Web bengali.cri.cn   
সুর ও বাণী: চীনের বিখ্যাত বেহালাবাদক লিউ সি ছিং
  2016-09-28 20:54:07  cri


বন্ধুরা, এখন আপনারা শুনছেন চীনের বেহালাবাদক লিউ সি ছিংয়ের বাজানো 'সিনচিয়াংয়ের বসন্তকাল' নামে সুর। চীনের সুরকার মা ইয়াও সিয়ান আর লি চোং হান ১৯৫৬ সালে এ সুর সৃষ্টি করেন। সুরটিতে সিনচিয়াংয়ের উইগুর জাতির সংগীতের স্পষ্ট ভাব রয়েছে। সুরে অঞ্চলটির জনগণের আনন্দময় জীবন প্রতিফলিত হয়েছে।

লিউ সি ছিং ১৯৬৯ সালের ২৬ নভেম্বর চীনের শানতোং প্রদেশের ছিং তাও শহরে জন্মগ্রহণ করেন। চার বছর বয়স থেকে তিনি বেহালা বাজাতে শেখেন। ১৯৭৭ সালে তিনি চীনের কেন্দ্রীয় সংগীত ইনস্টিটিউটে ভর্তি হন। ১৯৮৭ সালে তিনি 'পাগানিনি' আন্তর্জাতিক বেহালা প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক পান। তিনি হলেন বিশ্বে বেহালা শিল্পের সর্বোচ্চ পুরস্কার ইতালির 'পাগানিনি' স্বর্ণপদক বিজয়ী প্রথম এশীয় শিল্পী।

বন্ধুরা, এবার শুনুন লিউ সি ছিংয়ের বাজানো 'স্বদেশে ফেরার আকুলতা' নামে সুর।

লিউ সি ছিং হলেন চীনের কেন্দ্রীয় সংগীত ইনস্টিটিউটের ইতিহাসে সবচেয়ে অল্পবয়সী ছাত্র। তাকে 'সংগীত মহলের বিস্ময়কর শিশুপ্রতিভা' বলে অভিহিত করা হয়। ১৯ বছর বয়সে তিনি নিউইয়র্ক জুলিয়ার্ড স্কুলে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেন। তিনি চীন, ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশে নানা আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় পুরস্কার লাভ করেন। তিনি আমন্ত্রণক্রমে বেইজিং সিম্ফনি অর্কেস্ট্রা, খুনমিং সিম্ফনি অর্কেস্ট্রার একক বাদক এবং হংকংয়ের নাসোস সংগীত কেন্দ্রের বেহালা বিভাগের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

বন্ধুরা, এবার শুনুন লিউ সি ছিংয়ের বাজানো 'শরত্কাল' নামে সুর। এটি ইতালির সুরকার অ্যান্টোনিও লুসিও ভিভাল্দির বিখ্যাত সংগীতকর্ম 'চার ঋতু' এর একটি অংশ। সুরটিতে শরত্কালে কৃষকদের ফসল ঘরে তোলার পর একসাথে মদ উদযাপনের দৃশ্য বর্ণিত হয়েছে।

ছোটবেলায় লিউ সি ছিংয়ের স্বপ্ন ছিলো একজন অভিনেতা হওয়া। তখন 'বাচ্চা বেহালাবাদক' নামে একটি চলচ্চিত্রে একজন বাচ্চা অভিনেতা দরকার ছিলো। তারা লিউ সি ছিংয়ের স্কুলে এসে তাকে এ চলচ্চিত্রে অভিনয় করার অনুরোধ জানান। কিন্তু সে সময় ইসাক স্টার্ন নামে একজন মার্কিন বেহালাবাদক চীন সফর করেন। তিনি লিউ সি ছিংয়ের বাজানো সুর শুনে খুব প্রশংসা করেন। তিনি কেন্দ্রীয় সংগীত ইনস্টিটিউটের শিক্ষকদের সঙ্গে আলাপ করার সময় জানতে পারেন, লিউ সি ছিং চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাবেন। তিনি বলেন, 'এটি তার জন্য ভালো হবে না। তাকে মনোযোগ দিয়ে বেহালা চর্চা করা উচিত।' ফলে তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে পারেন নি। কিন্তু এ বিশ্ব একজন প্রশংসনীয় বেহালাবাদক পেয়েছে।

বন্ধুরা, এখন শুনুন লিউ সি ছিংয়ের বাজানো 'ধ্যান' নামে সুর। সুরটি ১৯ শতাব্দীতে ফ্রান্সের সুরকার জুলিস মাসেনেটের সৃষ্টি গীতিনাট্য 'থেইস' এর একটি সুর। সুরটি মাসেনেটের প্রতিনিধিত্ব সুর এবং খুব জনপ্রিয় একক বেহালা সুর।

লিউ সি ছিং বেহালা দিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের লোকজনের সঙ্গে বিনিময় করেন। তার প্রচেষ্টায় 'লিয়াং শান বো ও চু ইং থাইয়ের গল্প' বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে।

বিশ্ববিখ্যাত সুর 'চার ঋতু' তার বেহালায় অসাধারণ রঙ সৃষ্টি করে। এ পর্যন্ত তিনি কানাডা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, ইতালি, জার্মানি, ফিনল্যান্ড, স্পেন, ব্রাজিল, দক্ষিণ কোরিয়া ও থাইল্যান্ড সহ ৩০টি দেশ ও অঞ্চলে বেহালা বাজিয়েছেন। সব জায়গায় পেয়েছেন উষ্ণ অভ্যর্থনা ও গভীর প্রশংসা।

কিন্তু যতই ব্যস্ত থাকুন না কেন তিনি প্রতি দিন তিন-চার ঘণ্টা বেহালা চর্চা করেন। কোনো তথ্যমাধ্যম তার সাক্ষাত্কার নিতে চাইলে তিনি তাদের বলেন, 'খুব দুঃখিত। আমার সময় নেই। বেহালা চর্চা করতে হবে। নাহলে মঞ্চে উঠে ভালোভাবে বাজাতে না পারলে সকলের কষ্ট হবে।'

বন্ধুরা, এবার শুনুন লিউ সি ছিংয়ের বাজানো 'আজ রাত যত্নে রাখুন' নামে সুর।

লিউ সি ছিং বিশ্ববিখ্যাত হয়ে ওঠার পর ২০০৪ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি জন্মস্থান শানতোংয়ে ফিরে গিয়ে সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজন করেন। সংগীতানুষ্ঠানে দুই হাজারেরও বেশি দর্শক উপস্থিত হন। অনুষ্ঠানের পর তিনি সংগীতানুষ্ঠানের ৩ লাখ আয় প্রদেশটির দাতব্য কমিশনকে দান করেন। তিনি তার সবচেয়ে বিখ্যাত সুর 'লিয়াং চু' বাজান। এ অর্থ অনাথ এইডস রোগীদের মৌলিক শিক্ষাগ্রহণের সাহায্যে ব্যবহৃত হয়।

লিয়াং শান পো আর চু ইং থান হচ্ছে চীনের প্রাচীনকালের একটি জনপ্রিয় প্রেমের কাহিনী। 'লিয়াং চু' নামের সুরটিও চীনে খুব জনপ্রিয় একটি সুর। চীনের সুরকার হো চান হাও আর চেন কাং (何占豪及陈钢) এ কাহিনীকে বেহালা সুরে রূপান্তর করেন।

লিউ সি ছিং বেহালার মাধ্যমে অদ্ভুত ও গভীরভাবে চীনের প্রেমকাহিনী প্রকাশ করেছেন। সুরকার হো চান হাও আর চেন কাং তার বাজানো সুর শুনে চোখের পানি ফেলেছেন। চেন কাং বলেন, লিউ সি ছিংয়ের বাজানো 'লিয়াং চু' সুরটি অসাধারণ। বন্ধুরা, মনস্পর্শী বেহালা সুর 'লিয়াং চু' শুনুন।

প্রিয় বন্ধুরা, আজকের 'সুর ও বাণী' অনুষ্ঠানে চীনের বিখ্যাত বেহালাবাদক লিউ সি ছিংয়ের সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরেছি। শুনিয়েছি তার বাজানো কয়েকটি সুর। আশা করি, সুরগুলো আপনাদের ভালো লেগেছে। এ অনুষ্ঠান সম্পর্কে আপনাদের কোনো মতামত থাকলে আমাকে ইমেইলে জানাবেন। ইমেইল ঠিকানা: ben@cri.com.cn।

বন্ধুরা, ভালো থাকুন সবাই। আবার কথা হবে। (ইয়ু/টুটুল)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040