Web bengali.cri.cn   
সুর ও বাণী: চীনের গীতিকার ফু খ্য
  2017-01-25 21:30:15  cri


প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, আপনারা চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা অনুষ্ঠান শুনছেন। আমি আনন্দী বেইজিং থেকে আপনাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আজকের সুর ও বাণী আসরে চীনের গীতিকার ফু খ্য এর সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরব এবং শোনাবো তার কয়েকটি গান।

ফু খ্য

বন্ধুরা, প্রথমে শুনুন 'তোমার জন্য' নামের গান। গেয়েছেন চেন মিং। এ গানের কথা লিখেছেন এবং সুর করেছেন ফু খ্য। তিনি লিখেছেন, 'শহরের কোলাহল ছাপিয়ে, শীতল মনের দেওয়াল খুলে দাও। আমরা বাতাসের মতো বিশ্বের সব বাধা পার হব। আমার স্নেহে তোমাকে সান্ত্বনা দেবো।

বন্ধুরা, ফু খ্য চীনের একজন নামকরা গীতিকার। তিনি গানের কথা লিখেন, সুর করেন, ভালো গানও গাইতে পারেন। তিনি চীনের পপ সংগীত মহলের 'দশক কৃতিত্ব পুরস্কার', কুয়াংতোং প্রদেশের সংস্কার ও উন্মুক্তকরণের বিশ বছর সংগীত পুরস্কার, চীনের প্রচার মন্ত্রণালয়ের 'পাঁচটি এক' প্রকল্প পুরস্কারসহ সংগীত জগতের অনেক পুরস্কার পেয়েছেন।

চেন মিং

ফু খ্য'র তিনটি সবচেয়ে জনপ্রিয় গান 'তোমার জন্য', 'আনন্দময় স্বদেশ' আর 'সুদূরের ডাক'-এর মধ্যে সিনচিয়াংয়ের লোকসংগীতের প্রভাব রয়েছে। এ কয়েকটি গান গেয়ে গায়িকা চেন মিং দ্রুত চীনা শ্রোতাদের কাছে জনপ্রিয়তা পান। বন্ধুরা, এখন শুনুন ফোং ফাংয়ের গাওয়া 'সুদূরের ডাক' নামের গান। গানে বলা হয়েছে, 'চাঁদ আকাশে উঠলে জ্যোত্স্না ছড়িয়ে পড়ে। তা দেখে প্রেমিকের কথা মনে পড়ে। সুদূরের ডাক শুনে মানুষের চোখের জল পড়ে। আজ রাতে কেউ ঘুমাতে পারে না।'

বন্ধুরা, ফু খ্য একবার চীনের সংগীতজ্ঞ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে কুইচৌ সফরে যান। তিনি কুইচৌর প্রায় সবগুলো বিখ্যাত গ্রামে গিয়েছেন এবং কুইচৌয়ের সংখ্যালঘু জাতির রীতিনীতি দেখেছেন। সেখানকার নদনদী ও পাহাড়ের দৃশ্য তাকে খুব মুগ্ধ করে। কুইচৌ থেকে ফিরে তিনি 'মিয়াও জাতির গ্রামে মাতাল হয়েছে'সহ অনেক গান লিখেছেন। বন্ধুরা, এখন শুনুন মিয়াও জাতির গায়িকা আয়োতুর গাওয়া 'মিয়াও জাতির গ্রামে মাতাল হয়েছে' গানটি। গানে মিয়াও গ্রামবাসীদের জীবন তুলে ধরা হয়েছে।

আয়োতু

ফু খ্য হোনান প্রদেশের এক কৃষক পরিবারের ছেলে। তার পুরো পরিবারে কেউ সংগীতের সঙ্গে জড়িত ছিল না। যখন তিনি গ্রামে ছিলেন, তখন বাদ্যযন্ত্র বলতে চীনের ঐতিহ্যবাহী আরহু আর বাঁশি সম্পর্কে জানতেন। ১৯৮২ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর তিনি আনন্দের সাথে গিটার, বেহালাসহ অনেক বাদ্যযন্ত্র দেখেন। ক্যাম্পাসে তিনি কিছু পপ সংগীত লিখেন, এরপর তিনি একটি ব্যান্ড দলে যোগ দিয়ে কুয়াংতোং ও ফুচিয়ান প্রদেশের নানা জায়গায় গিয়ে গান পরিবেশন করেন। তিনি অবিরাম গান লিখতেন এবং আশা করতেন ব্যান্ডের বন্ধুরা তার গান গাইবেন। কিন্তু ফু খ্য একজন অন্তর্মুখী ব্যক্তি। নিজের গান প্রচার করা তার জন্য খুব কঠিন কাজ ছিল। ফলে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হওয়ার পর টানা নয় বছর ধরে খুব কষ্টে সময় কাটাচ্ছিলেন।

বন্ধুরা, এখন শুনুন ফু খ্যর গাওয়া 'পশ্চিম দিকে যাওয়ার পথে' নামের গানটি। এ গানে তিনি জীবনের প্রতি তার গবেষণা ও চিন্তাধারা যোগ করেছেন। তার গানে একাকীত্বের সুর শোনা যায়। তিনি গেয়েছেন, 'আমরা পশ্চিম দিকের পথে দৌড়াচ্ছি। আমরা সুন উ খোং নই, আমাদের হাতে সুবর্ণ গদাও নেই। আমরা থাং রাজবংশের সন্ন্যাসীও নই। আমরা যৌবন থেকে বৃদ্ধাবস্থা পর্যন্ত হাঁটি, আমরা অন্ধকার থেকে দিনের আলো পর্যন্ত হাঁটি। যে কোনো স্থানে আমি একই রকম। আমার বাম হাতে আনন্দ, ডান হাতে বেদনা। আমার সব অনুভূতি পথে রয়েছে।'

ফু খ্য বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক পাসের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিদ্যার শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। কিন্তু তিনি শিক্ষকতার দায়িত্ব ভুলে ব্যান্ড দলের সঙ্গে নানা জায়গায় ঘুরে গান পরিবেশন করতে থাকেন। অনেকে তা দেখে দুঃখ প্রকাশ করে। কারণ এক কৃষকের সন্তান বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়ার সুযোগ পাওয়া আর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়া সহজ নয়। কিন্তু তিনি কেন এমন দুর্লভ সুযোগের কোনো মূল্য দেন না! তিনি নিজেও ভাবতে পারেননি, একবার তিনি গান পরিবেশনের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে পদচ্যুতির পত্র পান। তার বেতন বন্ধ হয়ে যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বাসস্থানে থাকার সুযোগ হারান, তার খাওয়া ও থাকার বড় সমস্যা তৈরি হয়। তখন থেকে তিনি ঘন ঘন বাসা বদল শুরু করেন। এমন কি তিনি এক বাক্স ইনস্ট্যান্ট নুডলস দিয়ে দু'এক সপ্তাহ কাটতেন। কিন্তু এমন অবস্থা হলেও তিনি সিদ্ধান্ত নেন, যে কোন মূল্যে তিনি সংগীত সৃষ্টি করে যাবেন। অবশেষে তিনি সফল হয়েছেন।

বন্ধুরা, এবার শুনুন 'সুখ দীর্ঘস্থায়ী হবে' নামের গান।

ফু খ্যর সৃষ্ট 'সুখ দীর্ঘস্থায়ী হবে' আর 'চাঁদের মেয়ে'সহ চীনের উপাদানযুক্ত গানগুলো মুক্ত হওয়ার পর শিগগির তা বাজারের স্বীকৃতি পায় এবং তার গানগুলোকে নতুন মর্যাদা দেওয়া হয়। তিনিও চীনের নতুন লোকসংগীতের প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিতে পরিণত হন। কারণ তিনি মনে করেন, ব্যাপক জনপ্রিয় গান লিখতে হলে চীনা গান লিখে খ্যাতি অর্জন করতে হবে। নতুন লোকসংগীতও বিশ্বের সংগীত।

এখন শুনুন থান চিংয়ের গাওয়া 'প্রেমের জন্য সব আরও সুন্দর হোক' গানটি।

থান চিং

বন্ধুরা, আপনারা চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা অনুষ্ঠান শুনছেন। এতক্ষণ চীনের গীতিকার ফু খ্যর সংক্ষিপ্ত পরিচয় দিয়েছি এবং তার কয়েকটি গান শুনিয়েছি। ১৯৯৬ সালে তার সৃষ্ট 'তোমার জন্য' গানটি চীনের জাতীয় এমটিভি প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক পায়। ১৯৯৭ সালে তার সৃষ্ট 'আনন্দময় স্বদেশ' গানটি সেরা চীনা গান হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হয়। তখন থেকে চীনের পপ সংগীতের ইতিহাসে ফু খ্য'র সবসময় নাম উচ্চারিত হয়ে আসছে।

বন্ধুরা, অনুষ্ঠানের শেষে শুনুন 'সুন্দর নতুন বিশ্ব' নামের গান। গেয়েছেন ওয়াং লি হোং এবং ইয়ু ছুয়ান।

প্রিয় বন্ধুরা, আজকের সুর ও বাণী আসর এ পর্যন্তই। এ অনুষ্ঠানটি শোনার জন্য ধন্যবাদ। সবাই ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন। আবার কথা হবে।

(ইয়ু/তৌহিদ)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040