Web bengali.cri.cn   
সুর ও বাণী: কুই লিনের অদ্বিতীয় সৌন্দর্য
  2017-06-01 17:20:48  cri


প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, আপনারা চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা অনুষ্ঠান শুনছেন। আমি আনন্দী বেইজিং থেকে আপনাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আজকের 'সুর ও বাণী' আসরে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো চীনের কুয়াংশি চুয়াং জাতি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের পর্যটননগর কুই লিনের সাথে, শোনাবো এ শহরসম্পর্কিত কয়েকটি গান।

বন্ধুরা, প্রথমে শুনুন বিখ্যাত কণ্ঠশিল্পী লি গু ই'র গাওয়া 'কুই লিনকে মিস করা' গানটি। তিনি গেয়েছেন: "ছি সিং ইয়ান হচ্ছে পাহাড়ের প্রাসাদ। লু তি ইয়ান হচ্ছে পানি দিয়ে তৈরি রঙিন মেঘ। কুই লিন, তুমি আমার স্বপ্নের নগর। কুই লিন, তুমি আমার প্রেম।'

কুই লিন চীনের কুয়াং শি চুয়াং জাতি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলে অবস্থিত। এ শহরটি হচ্ছে চীনের গুরুত্বপূর্ণ উচ্চ প্রযুক্তি শিল্পকেন্দ্র। এটি ইউরেশিয়া ও আসিয়ানকে চীনের সাথে সংযুক্ত করেছে। এটি আঞ্চলিক সংস্কৃতির জন্য বিখ্যাত একটি আদর্শ পর্যটননগর। এটি 'এক অঞ্চল, এক পথ' উদ্যোগসংশ্লিষ্ট দেশ ও অঞ্চলকে সংযুক্ত করার এক পরিবহনকেন্দ্রও বটে। জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থার এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরের পর্যটন সমিতির পর্যটন প্রবণতা ও ভবিষ্যত সম্ভাবনাসংক্রান্ত আন্তর্জাতিক ফোরাম এবং চীন-আসিয়ান পর্যটন মেলা সবসময় এ নগরে আয়োজিত হয়।

বন্ধুরা, এবার শুনুন 'কুই লিন আমার বাড়ি' শীর্ষক গান। গেয়েছেন রো নিং না।

কুই লিন চীনের প্রথম পর্যায়ের জাতীয় ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক নগর। আজ থেকে দশ হাজার বছর আগেও এখানে মানুষের বসবাস ছিল। গণপ্রজাতন্ত্রী চীন প্রতিষ্ঠার আগে কুই লিন কুয়াংশি প্রদেশের রাজধানী ছিল। কুই লিন চীনের প্রথম প্রাদেশিক রাজধানী যেটি জাপানি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রথম রুখে দাঁড়ায়। তা ছাড়া, এটি প্রথম প্রাদেশিক রাজধানী যেটি চীনা সেনাবাহিনী আগ্রাসী বাহিনীর হাত থেকে উদ্ধার করে। এ শহরকে জাপানি আগ্রাসনবিরোধী যুদ্ধের সাংস্কৃতিক কেন্দ্র বলা হতো।

কুই লিন প্রাচীনকাল থেকেই চীনের প্রাকৃতিক পর্যটনের বিখ্যাত নগর। ২০১৪ সালের জুন মাসে দক্ষিণ চীনের কার্স্ট ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্যের প্রতিনিধি হিসেবে কুই লিনের নদনদী ও পাহাড়কে ইউনেস্কো 'বিশ্ব প্রাকৃতিক ঐতিহ্য তালিকায়' অন্তর্ভুক্ত করে। ২০১৬ সাল পর্যন্ত কুই লিন মোট ১৬০টির বেশি দেশের নেতৃবৃন্দকে অভ্যর্থনা জানিয়েছে। চীনের বিভাগ পর্যায়ের শহরগুলোর মধ্যে কুই লিনে যাওয়া বিদেশি পর্যটকের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। ২০১২ সালের নভেম্বরে চীনের জাতীয় উন্নয়ন ও সংস্কার কমিশন 'কুই লিনের আন্তর্জাতিক দর্শনীয় স্থান উন্নয়ন পরিকল্পনা' অনুমোদন করে। এতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০২০ সাল নাগাদ কুই লিন বিশ্ব পর্যায়ের পর্যটনশহর হিসেবে গড়ে উঠবে।

বন্ধুরা, এবার শুনুন ফিনিক্স লেজেন্ডের গাওয়া 'কুই লিনের সৌন্দর্য' শীর্ষক গান।

কুই লিন বহু জাতিঅধ্যুষিত শহর। এখানে চুয়াং, হুই, মিয়াও, ইয়াও ও থোংসহ (壮、回、苗、瑶、侗) ২৮টি সংখ্যালঘু জাতির মানুষ বসবাস করেন। তারা চীনা জাতির গভীর সাংস্কৃতিক পরিবেশে নিজেদের বৈশিষ্ট্যপূর্ণ রীতিনীতি বজায় রেখেছেন এবং নিজ নিজ জাতিগত উত্সবও পালন করেন। তাদের পোশাক, খাদ্য, ধর্মবিশ্বাস ও ভাষা ভিন্ন। এটা বিশেষ করে বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় একটি ব্যাপার।

চুয়াং জাতির কথা বলতে গিয়ে লিউ সান চিয়ের নাম উল্লেখ না-করলে অন্যায় হবে। লোককাহিনীতে লিউ সান চিয়ে চুয়াং জাতির একজন অসাধারণ গায়িকা। তিনি খুব মেধাবী, যে-কোনো বিষয় নিয়ে গান গাইতে পারেন। তাকে 'গানের পরী' বলা হয়। প্রতিবছরের ৩ মার্চ গানের উত্সবে সবাই গান গেয়ে তাকে স্মরণ করেন। বন্ধুরা, শুনুন লিউ সান চিয়েসম্পর্কিত একটি গান। গানের নাম 'গাইতে চাইলে গান গাই'।

কুই লিনে গেলে লি চিয়াং নদী দেখতে ভুলবেন না যেন! লি চিয়াং কুয়াং শি চুয়াং জাতি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত। এ নদীর দৈর্ঘ্য ৪৩৭ কিলোমিটার। লি চিয়াংয়ের উত্সস্থল হচ্ছে মাও এর শান।মাও এর শানের প্রাকৃতিক পরিবেশ অত্যন্ত ভালো। এখানকার বাতাস পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন; এখানে আছে বিস্তৃত বনাঞ্চল। কুই লিনের কথা ভাবলে চীনাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে লি চিয়াংয়ের দৃশ্য। লি চিয়াংয়ে এক ধরনের 'জলপাথর' উত্পাদিত হয়। এ পাথর কেবল লি চিয়াং নদীতে পাওয়া যায়; আকার ক্ষুদ্র ও বিস্ময়কর এবং দেখতে খুব সুন্দর। আলোর নিচে তা দেখতে উজ্জ্বল লাগে। বন্ধুরা, এবার শুনুন 'লি চিয়াংয়ের গান'। গেয়েছেন তোং লি।

কুই লিনে অনেক ধরনের স্থানীয় খাবার আছে। এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে নামকরা ও জনপ্রিয় খাবার অবশ্যই 'কুইলিনের চাল নুডলস'। স্থানীয় লোকেরা সকাল, দুপুর ও রাত—তিন বেলাতেই এ 'চাল নুডলস' খেতে পছন্দ করেন। চাল নুডলস দেখতে সাদা রঙের, খুব নরম। বিভিন্ন রেস্তোরাঁ ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের নুডলস্‌ রান্না করে। এ চাল নুডলসের মধ্যে মাংস, ডিম, সবজিসহ অনেক উপাদান মেশানো যায়। আপনি আপনার পছন্দমাফিক টক বা ঝাল মশলা যোগ করতে পারেন। একটি বড় বাটির কুই লিন চাল নুডলস খাওয়ার পর আপনার শরীর অবশ্যই ঘামবে।

বন্ধুরা, শুনুন ইয়া তাং তাংয়ের গাওয়া 'লি চিয়াং নদীতে ওসমানথুস  ফুলের সুগন্ধ ছড়াই' শীর্ষক গান।

কুই লিন বর্তমানে পর্যটন, বিনোদন, বৈদেশিক বিনিময়সহ ৮ ধরনের শিল্পে সমৃদ্ধ। ২০১১ সালে কুই লিন 'চীনের শ্রেষ্ঠ সাংস্কৃতিক নগর' খেতাব অর্জন করে।

চীনের অনেক বিখ্যাত চিত্রকর কুইলিন এসে আনন্দে আত্মহারা হয়ে সেখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য তাদের আঁকা ছবিতে তুলে ধরেছেন। বিশেষ করে কুয়াং শি প্রদেশের চিত্রকররা 'লি চিয়াং নদীর দৃশ্য' এঁকে ধাপে ধাপে নিজস্ব আলাদা স্টাইল সৃষ্টি করেছেন।

বন্ধুরা, অনুষ্ঠানের শেষে শুনুন 'কুই লিনের সুন্দর নদনদী ও পাহাড়' শীর্ষক গান। গেয়েছেন ইয়ু জুন চিয়ান।

প্রিয় বন্ধুরা, এতোক্ষণ আপনারা দর্শনীয় শহর কুই লিন সম্পর্কে কিছু তথ্য জানলেন, শুনলেন এ শহরসম্পর্কিত কয়েকটি গান। আশা করি, সুযোগ পেলে আপনারা কুইলিনে ভ্রমণে আসবেন। তো, 'সুর ও বাণী' আসর আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। এতোক্ষণ সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন সবাই। আবার কথা হবে। (ইয়ু/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040