Web bengali.cri.cn   
সুর ও বাণী : দ্বিভাষিক গান
  2016-06-15 18:45:27  cri


প্রিয় শ্রোতাবন্ধুরা, আপনারা চীন আন্তর্জাতিক বেতারের বাংলা অনুষ্ঠান শুনছেন। আমি আনন্দি বেইজিং থেকে আপনাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

গত শতাব্দীর ৮০ ও ৯০'এর দশকে চীনের হংকং ও তাইওয়ানের অনেক জনপ্রিয় গায়ক-গায়িকা জাপান বা ইউরোপ-আমেরিকার পপ সংগীত চীনা ভাষায় অনুবাদ করে পরিবেশনের পর চীনে জনপ্রিয় হয়েছেন। তারপর আস্তে আস্তে চীনের মূলভূখণ্ড, হংকং, তাইওয়ান, এমন কি সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়াসহ চীনা ভাষা প্রচলিত অঞ্চলের সুরকার ও কণ্ঠশিল্পীরা দিন দিন পরিপক্ক হয়ে নানা ধরনের পপ সংগীত সৃষ্টি করেছেন।

এখন চীনা ভাষার লেখা পপ সংগীতগুলো শুধু চীনাদের মধ্যে জনপ্রিয়তা পেয়েছে তা নয়, বরং অনেক বিদেশী শিল্পী ও শ্রোতাও চীনা গান পছন্দ করেন। কিছু বিদেশী শিল্পী চীনা গানগুলো নিজেদের ভাষায় অনুবাদ করে গেয়েছেন। এসব গান বিদেশী শ্রোতাদের মুগ্ধ করার পাশাপাশি চীনা শ্রোতাদের কাছেও খুব ভালো লেগেছে। আজকের 'সুর ও বাণী' আসরে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো এমন কয়েকজন শিল্পীর সাথে। শোনাবো তাদের গানগুলো।

প্রিয় বন্ধুরা, এখন আপনারা শুনছেন 'প্রেমের কারণে' নামে একটি গান। গেয়েছেন ওয়াং ফেই এবং চেন ঈ শুন। এ গানে বলা হয়েছে, 'তোমাকে অতীতে একটি সিডি উপহার দিয়েছিলাম। শোনো আমাদের সে সময়ের প্রেমের কথা। মাঝে মাঝে আমি হঠাত্ ভুলে যাই, আমি এখনো তোমাকে ভালোবাসি। এখন আমি আগের মতো গান গাইতে পারি না।' এ গানটি 'শেষ পর্যন্ত ভালোবাসি' শিরোনামে একটি চলচ্চিত্রের থিম সং। চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাওয়ার সাথে সাথে এ গানটিও খুব জনপ্রিয় হয়।

ফ্রেড ব্যান্ড

২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ফ্রান্স, স্লোভাকিয়া, বৃটেন এবং ইতালির চারজন পুরুষ শিল্পী চীনের চিলিন প্রদেশের দালিয়ানে 'ফ্রেড' নামে একটি ব্যান্ড গঠন করেন। তারা বিভিন্ন দেশ থেকে চীনে এসেছেন। তারা সবাই সংগীত ভালোবাসেন এবং চীনের সংস্কৃতি ভালোবাসেন। তারা চীনের নানা টেলিভিশন কেন্দ্রের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। চমত্কার পরিবেশনার ফলে চীনে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তারা সাফল্যের সাথে দশ বছর স্থায়ী 'প্রেমের কারণে' এর ফরাসী ভাষার গান পরিবেশনের বিশেষ অধিকার স্বাক্ষর করেন। 'প্রেমের কারণে' গানের ফরাসি ভাষার নাম দেওয়া হয়েছে 'অ্যা ফোর্স দ্যো টাইমার'। এ পর্যন্ত ৮০ লাখের বেশি শ্রোতা ইন্টারনেটে এ গান শুনেছেন। গত কয়েক বছরে ফ্রেড ব্যান্ড চীন ও পশ্চিমা সংস্কৃতি বিনিময়ে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছেন। তারা চীনের শ্রুতিমধুর সংগীতগুলো নিজের দেশে নিয়ে গেছেন। তাদের প্রচেষ্টায় আরো বেশি মানুষ চীনের সংগীত শুনতে পারছেন। বন্ধুরা, শুনুন ফরাসী ভাষার গান 'অ্যা ফোর্স দ্যো টাইমার'।

সুপ্রিয় বন্ধুরা, এই মাত্র আপনারা শুনলেন ফ্রেড ব্যান্ডের গাওয়া 'প্রেমের কারণে' নামক চীনা গানের ফরাসী সংস্করণ। এবার আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেবো 'মাইকেল লার্নস টু রক' নামের একটি ব্যান্ডের। ১৯৮৭ সালে এ ব্যান্ড গঠিত হয়। এর তিনজন সদস্য আছে। তারা হলেন জেসিকা রিছটার, মিকেল ল্যান্টেজ এবং কারে ওয়ান্সকার। এ ব্যান্ডকে বলা হয় স্ক্যান্ডিনেভিয়ার ঐতিহ্যবাহী সংগীত এবং পশ্চিমা পপ সংগীতের মিশ্রণ সৃষ্টি করা ব্যান্ড। সারা বিশ্বে তাদের কোটি কোটি সিডি বিক্রি হয়। তারা ডেনমার্কের সংগীত ইতিহাসে সবচেয়ে সফল ব্যান্ডগুলোর অন্যতম। এখন শুনুন এ ব্যান্ডের গাওয়া 'রূপকথা' নামের গানটি।

মাইকেল লার্নস টু রক

শ্রোতা বন্ধুরা, এতোক্ষণ আপনারা শুনলেন 'মাইকেল লার্নস টু রক' ব্যান্ডের গাওয়া 'রূপকথা' নামের গানটি। এ গানটি আসলে একটি চীনা গান ছিল। চীনা গানের কথা লিখেছেন লিউ পিং (刘兵)। সুর করেছেন লি চিয়ান। এ গানটি 'লি ছুন থিয়ানের বসন্তকাল' নামে টেলিভিশন নাটকের প্রধান গান। গানটি ২০১০ সালে চীনের কেন্দ্রীয় টেলিভিশন কেন্দ্রের নির্বাচিত 'জনপ্রিয় বার্ষিক স্বর্ণ সংগীত পুরস্কার পেয়েছে। এখন শুনুন সুরকার লি চিয়ানের কণ্ঠে 'রূপকথা' গানটি। এ গানে বলা হয়েছে, 'জনসমাবেশের মধ্যে তোমার প্রতি নজর পড়েছে। এরপর থেকে তোমার চেহারা আর ভুলতে পারিনি। ভাবছি আবার কবে তোমার সঙ্গে দেখা হবে। সে সময় থেকে আমার একাকী বোধ হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করতে চাই, অতীত জীবনে আমাদের মধ্যে প্রতিশ্রুতি ছিল। এই জীবনে আমাদের প্রেমের পরিবর্তন হবে না। আমি সারা জীবন তোমার জন্য অপেক্ষা করতে চাই। যাতে তুমি বুঝতে পারো, আমি সবসময় তোমার পাশে ছিলাম, কখনো দূরে যাই নি।'

এবার আপনাদের শোনাবো হংকংয়ের প্রয়াত সংগীত রাণী মেই ইয়ান ফাংয়ের প্রতিনিধিত্বকারী গান 'নারী ফুল'। এ গান 'প্রাচ্য মাতা' নামে টেলিভিশন নাটকের থিম সং। গানটিতে বলা হয়েছে, 'আমার একটি ফুল আছে। ফুলটি আমার মনে থাকে। আমি সহিষ্ণুতা সহকারে অপেক্ষা করি, একদিন প্রিয় মানুষটি এসে ফুলটি নিয়ে যাবে।'

প্রিয় শ্রোতা, 'নারী ফুল' গানটি চীনের নারী শ্রোতাদের কাছে খুবই জনপ্রিয় একটি গান। এ গানে নারীদের মনের কথা বলা হয়েছে। সুইডেনের গায়িকা সোফিয়া কালগ্রিন এ গানটি সুন্দর করে ইংরেজী ভাষায় গেয়েছেন। এ গানের ইংরেজী নাম, 'ইউ ডোন্ট লিভ হেয়ার এনি মোর'। তাহলে শুনুন গানটি।

সোফিয়া কালগ্রিন

সোফিয়া কালগ্রিন সুইডেনের ব্যাপক পরিচিত এক গায়িকা। তাকে 'উত্তর ইউরোপের সারাহ ব্রাইটম্যান' বলা হয়। তিনি অনেক আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছেন। ১৯৯৮ সালে তিনি চীনের কেন্দ্রীয় টেলিভিশন কেন্দ্রের আমন্ত্রণে প্রথমবার চীন সফর করেন। বেইজিং, শাংহাই, ছিংতাও, হাংচৌ, চেংতু এবং উহানসহ নানা অঞ্চলে সংগীতানুষ্ঠান করেন। এরপর তিনি চীনের ডিস্ক কোম্পানির সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করে 'প্রাচ্য ও পশ্চিমা' নামে চীনা পপ সংগীতের ইংরেজী ভাষার ডিস্ক প্রকাশ করেন। তিনি চীনের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত প্রথম পশ্চিমা গায়ক।

সোফিয়া কালগ্রিন চীনের সংস্কৃতি ভালোবাসেন। তিনি চীনে থাকার অনুভুতি অনুসারে কিছু চীনা গানের সুরের ভিত্তিতে নতুন করে গানগুলোর ইংরেজী কথা লিখেছেন। তার গানগুলোতে আমরা আন্তরিকতার স্পষ্ট ছাপ দেখতে পাই।

বন্ধুরা, অনুষ্ঠানের শেষে শুনুন সোফিয়া কালগ্রিনের গাওয়া 'লাভ ইজ দ্যা অ্যানসার'নামের একটি গান। এ গানের চীনা নাম ছিল 'একা থাকলে তোমার কাকে মনে পড়বে?'

প্রিয় বন্ধুরা, এতোক্ষণ আপনারা 'সুর ও বাণী' আসরে চীনা গান থেকে রূপান্তরিক কয়েকটি ফরাসি ও ইংরেজী গান শুনলেন। কেমন লাগলো? আমি অপেক্ষা করবো, কোনো একদিন আপনাদের মধ্যে কেউ কেউ চীনা গানকে বাংলা করে আমাদের শোনাবেন। কেমন?

বন্ধুরা, এ পর্বের 'সুর ও বাণী' আসর এ পর্যন্তই। সবাই ভালো থাকুন। আবার কথা হবে। (ইয়ু/মান্না)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040