সহযোগিতামূলক ফলাফল সৃষ্টি করা যাবে। যাতে চীন-রুশ জনগণের সমঝোতা ও মৈত্রী আরো গভীর হবে।

তিতোভ অনুষ্ঠানে তার ভাষণে বলেন, দু'দেশের নেতাদের নির্ধারিত অভিন্ন 'মিডিয়ার বিনিময় বছর'-র কাঠামোতে, দু'দেশের মিডিয়ার মধ্যে নানান বিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ' দ্বিভাষিক মোবাইল অ্যাপস রাশিয়া-চীন বন্ধুত্বপূর্ণ, শান্তিপূর্ণ ও উন্নয়নশীল সমিতির মিডিয়া কাউন্সিলের গুরুত্বপূর্ণ ফলাফল।

সিআরআই'র মহাপরিচালক ওয়াং কেং নিয়েন অনুষ্ঠানে দেওয়া এক ভাষণে বলেন, 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ' একটি দ্বিভাষিক মোবাইল অ্যাপস হিসেবে, দু'দেশের দ্বিপাক্ষিক তথ্য, দ্বিভাষিক বেতার অনুষ্ঠান, অনুবাদক, ক্রসবর্ডার অনলাইন শপিং, ভ্রমণ তথ্যসহ বিভিন্ন সুবিধাজনক সেবা প্রদান করে। সিআরআই এখন দ্রুত উন্নয়ন করছে। তিনি আশা করেন, দু'দেশের মিডিয়া ও অন্য ক্ষেত্রের অংশীদারদের সঙ্গে গভীর সহযোগিতা চালানো যাবে।

'রাশিয়া টুডে নিউজ' আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থার পরিচালক দিমিত্রি কিসেলেভ চীনা মিডিয়ার প্রযুক্তি উন্নয়নের মান নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের মূল্যায়ন করেন। তিনি বলেন, 'রাশিয়া টুডে নিউজ'ও নিজের তথ্যপ্রযুক্তি ও তথ্যসম্পদের ওপর গুরুত্বারোপ করেছে। সেজন্য সিআরআই'র সঙ্গে সহযোগিতা করে 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ'-র উন্নয়ন ও প্রচার যুগের চাহিদার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ। এটি দুই মিডিয়ার সহযোগিতা উন্নয়নের চাহিদার সঙ্গেও সঙ্গতিপূর্ণ বলে তিনি উল্লেখ করেন।

২০১৬ সালে চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের উপস্থিতিতে 'চীন আন্তর্জাতিক বেতার' ও 'রাশিয়া টুডে নিউজ' আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থার মধ্যে চীন-রাশিয়া মোবাইল মিডিয়াবিষয়ক প্ল্যাটফর্ম প্রতিষ্ঠার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এ চুক্তির একটি গুরুত্বপূর্ণ ফলাফল হলো 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ'। 'চীন-রাশিয়া টুডে নিউজ' মোবাইল অ্যাপস চীন ও রাশিয়ায় এক সাথে চালু হয়।

এবার শুনুন 'চীনের ই জাতির মেং হুও নতুন গ্রাম' সম্বন্ধে একটি প্রবন্ধ।

মেং হুও চীনের একটি প্রাচীন শহর। শহরটির হাজার বছরের ইতিহাস আছে। ভূমিকম্পের কারণে নতুন করে মেং হুও গ্রাম নির্মিত হয়েছে। চীনের সি ছুয়ান প্রদেশের ইয়া আন শহরের সি মিয়েন জেলার লিজি ভিং গ্রামে এ নতুন গ্রামটি অবস্থিত।

২০ এপ্রিল লু সান ভূমিকম্পের পর নতুন করে গ্রামটি নির্মিত হয়েছে। এখানে ১২০টিরও বেশি পরিবার রয়েছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এ ই জাতি নতুন গ্রাম উন্নয়নের নতুন ধারণা পালন করে। এতে তারা জাতির বৈশিষ্ট্য কাজে লাগিয়ে গ্রামের সুন্দর প্রাকৃতিক দৃশ্য ও লোকসংস্কৃতির মাধ্যমে দারিদ্র্য থেকে বেরিয়ে সমৃদ্ধ জীবনে প্রবেশ করে।

আগে ইয়া আন থেকে মেং হুও নতুন গ্রাম পর্যন্ত যেতে কয়েকদিন সময় লাগতো। কিন্তু ইয়া আন-তিব্বত হাইওয়ে চালু হওয়ার পর ইয়া আন থেকে মেং হুও নতুন গ্রাম পর্যন্ত যেতে ৪-৫ ঘণ্টার মত সময় লাগে।

পরিবহনের সুবিধা কারণে এখন এখানে অনেক বেশি পর্যটক ‌আসছে। জেলা ও গ্রাম সরকারের সমর্থনে মেং হুও নতুন গ্রামের সুযোগ ধরে জোর দিয়ে পর্যটন শিল্প উন্নয়ন করেছে। বিশেষ করে প্রাকৃতিক পর্যটন শিল্প। এ ছাড়া, অর্থনৈতিক ও পরিবেশগত সুবিধার উন্নয়নও বাস্তবায়ন করেছে।

লিজি ভিং গ্রামের মেয়র লি জি হুয়া বলেন, "ইয়া আন-তিব্বত হাইওয়ে চালু হওয়ার পর আরো বেশি লোক এখানে ভ্রমণ করে। পর্যটকদের কারণে আমাদের স্থানীয় নাগরিকদের মনোভাবে অনেক পরিবর্তন এসেছে। যেমন- সবসময় আমরা মনে করি যে, অর্থনৈতিক সুবিধা ও পরিবেশগত সুবিধা একই গুরুত্বপূর্ণ।"

পাহাড়ি সম্পদ মেং হুও গ্রামের গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন সম্পদ। এ ভিত্তিতে ২০১৫ সাল থেকে গ্রামের অবকাঠামো ব্যবস্থার উন্নয়ন করে বৈশিষ্ট্যময় পর্যটন সেবা দিতে শুরু করে। মেং হুও গ্রামের পাহাড়ে অনেক নতুন নতুন দু'তলার বাড়িঘর নির্মিত হয়েছে। বাড়িঘরগুলোতে স্পষ্টভাবেই ই জাতির বৈশিষ্ট্য আছে। যেমন দেয়ালের বাইরের দিকে অনেক কারূশিল্প আছে। ই জাতির প্রথাগত উৎসব ও কাল্পনিক এবং পৌরাণিক কাহিনী অনুযায়ী দেয়ালে বৈশিষ্ট্যময় ভাস্কর্য আঁকা হয়।

লি বলেন,"সংশ্লিষ্ট সেবা ব্যবস্থায় গ্রামের সম্পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। যেমন মহাচত্বর বা অন্য অবকাঠামো ব্যবস্থা। অন্যদিকে গ্রামবাসীরা যথেষ্ট শিক্ষা পায়নি বলে সরকার গ্রামবাসীদের পর্যটনবিষয়ক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে।"

গ্রামের পর্যটন শিল্প উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে অনেক গ্রামবাসী প্রশিক্ষণের পর আরো ভালোভাবে সংশ্লিষ্ট পর্যটনবিষয়ক সেবা ব্যবসা শুরু করে। যেমন ই জাতির বৈশিষ্ট্যময় বাড়িঘরের মাধ্যমে পর্যটকরা স্থানীয় জাতির দৈনন্দিন জীবন উপভোগ করতে পারে।

ওয়াং ছিয়ং ইং আগে অন্য একটি জায়গায় কাজ করতেন। জন্মস্থানের পরিবর্তনের কথা শুনে তিনি গ্রামে আসেন এবং গ্রামের উন্নয়নে অবদান রাখেন। তার ব্যবসা 'ই জাতির বৈশিষ্ট্যময় সুখী জীবন'-এর সাথে যুক্ত।

তিনি বলেন, তার ব্যবসায় গ্রাম সরকার অনেক সহায়তা দিয়ে থাকে।

ওয়াংয়ের 'ই জাতির বৈশিষ্ট্যময় সুখী জীবন' একই সময়ে ৫০জন পর্যটককে সেবা দিতে পারে। কিন্তু পর্যটক সংখ্যা দিন দিন বেড়ে যাওয়ার কারণে ওয়াং চলতি বছর ব্যবসার মাত্রা বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছেন।

গ্রামবাসীরা এখন ওয়াংয়ের কাছ থেকে তার অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে চায়। বর্তমানে গ্রামটিতে এ ধরনের অনেক ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে।

মেং হুও নতুন গ্রামে এখন উন্নয়নের নতুন শক্তি দেখা দিয়েছে। অনেক গ্রামবাসীর জীবন বদলে গেছে। তাদের জীবনে ফিরে এসেছে সুখ, শান্তি, আনন্দ। নতুন প্রজন্মের গ্রামবাসীরা এখন গ্রামে থাকতে চায় এবং গ্রামের উন্নয়নে কাজ করে যেতে চায় অবিরাম।

প্রিয় শ্রোতা, আজকের অনুষ্ঠান আপনাদের কেমন লাগলো? আপনারা যদি 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি' বিষয়ক কোনো কিছু জানতে বা আলোচনা করতে চান, তাহলে আমাকে চিঠি লিখবেন বা ই-মেইল করবেন। আপনাদের কাছ থেকে চমত্কার পরামর্শ আশা করছি। আর আপনাদের জানিয়ে রাখি, আমার ইমেইল ঠিকানা হলো, hawaiicoffee@163.com

চিঠিতে প্রথমে লিখবেন, 'সাহিত্য ও সংস্কৃতি' অনুষ্ঠানের 'প্রস্তাব বা মতামত'। আপনাদের চিঠির অপেক্ষায় রইলাম।

বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠান এখানেই শেষ করছি। শোনার জন্য অনেক ধন্যবাদ। আগামী সপ্তাহে একই দিন, একই সময় আপনাদের সঙ্গে আবারো কথা হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। চাইচিয়ান। (জিনিয়া/টুটুল)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040