Web bengali.cri.cn   
সুর ও বাণী: গায়ক
  2017-02-08 19:23:22  cri


'আমি গায়ক' হলো চীনের হুনান প্রদেশের টেলিভিশন কেন্দ্রে প্রচারিত দক্ষিণ কোরিয়া থেকে আমদানি করা সংগীত অনুষ্ঠান বা রিয়ালিটি শো। প্রত্যেক পর্বে সাত জন নামকরা শিল্পী গানের প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। ২০১৩ সালের জানুয়ারি মাসে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর টানা পাঁচ বছর ধরে প্রতিযোগিতাটি চলছে। এ বছরের ২১ জানুয়ারিতে এ প্রতিযোগিতা 'গায়ক' নামে আবারও শুরু হয়েছে।

থান চিং

বন্ধুরা, আপনারা শুনছেন গায়িকা থান চিংয়ের কণ্ঠে 'নয়' নামের গান। থান চিং 'প্রাচ্যের সারাহ ব্রাইটমান' নামে সুপরিচিত। তিনি লোকসংগীত, বেল কান্টো ও পপ সংগীত গাইতে পারেন। এমন কি তিনি রক, গীতিনাট্য আর অপেরাও অভিনয় করতে পারেন। চলতি বছর 'গায়ক' প্রতিযোগিতায় তিনি 'নয়' নামে গানটি গেয়ে দর্শকদের মন জয় করেন। তার গান শুনে মনে হয়, 'গায়ক' মঞ্চে বসে আছেন। সবাই তার গানের তালে তালে গত শতাব্দীর সত্তর ও আশির দশকে ফিরে যান।

বর্তমানে চীনের টেলিভিশন কেন্দ্রে অনেক ধরনের গানের প্রতিযোগিতা হয়ে থাকে। কিন্তু এ অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে 'গায়ক' এর মর্যাদা অনেক ওপরে। কোনো অনুষ্ঠান এর স্থান দখল করতে পারেনি। কারণ, এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী গায়ক গায়িকা শুধু চীনের নয়, পুরো এশিয়া থেকে সেরা কণ্ঠশিল্পীরা আমন্ত্রণ পেয়ে গান পরিবেশন করেন। এ অনুষ্ঠানের ভবিষ্যত লক্ষ্য বিশ্ব পর্যায়ে গান প্রতিযোগিতার আয়োজন করা।

ডিমাশ কুদায়বের্গেন

বন্ধুরা, এখন আপনারা শুনছেন কাজাখন্তানের গায়ক ডিমাশ কুদায়বের্গেনের কণ্ঠে 'অপেরা ২' নামের গান। চীনা দর্শকদের কাছে ডিমাশ একেবারেই অপরিচিত। তবে কাজাখস্তানে তিনি বেশ বিখ্যাত। তার কণ্ঠস্বর আকর্ষণীয়। এ কণ্ঠকে একেবারে 'খোদা প্রদত্ত কণ্ঠ' বলা যায়। তিনি এ অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার পর টানা দু'বার প্রথম স্থান দখল করেন।

'গায়ক' প্রতিযোগিতার মঞ্চ গায়ক ও গায়িকাদের জন্য অনেক আকর্ষণীয়। সেখানে প্রথম শ্রেণীর বাদক দল আছে, আলোর ব্যবস্থা আছে, সংগীত পরিচালক আছে। প্রতি পর্বে গায়কদের চমত্কার পরিবেশনা দর্শকরা খুব উপভোগ করেন। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে চীনের সাধারণ দর্শক কিছু অচেনা শিল্পীর সঙ্গে পরিচিত হতে পারেন।

তেরেসা কার্পিও

বন্ধুরা, এখন শুনুন হংকংয়ের গায়িকা ও অভিনেতা তেরেসা কার্পিও'র গাওয়া 'ইমাজিন' নামের গানটি। বিস্ময়ের ব্যাপার হলো, এখন তার বয়স ৬১ বছর। তিনি ৩০ বছর ধরে গান করছেন। তিনি অদ্বিতীয় 'সংগীত শিক্ষিকা' হিসেবে সবার কাছে সম্মানিত। তার মুখ দেখে, তার গান শুনে কোনোভাবে বোঝা যায় না যে, তার বয়স ষাটের ওপর!

যদিও 'গায়ক' অনুষ্ঠানের শিল্পীরা সবাই আগে থেকে বিখ্যাত। তারপরও এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে বিশেষ সাহসের দরকার হয়। কারণ প্রতিযোগিতার নিয়ম বেশ কড়া। প্রতিযোগিতায় মোট ১৪টি পর্ব আছে। প্রতি দুই পর্বে লড়াই করার পর দর্শকদের ভোট অনুসারে শেষ ব্যক্তি বাতিল হয়ে যায়। অর্থাত পর্যাপ্ত ভোট না পেলে চলে যেতে হয়। তখন সবারই মন খারাপ হয়ে যায়। কিন্তু এটাই হলো প্রতিযোগিতা।

টিয়া রায়

বন্ধুরা, এখন আপনারা শুনছেন টিয়া রায়-এর গাওয়া গান 'আছু নামের মেয়ে' । এ গানটি তার প্রতিনিধিত্বশীল কর্ম। সরল পিয়ানোর সুরে তিনি আছু নামের একটি মেয়ের প্রেমের গল্প বর্ণনা করেন। তিনি ছোট বেলায় স্বদেশ ত্যাগ করেছেন, বড় হওয়ার পর সবসময় দেশে ফেরার চিন্তা করেন। গানটি সত্যিই মনোমুগ্ধকর।

বন্ধুরা, টিয়া রায়ের গান 'আছু নামের মেয়ে' আপনাদের কেমন লাগলো? এ গানটি কিন্তু আমার খুব পছন্দের। তবে পরিতাপের বিষয় হলো, টিয়া 'গায়ক' প্রতিযোগিতার মঞ্চে থাকতে পারেননি। তিনি তৃতীয় পর্বে হেরে চলে যান। কারণ, এ অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া অন্যান্য শিল্পীরা খুব ভালো পরিবেশনা করেছেন।

সান্ডি ল্যাম

বন্ধুরা, এবার শুনুন সান্ডি ল্যামের গাওয়া 'আমি কে, ভাববেন না' নামের গান। সান্ডির বয়স ৫১ বছর। অথচ দেখতে চল্লিশ বছর বলে মনে হয়। তিনি চীনা সংগীত মহলে ৩০ বছর ধরে জনপ্রিয় এক চিরহরিত্ শিল্পী। তিনি শত শত গানে শহরের নারীদের জীবন তুলে ধরেছেন। এবারের প্রতিযোগিতায় তিনি 'আমি কে, ভাববেন না' গানটি বাছাই করেছেন। গানটি লিখেছেন তার সাবেক স্বামী। গানে তাদের প্রেমের অনুভূতিও প্রকাশ পেয়েছে।

'গায়ক' প্রতিযোগিতার পরিচালক হলেন হোং থাও। তিনি বলেন, 'এখন টেলিভিশনের বিনোদন অনুষ্ঠানগুলো ব্যাপকভাবে আত্মীকরণ হয়েছে। অনুষ্ঠানে উদ্ভাবনী দিক না থাকলে দর্শকরা সহজে তা পছন্দ করেন না। ফলে আমরা এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গায়ক গায়িকাদের নিজ কণ্ঠকে এক মঞ্চে তুলে ধরেছি এবং আমারা সফল হয়েছি।'

বন্ধুরা, এখন শুনুন তাইওয়ানের গায়ক কুয়াং লিয়াংয়ের 'অন্যজনের কাঁধে কেঁদো না' গানটি। কুয়াং লিয়াং কেবল গায়ক নন, তিনি সুরকার, গীতিকার, সঙ্গীত প্রযোজক এবং অভিনেতা। তার কণ্ঠস্বর পরিষ্কার এবং চমত্কার।

বন্ধুরা, এতক্ষণ আমি আপনাদের জন্য 'গায়ক' নামের গান প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের কয়েকটি গান শুনিয়েছি। এ প্রতিযোগিতা এখনো চলছে। অবশ্যই পরবর্তী পর্বে আরও কিছু সুন্দর গান পরিবেশিত হবে। সে গানগুলো আমাকে মুগ্ধ করলে ভবিষ্যতে আপনাদের তা শোনাবো। অনুষ্ঠান শেষে শুনুন তাইওয়ানের সিংহ ব্র্যান্ডের পরিবেশিত 'তুমি আমার পছন্দের মেয়ে' নামের গান।

প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, এতক্ষণ আপনারা সুর ও বাণী আসর শুনলেন। অনুষ্ঠানটি শোনার জন্য ধন্যবাদ। ভালো থাকুন সবাই। আবার কথা হবে।

(ইয়ু/তৌহিদ)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040