Web bengali.cri.cn   
চীনের শেন ইয়াং: পর্যটকদের স্বর্গ
  2016-01-29 19:00:49  cri

 


শেন ইয়াং শহর লিয়াও নিং প্রদেশের রাজধানী। এর অন্য দুটো নাম আছে: একটা হচ্ছে শেং চিং, আরেকটা হচ্ছে ফেং থিয়ান। শহরের আয়তন ১২ হাজার ৯৮০ বর্গকিলোমিটার এবং জনসংখ্যা ৮১ লাখ। ১৬২৫ সালে ছিং রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা শেন ইয়াং-এ রাজধানী প্রতিষ্ঠা করেন।

শেন ইয়াং হচ্ছে উত্তর-পূর্ব চীনের বৃহত্তম সংযোগস্থল। এখানে রেলপথ, রাজপথ ও বেসামরিক বিমান চলাচল ব্যবস্থা মিলিত হয়ে আধুনিক পরিবহন নেটওয়ার্ক সৃষ্টি করেছে। শেন ইয়াং চীনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বেসামরিক বিমান চলাচল ব্যবস্থার কেন্দ্র। শেন ইয়াং থাও শিয়ান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বৃহত্তম বিমানবন্দর। শহরের কেন্দ্র থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই বিমানবন্দর। শেন ইয়াং থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে ৪০টির বেশি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চলাচল করে। এ ছাড়া হংকং, উত্তর কোরিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও রাশিয়াগামী আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক ফ্লাইটও আছে।

শেন ইয়াং উত্তর-পূর্ব চীনের বৃহত্তম রেল-সংযোগস্থলও বটে। শহরের বাসগুলোতে সেল্ফ-সার্ভিস টিকিটিং ব্যবস্থা আছে। টিকিটের দাম মাত্র ১ ইউয়ান। অবশ্য, শহরে উপকণ্ঠে টিকিটের দাম রাস্তার দৈর্ঘ্য অনুযায়ী হিসাব করা হয়।

দর্শনীয় স্থান

শেন ইয়াং রাজপ্রাসাদ যাদুঘর একটি অন্যতম দর্শণীয় স্থান। এটা ছিল ছিং রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা ছিং থাই জু ও তাঁর ছেলে ছিং থাই জোং কর্তৃক নির্মিত ও ব্যবহৃত প্রাসাদ। এর স্থাপত্যশৈলীতে চীনের জাতীয় ঐতিহ্যের ছাপ স্পষ্ট। এ প্রাসাদের প্রবেশ করতে হলে আপনাকে ৬০ ইউয়ান দিয়ে টিকিট কাটতে হবে। অবশ্য ঐতিহাসিক ও শৈল্পিক মূল্য বিবেচনায় এটি বেইজিংয়ের নিষিদ্ধনগর তথা রাজপ্রাসাদের চেয়ে পিছিয়ে আছে।

শেন ইয়াং এক্সপো শেন ইয়াং উদ্ভিদোদ্যানের ভিত্তিতে সম্প্রসারিত। এর নাননিং বাগান, হাইনান বাগান, উহান বাগান ও চিনান বাগান উল্লেখযোগ্য। আন্তর্জাতিক বাগান এলাকায় যুক্তরাষ্ট্র বাগান, ইতালি বাগান ও নেদারল্যান্ডস বাগান আছে। শেন ইয়াং এক্সপো'র টিকিটের দাম ৫০ ইউয়ান। অবশ্য, এখানে কোনোকিছু কিনতে হলে আপনাকে তুলনামূলকভাবে বেশি অর্থ গুণতে হবে। এক্সপোর বাইরে থেকে ৩-৫ গুণ বেশি দামে এখানে জিনিস বিক্রি হয়। সুতরাং এখানে ভ্রমণে যাওয়ার আগে খাবার ও পানি বাইরে থেকে কিনে নেওয়া বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

জাও লিং সমাধি বা বেই লিং শেন ইয়াং শহরের বৃহত্তম পার্ক। এখানে রয়েছে ছিং থাই জোং ও তার স্ত্রীর সমাধি। শহরের উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত হওয়ায় একে বেই লিং ডাকা হয়। পার্কের টিকিটের দাম মাত্র ৬ ইউয়ান। অভ্যন্তরীণ কবরস্থানের টিকিটের দাম ব্যস্ত মৌসুমে ৫০ ইউয়ান এবং অফ সিজনে ৩০ ইউয়ান।

পাশাপাশি ছিং থাই জোং'র বাবা ছিং থাই জু'র সমাধি শেন ইয়াং শহরের পূর্ব দিকে অবস্থিত। সুতরাং এর নাম "তোং লিং"। এর আনুষ্ঠানিক নাম ফু লিং সমাধি। সেখানকার টিকিটের দাম ৪০ ইউয়ান।

এখানে একটি কথা বলতে হয়, সেটা হচ্ছে, শেন ইয়াং রাজপ্রাসাদ, জাও লিং সমাধি ও ফু লিং সমাধি বিশ্বের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃত।

শেন ইয়াং-এ জোংশান নামে একটি মহাচত্বর আছে। মহাচত্বরটি প্রায় ১শ' বছরের পুরাতন। মহাচত্বরের কেন্দ্রে চেয়ারম্যান মাও সেতুং'র ভাস্কর্য আছে। অনেক পর্যটক সেখানে বেড়াতে আসেন।

ছাং আন নামে একটি মন্দির আছে শেন ইয়াং শহরে। এটা হচ্ছে শহরটির সবচেয়ে প্রাচীন স্থাপত্যকর্ম। এখানে একটি কথা প্রচলিত আছে। চীনা ভাষায় কথাটি হচ্ছে: "সিয়ান ইয়ো ছাং আন সি, হৌ ইয়ো শেন ইয়াং ছেং"। এর অর্থ: ছাং আন মন্দির শেন ইয়াং শহর প্রতিষ্ঠার আগে থেকেই ছিল।

বৈশিষ্ট্যময় খাবার

শেন ইয়াং শহরে লাও বিয়ান চিয়াও জি বা লাও বিয়ান ডাম্পলিং খুব বিখ্যাত। এ ডাম্পলিং এখানকার শতাব্দীপ্রাচীন রেস্তোরাঁয় পাওয়া যায়। এ ডাম্পলিংয়ের স্বাদ আশ্চর্যরকম ভালো।

এখানে মুসলমানদের জন্য খুবই ভালো একটি খবর আছে। এখানে পাওয়া যায় মা চিয়া শাও মাই বা মা পরিবারের স্টিমড্‌ ডাম্পলিং। এটা হচ্ছে শেন ইয়াংয়ের বিশেষ বৈশিষ্ট্যময় হুই জাতির খাবার। সবাই জানেন, হুই জাতির মানুষ মুসলিম। অতএব তারা এ ডাম্পিলিংয়ে হারাম কিছু ব্যবহার করে না। অতএব মুসলিম পর্যটকরা এখানে এলে মা পরিবারের স্টিমড্‌ ডাম্পলিং খেয়ে দেখতে পারেন।

শেন ইয়াং শহরের হোপিং এলাকায় সি থা নামে একটি সড়ক আছে। সড়কের দৈর্ঘ্য প্রায় ৫শ' মিটার। সড়কটি অবসর বিনোদন, কেনাকাটা, কোরীয় সুস্বাদু খাবার খাওয়া এবং কোরীয় জাতির সংস্কৃতি উপলব্ধি করার ভাল জায়গা।

অন্যদিকে, জোং চিয়ে সড়ক শেন ইয়াংয়ের সবচেয়ে সমৃদ্ধ ও আড়ম্বরপূর্ণ রাস্তা। কেনাকাটার জন্য আরো আছে থাই ইউয়ান চিয়ে সড়ক।

উ আই বাজার চীনের ৫টি বৃহত্তম বাজারগুলোর অন্যতম। সেখানকার হরেকরকমের পণ্যদ্রব্য পাওয়া যায়। এখানে জিনিস সস্তা। (প্রেমা/আলিম)

© China Radio International.CRI. All Rights Reserved.
16A Shijingshan Road, Beijing, China. 100040